ঢাকা, সোমবার, ১১ মাঘ ১৪২৭, ২৫ জানুয়ারি ২০২১, ১১ জমাদিউস সানি ১৪৪২

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

ইউএসটিসিতে বিশ্বের ৪০ জন বিজ্ঞানী-গবেষক নিয়ে সম্মেলন  

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭১৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২, ২০২০
ইউএসটিসিতে বিশ্বের ৪০ জন বিজ্ঞানী-গবেষক নিয়ে সম্মেলন   ...

চট্টগ্রাম: বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম (ইউএসটিসি) এবং মালয়েশিয়ার ইউনিভার্সিটি টেকনোলজি পেট্রোনাস বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক আয়োজিত ‘মুজিববর্ষ’ উপলক্ষে বাংলাদেশে প্রথম চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের ওপর দু’দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক কনফারেন্সের আয়োজন করা হয়েছে।  

কনফারেন্সটি ৫ ও ৬ ডিসেম্বরে ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে অনুষ্ঠিত হবে।

যেখানে মালয়েশিয়া, ভারত, যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া, মাল্টা, যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা ও বাংলাদেশের ৪০ জন গবেষক, অধ্যাপক ও বিজ্ঞানী অংশ নেবেন।

‘Online International Conference on 4th Industrial Revolution IC4IR 2020’ শিরোনামের এ কনফারেন্স উদ্বোধন করবেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এ কনফারেন্স উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে জাতীয় অধ্যাপক ডা. নুরুল ইসলাম ইনস্টিটিউট অব ফোরথ ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিভল্যুয়েশনের কার্যক্রম শুরু হবে।

বুধবার (০২ ডিসেম্বর) ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে এক সংবাদ সম্মেলনে ইউএসটিসি কর্তৃপক্ষ এসব তথ্য জানায়।

আন্তর্জাতিক এ কনফারেন্সে বক্তব্য দেবেন ইউএসটিসি’র বোর্ড অব ট্রাস্টির  চেয়ারম্যান আহমেদ ইফতেখারুল ইসলাম, মালয়েশিয়ার ইউনিভার্সিটি টেকনোলজি পেট্রোনাস (ইউটিপি) বোর্ড অব ডাইরেক্টর্সের চেয়ারম্যান ডাতোরাহিয়া আজমী আবদুর রহমান এবং সভাপতিত্ব করবেন ইউএসটিসির উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. জাহাঙ্গীর আলম।
 
সম্মেলনে কি নোট স্পিকার হিসেবে বক্তব্য দেবেন আমেরিকা, মালয়েশিয়া এবং বাংলাদেশেসহ দেশের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়েরর নাম করা অধ্যাপক ও বিশিষ্ট বিজ্ঞানীরা। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেবেন মালয়েশিয়ার ইউনিভার্সিটি টেকনোলজি পেট্রোনাসের (ইউটিপি) উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. ইব্রাহীম বিন আবদুল মোতালিব।  

সংবাদ সম্মেলনে ইউএসটিসির উপাচার্য জাহাঙ্গীর আলম জানান,  ২০২১ সালে বাংলাদেশ তার স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি  উদযাপন করতে চলেছে। সেই অনুসারে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শততম জন্মবার্ষিকী’র বছরব্যাপী কর্মসূচির মাধ্যমে ‘মুজিববর্ষ’ উদযাপন করতে যাচ্ছে। ইউএসটিসির প্রতিষ্ঠাতা, উপমহাদেশের খ্যাতনামা চিকিৎসাবিজ্ঞানী, জাতীয় অধ্যাপক ডা. নুরুল ইসলাম। যিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ব্যক্তিগত চিকিৎসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। সেই সূত্রে বিশ্ববিদ্যালয় জাতির পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়নে বদ্ধপরিকর।
 
তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিশন- ২০২১ এবং ২০৪১ এর একটি দক্ষ, জবাবদিহি, স্বচ্ছ ও বিকেন্দ্রীকৃত প্রশাসন ব্যবস্থা গড়ে তোলা। দারিদ্র্যমুক্ত মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হওয়া, সুস্থ নাগরিকদের একটি দেশ, একটি দক্ষ এবং সৃজনশীল মানবসম্পদে সমৃদ্ধ দেশ গড়া এবং একটি বিকাশিত ডিজিটাল অর্থনীতির দেশ বিনির্মাণ করা। এসব লক্ষ্য সামনে রেখে ইউএসটিসি বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন একাডেমিক লিডারদের দিক নির্দেশনামূলক লেকচারের আয়োজন করতে যাচ্ছে। যা বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি মাইলফলক হয়ে থাকবে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৭১০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০২, ২০২০ 
জেইউ/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa