লাখ টাকার আশায় খুন, পেয়েছিল মাত্র সাড়ে ৩ হাজার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজ

walton

চট্টগ্রাম: পটিয়া কালারপোল এলাকার পান দোকানি আবদুল কাদের স্বচ্ছল জীবনযাপন করতেন। এ থেকে ধারণা, তার কাছে কয়েক লাখ টাকা জমা রয়েছে। সেই টাকা হাতিয়ে নিতে হত্যার পরিকল্পনা।

তিনদিন আগে প্রথম দফায় হত্যা করতে না পারলেও দ্বিতীয় দফার চেষ্টায় ঘুমন্ত পান দোকানি আবদুল কাদেরকে হত্যা করতে সক্ষম হন তারা। লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনায় হত্যার পর আবদুল কাদেরের কাছ থেকে পাওয়া যায় মাত্র সাড়ে তিন হাজার টাকা।

সেই টাকা ভাগ করে একজন ২ হাজার ও অপরজন দেড় হাজার টাকা নিয়ে দুইজন দুই এলাকায় পালিয়ে যান।

সোমবার (৪ মে) আবদুল কাদের হত্যার সঙ্গে জড়িত মো. শাওন প্রকাশ সাগরকে আটকের পর এসব তথ্য জানতে পারে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)।

পটিয়া কালারপোল এলাকার আবদুল কাদেরকে হত্যার পর লক্ষ্মীপুর জেলার চন্দ্রগঞ্জ দত্তপাড়া এলাকায় বাড়িতে পালিয়ে আত্মগোপন করেন শাওন। সোমবার সকালে র‍্যাব-৭ এর একটি টিম তাকে সেখান থেকে গ্রেফতার করে বলে বাংলানিউজকে জানান র‍্যাব-৭ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. মাহামুদুল হাসান মামুন।

গ্রেফতার শাওন পটিয়া আজিজিয়া রেস্টুরেন্টের কর্মচারী। তার বাড়ি লক্ষ্মীপুর জেলার চন্দ্রগঞ্জ দত্তপাড়া এলাকায়।

র‍্যাব-৭ এর সহকারী পুলিশ সুপার কাজী মোহাম্মদ তারেক আজিজ বাংলানিউজকে বলেন, আবদুল কাদের হত্যার পর অজ্ঞাতদের আসামি করে মামলা হয় পটিয়া থানায়। ঘটনার পর থেকে ছায়া তদন্তে নামে র‍্যাব-৭। তদন্তে দুইজনের সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়। যার একজনকে লক্ষ্মীপুর থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

কাজী মোহাম্মদ তারেক আজিজ বলেন, গ্রেফতার শাওন প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে- আবদুল কাদেরের ক্যাশ বক্সে কয়েক লাখ টাকা থাকতে পারে, এই ধারণা থেকে সেই টাকা হাতিয়ে নিতে চেয়েছিলেন তারা।

শাওন যে হোটেলের কর্মচারী সেই হোটেলের সামনে পান দোকান করতেন আবদুল কাদের। কাদের স্বচ্ছল জীবনযাপন করতেন। এ কারণে আসামিরা ভেবেছিল তার কাছে কয়েক লাখ টাকা জমা থাকতে পারে।

তিনি বলেন, আবদুল কাদেরকে হত্যার পর তার ক্যাশ বক্সে মাত্র সাড়ে তিন হাজার টাকা পায় হত্যাকারীরা। পরে শাওন ২ হাজার টাকা ও আরেকজন দেড় হাজার টাকা ভাগ করে নেয়। হত্যার পরপরই দুইজন দুই এলাকায় পালিয়ে যায়।

কাজী মোহাম্মদ তারেক আজিজ বলেন, ২১ এপ্রিল রাতে হত্যাকাণ্ড ঘটায় আসামিরা। ঘুমন্ত আবদুল কাদেরকে রশি দিয়ে বেঁধে মারধর করে। পরে রশি গলায় পেঁচিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করে মরদেহ ড্রামে ঢুকিয়ে রাখে। এর তিনদিন আগেও একবার হত্যার চেষ্টা করা হয়েছিল।

পলাতক অপর আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানান র‍্যাব কর্মকর্তা কাজী মোহাম্মদ তারেক আজিজ।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০৫ ঘণ্টা, মে ০৪, ২০২০
এসকে/এমআর/টিসি

Nagad
সরকারিভাবে শহীদ শেখ কামালের জন্মদিন উদযাপনের সিদ্ধান্ত
ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহর জন্ম
এন্টিবডি কিট থেকে পাটকল ll মুহম্মদ জাফর ইকবাল
যাত্রাবাড়ীতে ১০ হাজার পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক
ব্রহ্মপুত্র-যমুনা-সুরমা-কুশিয়ারার পানি দ্রুত বাড়ার শঙ্কা


ফেসবুকে বন্ধুত্বে প্রতারণা: ১৬ নাইজেরিয়ান কারাগারে
সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে আমির হোসেন আমুর শোক
সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে তাপস-আতিকের শোক
সাহারার মৃত্যুতে বিরোধীদলীয় নেতা-জাপা চেয়ারম্যানের শোক
করোনায় রিজেন্ট হাসপাতাল মালিকের বাবার মৃত্যু