মেয়রের উদ্যোগে ছিটানো হচ্ছে ব্লিচিং পাউডার মেশানো পানি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

চসিক মেয়রের উদ্যোগে সড়কে ছিটানো হচ্ছে ব্লিচিং পাউডার মেশানো পানি।

walton

চট্টগ্রাম: নগরের প্রধান প্রধান সড়কে ব্লিচিং পাউডার মেশানো ৪১ হাজার লিটার পানি ছিটিয়েছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক)।

বুধবার (২৫ মার্চ) মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন নিজ হাতে পানি ছিটিয়ে এ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন।

এসময় মেয়র বলেন, আতঙ্কিত হওয়ার কিছুই নেই। সচেতনতাই করোনাভাইরাস প্রতিরোধ করতে পারে। এ ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে প্রত্যেকেই সতর্কতার অংশ হিসেবে মুখে মাস্ক ব্যবহার করা, গণপরিবহন ও ময়লা পোশাক এড়িয়ে চলা, পর্যাপ্ত পানি পান করা, ঘরে ফিরে হ্যান্ডওয়াশ দিয়ে ভালো করে হাত ধোয়া, ডিম কিংবা মাংস রান্নার সময় ভালো করে সেদ্ধ করা, নিয়মিত থাকার ঘর এবং কাজের জায়গা পরিষ্কার রাখতে হবে। নগর পরিচ্ছন্ন রাখতে চসিকের উদ্যোগে সড়কে ব্লিচিং পাউডার মেশানো পানি ছিটানো হচ্ছে।

মেয়র বলেন, প্রতিদিন জীবাণুনাশক পানি ছিটানো অব্যাহত থাকবে। নগরবাসীর প্রতি আহ্বান, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের নির্দেশনা মেনে চলুন। তাহলে সম্মিলিত প্রচেষ্টায় করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ করতে পারবো।

চসিকের প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শফিকুল মান্নান সিদ্দিকী বাংলানিউজকে জানান, প্রথম দিন ১৬ হাজার লিটারের ২টি ও ৯ হাজার লিটারের একটি পানির ভাউচারে ব্লিচিং পাউডার মেশানো পানি ছিটানো হয়েছে।একটি গাড়ি চট্টগ্রাম ওয়াসার মোড় থেকে কালুরঘাট পর্যন্ত, আরেকটি গাড়ি ওয়াসা থেকে শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এবং আরেকটি গাড়ি আন্দরকিল্লা পর্যন্ত পানি ছিটিয়েছে। মেয়র ওয়াসা মোড় থেকে বহদ্দারহাট পর্যন্ত নিজ হাতে জীবাণুনাশক পানি ছিটিয়ে এ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১২৫২ ঘণ্টা, মার্চ ২৫, ২০২০
এআর/এসি/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: চট্টগ্রাম
মাস্ক জীবাণুমুক্ত করতে রেডিয়েশন ব্যবহার করছে রাশিয়া
করোনায় আক্রান্ত বার্সার ভাইস প্রেসিডেন্ট
করোনায় স্পেনে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৮০৯
বাড়ছে টোকিও অলিম্পিকে পুরুষ ফুটবলে বয়সসীমা
করোনা সংকটে মৎস্যচাষিদের প্রণোদনা দেওয়ার আশ্বাস


করোনা: শবে বরাতে নিজ বাসায় নামাজ আদায়ের আহ্বান
সাদুল্যাপুরে আরও একজনের শরীরে করোনা শনাক্ত, ১৫ বাড়ি লকডাউন
ঢাকার মালয়েশিয়া হাইকমিশন খুলবে ১২ এপ্রিল
ডিসির হটলাইনে ফোন করলেই মিলছে খাদ্য
করোনা প্রতিরোধে সচেতনতা নেই গ্রামীণ জনপদে