কাউন্টার ফাঁকা, যাত্রী নেই

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

সব বাস কাউন্টারই ফাঁকা। ছবি: বাংলানিউজ

walton

চট্টগ্রাম: প্রায় সব বাস কাউন্টারই ফাঁকা। কোনো কাউন্টারে দিনে ৫টি আর কোনো কাউন্টারে একেবারে শূন্য টিকিট বিক্রির সংখ্যা। এক সপ্তাহ আগেও দিনে ১২টি বাস বিভিন্ন গন্তব্যে ছাড়লেও এখন সর্বোচ্চ দুটি বাস ছাড়ছে, তাও বাসে যাত্রীর সংখ্যা হাতেগোনা।

সোমবার (২৩ মার্চ) বিকেলে সরেজমিনে দেখা যায়, বহদ্দারহাট বাস টার্মিনাল, বিআরটিসি ও দামপাড়া বাস কাউন্টারে ভিড় নেই। অধিকাংশ কাউন্টারই বলতে গেলে ফাঁকা। যদিও গণপরিবহন চলাচল বন্ধে কোনো আনুষ্ঠানিক নির্দেশনা জারি করা হয়নি।

দামপাড়া শাখার সোহাগ এসি পরিবহনের কর্মকর্তা আজিজুল হক বাংলানিউজকে বলেন, এক সপ্তাহ আগেও ঢাকা, কক্সবাজারসহ বিভিন্ন রুটে চট্টগ্রাম থেকে ১২টি বাস ছেড়ে গেছে। কিন্তু করোনা ভাইরাসের প্রকোপের কারণে এখন প্রতিদিন দুটি বাস ছেড়ে যাচ্ছে। তাও যাত্রীর সংখ্যা কম। গতকাল থেকে আজ (সোমবার) বিকেল তিনটা পর্যন্ত মাত্র ৫টি টিকিট বিক্রি হয়েছে। গত ১৭ মার্চের পরদিন থেকে কাউন্টারে যাত্রী কমেছে।

সৌদিয়া পরিবহনের কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম বলেন, আজকের দিনে টিকিট বিক্রির সংখ্যা শূন্যের কোটায়। গতকাল (রোববার) চারটি টিকিট বিক্রি হয়েছে। এ পরিস্থিতি চলতে থাকলে বাস চলাচল বন্ধ করে দেওয়া ছাড়া উপায় নেই।

সোহাগ বাসের শারমিন সোলতানা নামে এক যাত্রী বাংলানিউজকে বলেন, প্রতিটি বাসে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও সঙ্গে টিস্যু পেপার রাখা জরুরি। যেসব যাত্রী গাড়িতে উঠবে তারা আগে হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে হাত জীবাণুমুক্ত করবে। এ ধরনের কোনো ব্যবস্থা করেনি বাস মালিকরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০০ ঘণ্টা, মার্চ ২৩, ২০২০
জেইউ/এসি/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: চট্টগ্রাম
গুজব ছড়ানোয় রাজশাহীতে ২৩ জনের জরিমানা
মারা গেলেন করোনা সন্দেহে ঢাকায় পাঠানো সেই ব্যক্তি 
ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে ডোর টু ডোর যাচ্ছেন মেয়র নাছির
কুমিল্লায় সচেতনতামূলক ভিডিও প্রচার-খাদ্য বিতরণ সেনাবাহিনীর
রামজান উপলক্ষে বুধবার থেকে টিসিবির পণ্য বিক্রি শুরু


চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মীদের যাতায়াতের ব্যবস্থা করবে সিএমপি
করোনা: পোল্ট্রি শিল্পে ক্ষতি ১১৫০ কোটি টাকা
 কবি হাসান হাফিজুর রহমানের প্রয়াণ
করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ইতালিতে আরও ৮৩৭ জনের মৃত্যু
গোপনে রাতের আঁধারে ত্রাণ পৌঁছে গেল ঘরে