ঢাকা, শনিবার, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৫ আগস্ট ২০২০, ২৪ জিলহজ ১৪৪১

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

‘পরিকল্পিতভাবে খালেদাকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে সরকার’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২২০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২০
‘পরিকল্পিতভাবে খালেদাকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে সরকার’

চট্টগ্রাম: বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে সরকার পরিকল্পিতভাবে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারি) বিকেল চারটায় নগরের কাজীর দেউড়ির নাসিমন ভবনের দলীয় কার্যালয়ে নগর বিএনপির অঙ্গসংগঠন ও সহযোগী সংগঠনের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন। অঙ্গসংগঠন ও সহযোগী সংগঠনের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, সারাদেশে ৩৫ লাখ বিএনপির নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়েছে। যখন যেভাবে পারছে হত্যা করছে, গুম করছে জুডিসিয়াল কিলিং করছে। কিন্তু এরপরও বিএনপি গণতন্ত্রের অধিকার আদায় থেকে দূরে থেকে যায়নি।

তিনি বলেন, পুরো দেশের জনগণ বিএনপির সাপোর্টার। বিএনপি ইজ দ্যা পার্টি অব পিউপল। যখনই বিএনপিকে ধ্বংস করতে চেয়েছে বিএনপি ফিনিক্স পাখির মতো অাবারও জেগে উঠেছে। কারণ জনগণ বিএনপিন সঙ্গে আছে।

খালেদা জিয়াকে পরিকল্পিত মৃত্যুর দিকে সরকার ঠেলে দিচ্ছে দাবি করে ফখরুল বলেন, বেগম খালেদা জিয়া খুবই অসুস্থ। বিছানা থেকে তিনি উঠতে পারেন না, দাঁড়াতেও পারেন না। ডায়াবেটিস বেড়ে গিয়েছে। তাকে সরকার পরিকল্পতভাবে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে।

তথ্যমন্ত্রী হাসান মাহমুদ চৌধুরীর দিকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় এই মন্ত্রীর জন্মও হয়নি। অথচ তিনি মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে কথা বলেন। বেফাঁস কথা বলেন।  

'বিএনপির কোনও দল নয়, বিএনপির জনসমর্থন নেই এরকম বলে বেড়ানো মন্ত্রীরা প্রতিদিনই বিএনপির কথা বলেন। আচ্ছা আমরা জনপ্রিয় না হলে, আপনারা প্রতিদিন আমাদের কথা বলেন কেন। '

বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহাবুবের রহমান শামীম বলেন, রাজপথে সব আন্দোলনে নগর বিএনপির অবদান রয়েছে। বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আন্দোলনের কর্মসূচিতে চট্টগ্রামের জনগণ ঝাপিয়ে পড়বেন। কেন্দ্রীয় নেতাদের আহ্বান জানাই, আপনারা আন্দোলনের কর্মসূচির ঘোষণা দেন। চট্টগ্রামের জন্য প্রস্তুত আছেন। এ সরকারের পতন ঘটাতে হবে আন্দোলনের মাধ্যমে। সরকার পতন না হওয়া পর্যন্ত বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি সম্ভব নয়।

বক্তব্য দেন কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহাবুবের রহমান শামীম, দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, বিএনপির সদস্য ব্যারিস্টার মীর হেলাল, নগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি ও দক্ষিণ জেলার আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান, নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২০
জেইই/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa