php glass

বৃক্ষরোপণে জীবনমান উন্নত হবে: এমএ মালেক

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বক্তব্য দেন দৈনিক আজাদী সম্পাদক এমএ মালেক

walton

চট্টগ্রাম: জীবনের প্রয়োজনে বেশি বেশি গাছ লাগানোর আহ্বান জানিয়ে দৈনিক আজাদী সম্পাদক এমএ মালেক বলেছেন, দেশকে কীভাবে আরও সবুজ ও প্রকৃতিবান্ধব করা যায় সেই বিষয়ে ভাববার সময় এসেছে। দেশে যদি বৃক্ষরোপণের মাধ্যমে সবুজায়ন করা যায় তাহলে জনসাধারণের জীবনমান আরও উন্নত হবে।

রোববার (২২ ডিসেম্বর) বিকেলে নগরের আউটার স্টেডিয়ামে চসিক আয়োজিত  মাসব্যাপী সবুজ মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন সবুজ মেলা ২০১৯ ব্যবস্থাপনা কমিটির আহ্বায়ক, নগর পরিকল্পনা ও উন্নয়ন স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান কাউন্সিলর মো. সাইফুদ্দিন খালেদ সাইফু, চসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহা, তিলোত্তমা চট্টগ্রামের নির্বাহী সাহেলা আবেদীন, চসিকের প্রধান নগর পরিকল্পনাবিদ একেএম রেজাউল করিম।

মেয়র বলেন, সবুজায়ন কর্মসূচির আওতায় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন ছাদ বাগান কর্মসূচি, রাস্তার পাশে গাছের চারা রোপণ, বনায়নসহ নানামুখী কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। এ লক্ষ্যে নগরের পতিত জায়গায়, বাড়ির ছাদে বনজ, ফলদ, ওষুধিসহ বিভিন্ন জাতের গাছের চারা রোপণ করার জন্য নগরবাসীকে বিভিন্ন ভাবে  প্রণোদনা দেওয়া হচ্ছে। বৃক্ষ মানুষের জীবন বাঁচায়। বৃক্ষ ছাড়া মানুষের বেঁচে থাকার কোনো উপায় নেই। বৃক্ষ যেমন প্রাকৃতিক সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে তেমনি আবার পরিবেশ সংরক্ষণেরও সজীব প্রতীক। তাই চট্টগ্রামকে গ্রিন, ক্লিন, বাসযোগ্য ও পরিবেশবান্ধব  করার লক্ষ্যে প্রতি বছর  মেলার আয়োজন করে চসিক। 

মেয়র বাড়ির আঙিনা, করপোরেট অফিস, সরকারি-বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, মিল-ফ্যাক্টরির উন্মুক্ত ও পরিত্যক্ত জায়গায় ব্যক্তি উদ্যোগে ছাদ বাগান, ফুলের বাগান, সবুজায়নকারীদের সৌন্দর্যবর্ধনে উদ্বুদ্ধ করার জন্য এ বছর থেকে জুরি বোর্ডের মাধ্যমে ‘মেয়র অ্যাওয়ার্ড’ দেওয়ার ঘোষণা দেন।

মাসব্যাপী সবুজ মেলায় প্রায় ১০ লাখ চারাগাছ বিক্রি হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

মেলায় অংশগ্রহণকারী নার্সারির মধ্যে সবুজ বিপ্লব নার্সারি প্রথম, পুষ্প নার্সারি ও বাহাদুর নার্সারি যৌথভাবে দ্বিতীয়, নিউ কসমো নার্সারি ও বনসাই ড্রিমস যৌথভাবে তৃতীয় স্থান লাভ করে।

বাংলাদেশ সময়: ২৩০০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯
এআর/টিসি

মাঠে সতীর্থকে মেরে বড় শাস্তির অপেক্ষায় শাহাদাত
দীপন হত্যা মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ পিছিয়ে ১ ডিসেম্বর
নতুন বিয়ে, জরুরি ঘর আর অফিস ব্যালেন্স 
বন্দুকযুদ্ধে ‘আইজ্জা ডাকাত’ নিহত
‘রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানো যাবে, কিন্তু রাতারাতি সম্ভব নয়’


২ ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে পেঁয়াজ কিনলেন সিসিক মেয়র
শিক্ষার্থীদের চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের উপযোগী করতে হবে   
দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধিতে বরিশালে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ
সরকারের প্রতি দেশের মানুষের সমর্থন নেই: মিনু
খ্যাতির কারণে প্রেমিকা হারাচ্ছেন জনি ডেপ!