php glass

পাঁচ হাজার শ্রমিক ২৭২টি গাড়িতে কোরবানির বর্জ্য সরাবে

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

চট্টগ্রামে ৭ লাখ ২০ হাজার পশু কোরবানি হতে পারে বলে জানিয়েছে প্রাণিসম্পদ বিভাগ

walton

চট্টগ্রাম: ঈদুল আজহার দিন বিকেল পাঁচটার মধ্যে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম নগর চট্টগ্রামের কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে সিটি করপোরেশন।

এবার চারটি জোনে ৪১টি ওয়ার্ডকে ভাগ করে ৫ হাজার শ্রমিক, ২৭২টি গাড়ি কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ, জবাইয়ের স্থানে ব্লিচিং পাউডার ছিটানোর পরিকল্পনা চূড়ান্ত করা হয়েছে। দামপাড়ায় চসিকের পরিবহন পুলে একটি নিয়ন্ত্রণ কক্ষ চালু করা হবে।

সরু সড়ক ও গলিতে বর্জ্য অপসারণের জন্য টমটম, হুইল ভেরু, সুপারভাইজারদের সিএনজি অটোরিকশার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

সিটি করপোরেশনের সম্মেলন কক্ষে বৃহস্পতিবার (৮ আগস্ট) বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির প্রস্তুতি সভায় মেয়র এসব পরিকল্পনার কথা জানান।

কমিটির সভাপতি কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমনের সভাপতিত্বে সভায় চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহা, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মফিদুল আলম, মেয়রের একান্ত সচিব মো. আবুল হাশেম, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ সফিকুল মান্নান সিদ্দিকী যিশু, উপ প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মোরশেদুল আলম চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।  

কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণে নাগরিকদের সহযোগিতা চেয়ে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, বিগত বছরগুলোর অভিজ্ঞতার আলোকে দ্রুততম সময়ের মধ্যে কোরবানির বর্জ্য অপসারণ করতে হবে। এর জন্য কোরবানিদাতাসহ জনসাধারণের সর্বাত্মক সহযোগিতা ও সচেতনতা দরকার। এ লক্ষ্যে শুক্রবার (৯ আগস্ট) জুমার নামাজের খুতবায় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বিষয়ে মুসল্লিদের আহ্বান, লিফলেট বিতরণের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত কমিটির সভায় বক্তব্য দেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনতিনি এবারও বর্জ্য অপসারণে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন সাফল্য ধরে রাখতে পারলে পরিচ্ছন্ন বিভাগের দায়িত্বরত শ্রমিক-সেবকদের জন্য পুরস্কারের ব্যবস্থা থাকবে বলে জানান।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, এবার চট্টগ্রামে ৭ হাজার ৫৭টি খামারে ৬ লাখ ১০ হাজার ২১৯টি পশু রয়েছে। গত ৩১ জুলাইয়ের হিসাব অনুযায়ী চট্টগ্রামে ৪ লাখ ১৪ হাজার ৩৮৭টি গরু, ৪২ হাজার ২৮৪টি মহিষ, ১ লাখ ৪৭ হাজার ৫৪৮টি ছাগল ও ভেড়া রয়েছে।

জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ রেয়াজুল হক বাংলানিউজকে জানান, চট্টগ্রামে ২০১৮ সালে ৬ লাখ ৫৫ হাজার ৪১৫টি কোরবানি হয়েছে। এর মধ্যে ৩ হাজার মহিষসহ ৪ হাজার ৩৮ হাজার ৪২৪টি গবাদিপশু, ১ লাখ ৪২ হাজার ৮১৯টি ছাগল ভেড়া কোরবানি হয়েছে। এবার চট্টগ্রামে ৭ লাখ ২০ হাজার সম্ভাব্য কোরবানি পশুর প্রয়োজন। এর মধ্যে গরু মহিষের চাহিদা ৪ লাখ ৬২ হাজার ৬১৭টি, ছাগল ভেড়া ১ লাখ ৪৭ হাজার ৫৪৮টি।

বাংলাদেশ সময়: ২১২১ ঘণ্টা, আগস্ট ০৮, ২০১৯
এআর/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: চট্টগ্রাম
ksrm
তৃতীয় ড্রিমলাইনার 'গাঙচিল' উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
বাগেরহাটে সপ্তাহব্যাপী বৃক্ষমেলা শুরু
প্রাচীন স্থাপত্যের নিদর্শন কিশোরগঞ্জের কুতুব মসজিদ
বৃষ্টির কবলে পড়েছে কলম্বো টেস্ট 
আফগানিস্তান ইস্যুতে ভারতের কোনো ভূমিকা নেই: ট্রাম্প


হৃদরোগ এড়াতে লাইফস্টাইলে যোগ-বিয়োগ
ঠাকুরগাঁওয়ে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ৩
সংশয় নিয়ে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের অপেক্ষা
বিএনপি’র রাজনীতি নিষিদ্ধ করার দাবি
সালাহদের ছেড়ে তুরস্কে ড্যানিয়েল স্টারিজ