php glass

জুলাইয়ে চালু হচ্ছে পিডিবি’র খুলশী ও বাকলিয়া সাবস্টেশন  

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

প্রতীকী ছবি

walton

চট্টগ্রাম: নতুন ২৫টি সাবস্টেশনের (উপকেন্দ্র) মধ্যে ইতোমধ্যে চালু হয়েছে সন্দ্বীপ সাবস্টেশন। জুলাই মাসে চালু হচ্ছে খুলশী ও বাকলিয়া সাবস্টেশন। এভাবে পর্যায়ক্রমে ২০৩০ সালের মধ্যে সবকটি সাবস্টেশনের কার্যক্রম চালু হবে।

অগ্নিদুর্ঘটনাসহ বিভিন্ন দুর্ঘটনা রুখতে প্রত্যেকটি ৩৩ কেভি সক্ষমতার সাবস্টেশনকে যুক্ত করতে নতুন করে ৮৩ কিলোমিটার আন্ডারগ্রাউন্ড ক্যাবল বসাবে পিডিবি। এছাড়া রিয়াজ উদ্দিন বাজার ও খাতুনগঞ্জে দুটি ইনডোর সাবস্টেশন নির্মাণ করা হবে বলে জানিয়েছেন পিডিবি দক্ষিণাঞ্চলের প্রধান প্রকৌশলী প্রবীর কুমার সেন।

তিনি বাংলানিউজকে বলেন, প্রত্যেকটি সাবস্টেশন দুটি আলাদা উৎসের সঙ্গে যুক্ত থাকবে। কোনো কারণে একটি সাবস্টেশনে ত্রুটি দেখা দিলে অন্য উৎস থেকে তাৎক্ষণিক বিদ্যুৎ সরবরাহ দেওয়া যাবে।

তিনি বলেন, চট্টগ্রামে বিদ্যুতের চাহিদা রয়েছে ১৫শ’ থেকে ১৬শ’ মেগাওয়াট। চট্টগ্রামে ১৬শ’ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের সক্ষমতা রয়েছে। ১২শ’ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ প্রতিদিন উৎপাদন হয়। চাহিদাও থাকে ওই পরিমাণ। তাই চট্টগ্রামে এখন বিদ্যুৎ বিভ্রাট নেই বললেই চলে।

পিডিবি সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ১১শ’ কোটি টাকা ব্যয়ে চট্টগ্রাম জোনের বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থার সিস্টেম উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এ প্রকল্পের আওতায় রয়েছে- সীতাকুণ্ড, সন্দ্বীপ, হাটহাজারী, মদুনাঘাট, কালুরঘাট, খুলশী, পাহাড়তলী, ষোলশহর, আগ্রাবাদ, হালিশহর, বাকলিয়া ও পটিয়া এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থার উন্নয়ন। এরইমধ্যে এ প্রকল্পের আওতায় সাবমেরিন ক্যাবলের মাধ্যমে সন্দ্বীপে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হয়েছে। একই প্রকল্পে ১৫টি নতুন সাবস্টেশন বসানো হয়েছে।

প্রথম প্রকল্পের ধারাবাহিকতায় ২ হাজার ৫৫২ কোটি টাকা ব্যয়ে ‘চট্টগ্রাম জোনে বিদ্যুৎ বিতরণ ব্যবস্থার উন্নয়ন প্রকল্প-২’ নামে আরেকটি প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে পিডিবি। এ প্রকল্পটির কার্যক্রম শুরু করতে জুলাই মাসে দরপত্র আহ্বান করা হবে বলে জানা গেছে।

২০৩০ সালের মধ্যে চট্টগ্রাম বিদ্যুৎ বিভাগকে উপযোগী করে তোলার জন্য নতুন প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি)। ২৫টি সাবস্টেশনের মধ্যে রয়েছে- হাটহাজারী, বাড়বকুণ্ড, ফৌজদারহাট, পাহাড়তলী, রামপুর, আগ্রাবাদ, খুলশী, কালুরঘাট, ষোলশহর, স্টেডিয়াম, পাথরঘাটা, মাদারবাড়ি, হালিশহর বিক্রয়-বিতরণ বিভাগ। এছাড়া পটিয়া ও কক্সবাজারে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হচ্ছে।

এরমধ্যে হাটহাজারীর বড়দিঘীর পাড়, সীতাকুণ্ডের ফকিরহাট, পাহাড়তলী, রামপুর, টাইগারপাস, নাসিরাবাদ, শেরশাহ, চান্দগাঁও, মুরাদপুর, স্টেডিয়াম, চকবাজার, সদরঘাট, কোরবানিগঞ্জ (খাতুনগঞ্জ), রিয়াজউদ্দিন বাজার ও পতেঙ্গায় হবে জিইএম প্লান্ট।

এসব সাবস্টেশনের জন্য ৮৩ কিলোমিটার আন্ডারগ্রাউন্ড ক্যাবল বসানো হবে বলে জানান পিডিবির কর্মকর্তারা।

বাংলাদেশ সময়: ১১০০ ঘণ্টা, জুন ১০, ২০১৯
জেইউ/এসি/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: চট্টগ্রাম
উত্তরবঙ্গসহ সারাদেশে বজ্রসহ বৃষ্টির সম্ভাবনা
স্বাগতিক ইংল্যান্ডের মুখোমুখি শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়া
বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে বিরোধী দলীয় নেতার অভিনন্দন
খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে কর্মসূচি দেবে ২০ দল
ভারত-পাকিস্তানের বিপক্ষে সেরাটাই খেলতে চান মাশরাফি


মাদক মামলায় মিয়ানমার নাগরিকের কারাদণ্ড
একাধিক রেকর্ড গড়ার ম্যাচে সাকিবই ম্যাচ সেরা
সাকিবময় জয়ে পরিকল্পনামন্ত্রীর অভিনন্দন
টুইটারে প্রশংসায় ভাসছেন সাকিব
৮ শতাংশ কর প্রত্যাহার চায় বিসিএমএ