ঢাকা, শনিবার, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৮ আগস্ট ২০২০, ১৭ জিলহজ ১৪৪১

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

অবৈধ স্থাপনা গুঁড়িয়ে কোটি টাকার জমি উদ্ধার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২১৭ ঘণ্টা, মার্চ ২১, ২০১৯
অবৈধ স্থাপনা গুঁড়িয়ে কোটি টাকার জমি উদ্ধার অভিযানে নেতৃত্ব দেন মো. রুহুল আমিন। ছবি: বাংলানিউজ

চট্টগ্রাম: হাটহাজারীর মেখল ইউনিয়ন এলাকায় সড়ক ও জনপথ বিভাগের জায়গা দখল করে গড়ে তোলা ২৫টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে উপজেলা প্রশাসন।

বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) দুপুরে চট্টগ্রাম-রাঙামাটি সড়কের ইছাপুর বাজার সংলগ্ন এলাকায় পরিচালিত এ উচ্ছেদ অভিযানে নেতৃত্ব দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. রুহুল আমিন।

ইউএনও মো. রুহুল আমিন বাংলানিউজকে জানান, ইছাপুর বাজার সংলগ্ন চট্টগ্রাম-রাঙামাটি সড়কের দুই পাশে সড়ক ও জনপথ বিভাগের জমি দখল করে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করে দখলদাররা।

সেখানে অভিযান চালিয়ে ২৫টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের মাধ্যমে প্রায় ১ হাজার বর্গফুট জমি দখলমুক্ত করা হয়। যার আনুমানিক বাজার মূল্য এক কোটি টাকা।

তিনি বলেন, সড়কটি প্রায় ২০ ফুট চওড়া ছিলো। কিন্তু দখলদারদের অবৈধ দখলদারিত্বের কারণে তা ১২ ফুটে নেমে আসে। ফলে এ এলাকায় যানজট নিত্য ঘটনায় পরিণত হয়। বৃহস্পতিবার উচ্ছেদ অভিযান চালিয়ে সড়কটি আবার ২০ ফুট চওড়া করে দেওয়া হয়েছে। আশা করি, এ এলাকার যানজট এখন শূন্যের কোটায় নেমে আসবে।

অভিযানে মেখল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন চৌধুরীসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সওজ ও পুলিশের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অভিযানে নেতৃত্ব দেন মো. রুহুল আমিন।  ছবি: বাংলানিউজহালদায় ১০ হাজার মিটার জাল জব্দ:

এদিকে প্রাকৃতিক মৎস প্রজনন কেন্দ্র হালদা নদীতে অভিযান চালিয়ে ১০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করেছে উপজেলা প্রশাসন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. রুহুল আমিন এ অভিযানে নেতৃত্ব দেন।

তিনি বাংলানিউজকে জানান, হালদা নদী রক্ষা কমিটি ও এনজিও সংস্থা আইডিএফের সহযোগিতায় অভিযান চালিয়ে এসব কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়। ডিম পাড়ার মৌসুম যত ঘনিয়ে আসছে জালের পরিমান ততই বাড়ছে। তাই এ ধরনের অভিযান অব্যাহত রাখা হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯১৫ ঘণ্টা, মার্চ ২১, ২০১৯
এমআর/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa