চার দিনে ৭ একর ভূমি দখলমুক্ত কর্ণফুলীতে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কর্ণফুলীর উত্তর পাড়ে উচ্ছেদ অভিযান। ফাইল ছবি

চট্টগ্রাম: কর্ণফুলীর উত্তর পাড়ে উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত রেখেছে প্রশাসন। উচ্ছেদের চতুর্থ দিন বৃহস্পতিবার (৭ ফেব্রুয়ারি) পর্যন্ত মোট ১৭০টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ হলো কর্ণফুলীর তীরে। এতে দখলমুক্ত করা হয়েছে ৭ একর ভূমি।

সকাল ৯টা থেকে হাবিব গলি এলাকা থেকে অভিযান শুরু হয়। বিকেল ৫টা পর্যন্ত পরিচালিত অভিযান আনু মাঝিরঘাট এলাকায় গিয়ে শেষ হয়।

উচ্ছেদ অভিযানে নেতৃত্ব দেন পতেঙ্গা সার্কেলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) তাহমিলুর রহমান। তাকে সহায়তা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তৌহিদুল ইসলাম।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) তাহমিলুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, উচ্ছেদ অভিযানে চার দিনে মোট ১৭০টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। এতে ৭ একর ভূমি দখলমুক্ত করা হয়েছে।

ম্যাজিস্ট্রেট মো. তৌহিদুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, হাই কোর্টের রায় অনুযায়ী অভিযান চালানো হচ্ছে। যত দিন সব স্থাপনা উচ্ছেদ না হবে ততদিন অভিযান চলবে। সদরঘাট থেকে বারিক বিল্ডিং পর্যন্ত ২০০ অবৈধ স্থাপনা আছে। এসব স্থাপনা উচ্ছেদ করে ১০ একর জমি উদ্ধার হবে। কে বড়, কে ছোট-সেটি বিবেচ্য নয়। সব অবৈধ স্থাপনেই উচ্ছেদ করা হবে।

উচ্ছেদ অভিযানে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের সিনিয়র সহকারী কমিশনার নোবেল চাকমা, সদরঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নেজাম উদ্দিনসহ পুলিশ, র‌্যাব, ফায়ার সার্ভিসের বিপুলসংখ্যক সদস্য অংশ নেন। ১০০ শ্রমিক উচ্ছেদ অভিযানে অবৈধ স্থাপনা ভাঙার কাজ করেন।

বাংলাদেশ সময়: ২২৫৩ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৭, ২০১৯
এসকে/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: চট্টগ্রাম
বিনা টিকিটে রেল ভ্রমণ করায় ৫৬৫ যাত্রীর জরিমানা
নেত্রকোণায় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার
কথার ঝুড়ি নিয়ে বাড়ি ফেরা
চকবাজার ট্র্যাজেডিতে ভবনগুলো ‘ব্যবহার অনুপযোগী’
৭ তলার ছাদেও বিস্ফোরকের চিহ্ন!


ভিয়েতনাম মিশনে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন 
ময়মনসিংহে ডিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদকবিক্রেতা নিহত
চকবাজারে এখনও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যদের সতর্ক অবস্থান
টিভি ব্যক্তিত্ব স্টিভ আরউইনের জন্ম
চকবাজার ট্র্যাজেডি তদন্তে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কমিটি