ভোটের টানে মাঝরাতেও ঘরমুখো মানুষের ঢল

মিজানুর রহমান, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ভোটের টানে মাঝরাতেও বাস কাউন্টারে ঘরমুখো মানুষের ঢল। ছবি: উজ্জ্বল ধর

চট্টগ্রাম: ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ। বাঙালির কাছে ভোট মানেই উৎসব। সেই উৎসবের সঙ্গী হতে ভোটের টানে মাঝরাতেও ঘরমুখো মানুষের উপচে পড়া ভিড় নগরের বাস কাউন্টারগুলোতে।

বৃহস্পতিবার (২৭ ডিসেম্বর) দিনগত রাত ১২টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত নগরের সিনেমা প্যালেস, স্টেশন রোড ও অলঙ্কার মোড় বাস কাউন্টার ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

পরিবহন সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, সাধারণত দুই ঈদ ছাড়া বাস কাউন্টারগুলোতে তেমন ভিড় না থাকলেও এবার নির্বাচন উপলক্ষে মানুষের ঢল নেমেছে। নিজ নিজ এলাকায় গিয়ে পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত ঘরমুখো মানুষ ভিড় করছেন কাউন্টারে কাউন্টারে।

ভোটের টানে মাঝরাতেও বাস কাউন্টারে ঘরমুখো মানুষের ঢল। ছবি: উজ্জ্বল ধরএস আলম কাউন্টারের কর্মকর্তা জহির উদ্দিন বাংলানিউজকে জানান, সাধারণত সিনেমা প্যালেস থেকে রাতে এস আলম পরিবহনের ৪টি বাস কক্সবাজার ও টেকনাফের উদ্দেশে ছেড়ে যায়। তবে নির্বাচন উপলক্ষে ঘরমুখো মানুষের চাপ থাকায় এখন রাতেই ৮টি বাস রেখেছি আমরা।

সৌদিয়া কাউন্টারের কর্মকর্তা আবুল কাশেম বাংলানিউজকে জানান, নির্বাচন উপলক্ষে যাত্রীর চাপ যে পরিমাণ বাড়বে বলে ধারনা করেছিলাম, তার চেয়েও বেশি। তাই যাত্রী সামলাতে একটু হিমশিম খেতে হচ্ছে। তারপরেও চেষ্টা করছি সবাইকে টিকিট দেওয়ার। এ জন্য গাড়ির সংখ্যাও বাড়ানো হয়েছে।

দুই ছেলে ও স্ত্রীকে নিয়ে বাড়ি ফেরার অপেক্ষায় ছিলেন ব্যাংক কর্মকর্তা আব্দুর রহিম। তিনি বাংলানিউজকে জানান, ভোট মানেই উৎসব। জাতীয় নির্বাচনের ভোট হলে তো কথায় নেই। তাই ভোট উৎসবের সঙ্গী হতে বাড়ি যাচ্ছি।

টেকনাফের জালিয়াপালং এলাকার বাসিন্দা আব্দুর রহিম আরও জানান, ভোট গ্রহণ অবাধ ও সুষ্ঠু হোক এটাই চাই। কোনো ধরনের ঝামেলা ছাড়াই নিজের ভোটটা নিজে দিতে চাই। আশা করি উৎসবমুখর পরিবেশেই ভোট দিতে পারবো। এ জন্য ঝামেলা এড়াতে একদিন আগেই বাড়ি ফিরছি।

তবে তার পাশে দাঁড়ানো টেরিবাজারের কাপড়ের ব্যবসায়ী জসিম উদ্দিন বাংলানিউজকে জানান, কখনও কখনও একটি ভোটও একজন প্রার্থীর জন্য গুরুত্বপূর্ণ হতে পারে। রাজনৈতিক সচেতন মানুষ হিসেবে পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে চাই। যিনি মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত এলাকা গড়তে কাজ করবেন তাকেই ভোট দেবো। এ কারণে মাঝরাতেই তীব্র শীত উপেক্ষা করে ভোট দিতে বাড়ি যাচ্ছি।

বাংলাদেশ সময়: ০৩০০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৮, ২০১৮
এমআর/টিসি

ভাষাশহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে খুলনায় মানুষের ঢল
ভাষাশহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
চকবাজারে বহুতল ভবনে ভয়াবহ আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৩০ ইউনিট
নড়াইলে লাখো প্রদ্বীপ প্রজ্জ্বলনের প্রস্তুতি সম্পন্ন
‘রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের পরিবেশ তৈরিতে ব্যর্থ মিয়ানমার’


মেহেরপুরে আইনজীবীদের জেলা জর্জের আদালত বর্জন
ঈশ্বরদীতে ১৪ তলা থেকে পড়ে ২ শ্রমিক আহত
ভারত-পাকিস্তান দ্বন্দ্ব মেটাতে মধ্যস্থতায় আগ্রহী ইউএন
নেত্রকোণায় ফাল্গুনের দেয়াল পত্রিকা উৎসব
যখন থেকে আলিয়ার আসল বন্ধু বাবা মহেশ ভাট