নজিবুল বশরকে সমর্থন দিয়ে সরে যাচ্ছেন পেয়ারু!

সরওয়ার কামাল, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

নজিবুল বশর মাইজভাণ্ডারী ও এটিএম পেয়ারুল ইসলাম

চট্টগ্রাম: শেষ পর্যন্ত মহাজোটের প্রার্থী ও তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান নজিবুল বশর মাইজভাণ্ডারীকে সমর্থন দিয়ে সরে যাচ্ছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী এটিএম পেয়ারুল ইসলাম।

শুক্রবার (২১ ডিসেম্বর) বিকেলে ফটিকছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়ে সমর্থন দেবেন এটিএম পেয়ারুল ইসলাম।

আওয়ামী লীগ দলীয় ও পেয়ারুর ঘনিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

শুক্রবার বিকেল ৩টায় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলামের উপস্থিতিতে ফটিকছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে এ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হবে।

বর্ধিত সভার বিষয়টি বাংলানিউজকে জানান ফটিকছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন মুহুরী।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম-২ (ফটিকছড়ি) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ নেতা এটিএম পেয়ারুল ইসলাম। কিন্তু নৌকা প্রতীকে মহাজোটের মনোনয়ন পান তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান নজিবুল বশর মাইজভাণ্ডারী। দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দেন এটিএম পেয়ারুল ইসলাম। যাচাই-বাছাইয়ে টিকে গিয়ে মনোনয়ন প্রত্যাহারে দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের অনুরোধ পাশ কাটিয়ে মাঠে রয়ে যান এটিএম পেয়ারুল ইসলাম। ২০০৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও এ আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে সংসদ সদস্য প্রার্থী ছিলেন তিনি।

১০ ডিসেম্বর বিকেলে নানুপুর বাজারে এটিএম পেয়ারুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন মুহুরীসহ আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের উপর মহাজোট প্রার্থী নজিবুল বশর মাইজভাণ্ডারীর ‘ইন্ধনে’ হামলার অভিযোগ উঠে। এ ঘটনায় নজিবুল বশর মাইজভাণ্ডারীকে দায়ী করে ১১ ডিসেম্বর উপজেলা আওয়ামী লীগ সংবাদ সম্মেলনও করে।

সংবাদ সম্মেলনে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সভাপতি মুজিবুল হক ও সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন মুহুরী স্বতন্ত্র প্রার্থী এটিএম পেয়ারুল ইসলামের পক্ষে কাজ করার ঘোষণাও দেন।

শেষ পর্যন্ত কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের অনুরোধে সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতারা। সেই নজিবুল বশর মাইজভাণ্ডারীকে সমর্থন দিয়ে সরে যাচ্ছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী এটিএম পেয়ারুল ইসলাম।

কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ ফটিকছড়ি আসনে সৃষ্ট সমস্যা নিরসণে দায়িত্ব দেয় আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলামকে।

বৃহস্পতিবার (২০ ডিসেম্বর) রাতে আমিনুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, ‘ফটিকছড়ি আসনে সৃষ্ট সংকট নিরসণে শুক্রবার বর্ধিত সভা ডেকেছে উপজেলা আওয়ামী লীগ। সভায় আমিও উপস্থিত থাকবো। সভায় একটা সিদ্ধান্ত জানা যাবে।’

আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘এটিএম পেয়ারুল ইসলাম আওয়ামী লীগের একজন একনিষ্ঠ কর্মী। দলের দুঃসময়ে কাজ করে গেছেন। সারাজীবন ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন। তবে দলের সভানেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা যে সিদ্ধান্ত দিয়েছেন তিনি তা মেনে নেবেন।’

বাংলাদেশ সময়: ২৩২৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২০, ২০১৮
এসকে/টিসি

নিউজিল্যান্ডকে ২২৭ রানের টার্গেট দিলো বাংলাদেশ
নওগাঁয় ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত
ফেসবুকে ভুয়া আইডি, আইনি ব্যবস্থা নেবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
কলকাতায় শুরু হলো বাংলাদেশ চলচিত্র উৎসব
দেড়শ’ পেরুলো বাংলাদেশ, মিঠুনের অর্ধ-শতক


স্ত্রীর মরদেহ পাঠালেন শ্বশুরবাড়ি
ইতালিয়ান ফুটবলে জুন্টোসের জয়
প্রাথমিক বিপর্যয় সামলে সাবধানী বাংলাদেশ
ছুটির দিনে ২৭২টি নতুন বই
চুরি যাওয়া গরুর সন্ধান দিল কুকুর!