বৃহত্তর চট্টগ্রামে ভোটযুদ্ধের প্রস্তুতি

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

চট্টগ্রাম: সময় আর মাত্র ২০দিন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে বৃহত্তর চট্টগ্রামের ২৩টি সংসদীয় আসনে চলছে ভোট যুদ্ধের প্রস্তুতি। প্রতীক নিয়ে প্রার্থীরা নামছেন মাঠে।

নানান নাটকীয়তার পর দলীয় মনোনয়ন নিয়েও স্বস্তিতে নেই প্রার্থীরা। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিক দল বিএনপি, কল্যাণ পার্টি, এলডিপি ও জামায়াতে ইসলামীর প্রার্থীদের নিয়ে আছে অসন্তোষ। নিবন্ধন বাতিল হওয়ায় বিএনপির ব্যানারে এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছে জামায়াত। আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থীর সঙ্গে মহাজোট প্রার্থীও রয়েছে, চলছে ফটিকছড়ির বিদ্রোহী প্রার্থী এটিএম পেয়ারুল ইসলামের মান ভাঙানোর চেষ্টা।

চট্টগ্রাম-১ (মিরসরাই) আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির নুরুল আমিন। চট্টগ্রাম-২(ফটিকছড়ি) আসনে মহাজোটের প্রার্থী তরিকত ফেডারেশনের সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভাণ্ডারীর প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মো. আজিম উল্লাহ বাহার।

দল থেকে মনোনয়ন না দেওয়ায় ফটিকছড়িতে আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী হন এটিএম পেয়ারুল ইসলাম। মাঠে আছেন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের প্রার্থী সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমেদ আল হাসানী আল মাইজভাণ্ডারী। তবে শেষ পর্যন্ত তারাও মহাজোট প্রার্থীকে সমর্থন দেবেন বলে জানা গেছে।

চট্টগ্রাম–৩ (সন্দ্বীপ) আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মাহফুজুর রহমান মিতার প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মোস্তফা কামাল পাশা। চট্টগ্রাম–৪ (সীতাকুণ্ড) আসনে আওয়ামী লীগের দিদারুল আলমের প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির ইসহাক কাদের চৌধুরী।

চট্টগ্রাম–৫ (হাটহাজারী) আসনে মহাজোটের প্রার্থী জাতীয় পার্টির আনিসুল ইসলাম মাহমুদের প্রতিদ্বন্দ্বী ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী কল্যাণ পার্টির সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম।

চট্টগ্রাম–৬ (রাউজান) আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীর প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির জসিম উদ্দিন সিকদার। চট্টগ্রাম-৭ (রাঙ্গুনীয়া) আসনে আওয়ামী লীগের ড.হাছান মাহমুদের প্রতিদ্বন্দ্বী ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী এলডিপির নুরুল আলম।

চট্টগ্রাম-৮ (বোয়ালখালী) আসনে মহাজোটের প্রার্থী জাসদ-আম্বিয়া পার্টির মইন উদ্দীন খান বাদলের প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির আবু সুফিয়ান। এ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুর ছোট ভাই হাসান মাহমুদ চৌধুরী।চট্টগ্রাম-৯ (কোতয়ালী) আসনে আওয়ামী লীগের ব্যারিস্টার মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এর প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির ডা. শাহাদাত হোসেন।

চট্টগ্রাম–১০ (ডবলমুরিং) আসনে আওয়ামী লীগের ডা. আফছারুল আমীনের প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী আব্দুল্লাহ আল নোমান। চট্টগ্রাম–১১ (বন্দর) আসনে আওয়ামী লীগের এম আবদুল লতিফের প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

চট্টগ্রাম–১২ (পটিয়া) আসনে আওয়ামী লীগের সামশুল হক চৌধুরীর প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী মো. এনামুল হক। চট্টগ্রাম-১৩ (আনোয়ারা) আসনে আওয়ামী লীগের সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ এর প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির সরওয়ার জামাল নিজাম।  

চট্টগ্রাম–১৪ (চন্দনাইশ) আসনে আওয়ামী লীগের নজরুল ইসলাম চৌধুরীর প্রতিদ্বন্দ্বী ঐক্যফ্রন্টের শরিক এলডিপির কর্নেল (অব.) অলি আহমদ। চট্টগ্রাম–১৫ (লোহাগাড়া) আসনে আওয়ামী লীগের আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভীর প্রতিদ্বন্দ্বী জামায়াত নেতা আ ন ম শামসুল ইসলাম।

চট্টগ্রাম–১৬ (বাঁশখালী) আসনে আওয়ামী লীগের মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরীর প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী জাফরুল ইসলাম চৌধুরী। তবে বাঁশখালী উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা জামায়াতের আমির জহিরুল ইসলাম এ আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছেন।

কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনে আওয়ামী লীগের জাফর আলমের প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী সাবেক যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী সালাহ উদ্দিন আহমদের স্ত্রী হাসিনা আহমেদ। এই আসনে মহাজোটের শরিক জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোহাম্মদ ইলিয়াছও আছেন নির্বাচনী মাঠে।

কক্সবাজার-২ (কুতুবদিয়া–মহেশখালী) আসনে আওয়ামী লীগের আশেক উল্লাহ রফিকের প্রতিদ্বন্দ্বী জামায়াতের এ এইচ হামিদুর রহমান আযাদ। এই জামায়াত প্রার্থীর বিরুদ্ধেই এবার লড়বেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী।

কক্সবাজার-৩ (সদর ও রামু) আসনে আওয়ামী লীগের সাইমুম সরোয়ার কমলের প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির লুৎফুর রহমান কাজল। কক্সবাজার-৪ (উখিয়া-টেকনাফ) আসনে আওয়ামী লীগের শাহীন আক্তার চৌধুরীর প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির শাহজাহান চৌধুরী।

পার্বত্য চট্টগ্রামের খাগড়াছড়ি আসনে আওয়ামী লীগের কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরার প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মো. শহিদুল ইসলাম ভূইয়া। এ আসনে নির্বাচন করবেন জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী মো. সোলায়মান আলম শেঠ।

রাঙামাটি আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী দীপংকর তালুকদারের প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মণি স্বপন দেওয়ান। তবে জেএসএস সমর্থিত প্রার্থী ঊষাতন তালুকদার ও জাতীয় পার্টির (এরশাদ) প্রার্থী অ্যাডভোকেট পারভেজ তালুকদারও আছেন মাঠে।

বান্দরবান আসনে আওয়ামী লীগের বীর বাহাদুর উসৈসিং এর প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির সাচিং প্রু জেরী।

বাংলাদেশ সময়: ১৪০০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১০, ২০১৮
টিসি

ভাষার বইয়ের প্রকাশ কম, তা থেকেই জানতে হবে ইতিহাস
নারায়ণগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি আটক
একুশের প্রথম প্রহরে সালাম নগরে বিনম্র শ্রদ্ধা
চিকিৎসা দেওয়া-নেওয়া কোনোটিই হলো না দুই বন্ধুর
যদি একটু মাংসের ফোঁটাও থাকে, আমার বাবারে এনে দেন


চকবাজারের অগ্নিকাণ্ডে বিএনপিসহ বিভিন্ন দলের শোক
বাংলা যায়নি নিভে | আবু আফজাল সালেহ
মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা, শিক্ষক আটক
স্বপ্ন পুড়লো ঢাবি ছাত্রের, বাবাকে খুঁজছে জমজ সন্তান
বাগেরহাট জাদুঘরে শতাধিক প্রত্নসামগ্রী হস্তান্তর