ইডিইউতে জমজমাট অ্যাডমিশন ফেয়ার

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

অ্যাডমিশন ফেয়ার উদ্বোধন করেন ইডিইউর ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান

চট্টগ্রাম: আক্ষরিক অর্থেই যেন মেলায় পরিণত হল ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি আয়োজিত অ্যাডমিশন ফেয়ার। ইডিইউর স্প্রিং সেমিস্টারে ভর্তিচ্ছুদের ভিড়ে কানায় কানায় পূর্ণ ছিলো পুরো মেলা প্রাঙ্গণ।

শনিবার (৮ ডিসেম্বর) ইডিইউ ক্যাম্পাসে দিনব্যাপী এ অ্যাডমিশন ফেয়ার অনুষ্ঠিত হয়।

সকাল ১০টায় উদ্বোধনের পর থেকে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠে অ্যাডমিশন ফেয়ার। কেউ এসেছেন বন্ধু নিয়ে, কেউ বড় ভাই-বোন কিংবা বাবা-মা’কে সঙ্গে নিয়ে। কেউবা চলে এসেছেন একাই।

মেলায় ঘুরতে ঘুরতে পুরনো বন্ধুদের সঙ্গেও হঠাৎ দেখা হয়ে যায় কারো কারো। স্পট অ্যাডমিশনে ৫০ শতাংশ ছাড়ের সুবিধা থাকায় অনেকেই ভর্তি ফরম নিয়ে ফেলেন মেলার স্টল থেকেই। সোমবার (১০ ডিসেম্বর) ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার জন্য এ ফরম সংগ্রহ করেন তারা

ছেলে অমিত চৌধুরী, মেয়ে উপমা চৌধুরীকে সঙ্গে নিয়ে মেলায় এসেছিলেন ব্যবসায়ী মনোজ চৌধুরী। কথা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, মেলায় এসে সবচেয়ে বড় পাওয়া হলো ইডিইউ সম্পর্কে একটি পূর্ণাঙ্গ ধারণা পাওয়া গেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ক্যাম্পাস দেখে আধুনিক স্থাপত্যশৈলীর পরিচয় পেলাম।

মেয়েকে নিয়ে আসা গৃহিনী সানোয়ারা আলম বলেন, আমার মেয়ের বন্ধুরা অনেকে ইডিইউতে ভর্তি হচ্ছে। তারা বলছে- চট্টগ্রামে ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটিই সেরা। মেয়েরও ইডিইউ প্রথম পছন্দ। তাই ভর্তি ফরম নিলাম ওর জন্য।

মেলায় ইডিইউর প্রত্যেকটি বিভাগের ছিলো নিজস্ব স্টল। এর মধ্যে প্রথমবারের মতো শুরু হওয়া অ্যাক্সেস অ্যাকাডেমি (শিক্ষার্থীদের দুর্বলতা কাটাতে সাহায্য করে), ইন্টারন্যাশনাল গ্র্যাজুয়েট অ্যাক্সপেরিয়েন্স (বিদেশে ইন্টার্নশিপ করতে সহায়তা করে) এবং নেটওয়ার্কিং অ্যান্ড প্লেসমেন্ট সেল (চাকরি পেতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগাযোগ তৈরি করে) এ উপচে পড়া ভিড় ছিলো।

এছাড়াও বিকেল থেকে রাত আটটায় মেলা শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত ইডিইউ ও বিএসএইচআরএম-এর যৌথ উদ্যোগে পরিচালিত ‘অ্যাডভান্সড সার্টিফিকেট ইন হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট’ (অ্যাসিএইচআরএম) নিয়ে জানতে এবং ভর্তি হতে আসেন বিভিন্ন কর্পোরেট অফিসে কর্মরত এক্সিকিউটিভরা। পাশপাশি এমবিএ’তে আগ্রহী অনেকেই ভর্তি ফরম নেন মেলা থেকে।

ইডিইউর ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান ফিতা কেটে অ্যাডমিশন ফেয়ারের উদ্বোধন করেন। এ সময় তিনি বলেন, ইডিইউর বিভিন্ন কোর্স ও সুযোগ-সুবিধা সম্পর্কে জানাতে এবং শিক্ষার্থীদের ভর্তি সংক্রান্ত জটিলতা কাটাতে এ অ্যাডমিশন ফেয়ারের আয়োজন।

তিনি বলেন, শুধুমাত্র পড়ালেখা এবং সার্টিফিকেট দেওয়াতেই আমাদের কার্যক্রম শেষ না। ভর্তির পর চার থেকে পাঁচ বছরে একজন শিক্ষার্থীকে পূর্ণাঙ্গ মানুষরূপে গড়ে তোলা, তার সমূহ সম্ভাবনা বিকশিত হওয়ার সুযোগ করে দেওয়াই আমাদের মূল লক্ষ্য।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ওয়াসার সাবেক সচিব ও চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি সৈয়দ মুহাম্মদ শফিক উদ্দিন। উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার সামস-উদ-দোহা, রেজিস্ট্রার সজল কান্তি বড়ুয়া, পরিকল্পনা ও উন্নয়ন পরিচালক সাফায়াত কবির চৌধুরী।

বাংলাদেশ সময়: ২০১০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৮, ২০১৮
এমআর/টিসি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: চট্টগ্রাম
জলমহালে দুদকের অভিযান, রক্ষা পেল ৭০ একর জমির ফসল
সিলেটের নয়াসড়ক এখন থেকে ‘মাদানী চত্বর’
খালের পাড়ে ভাঙনে গ্যাসের পাইপলাইন বসানো যায়নি
ভারতে ‘নিষিদ্ধ’ পাকিস্তানি শিল্পীরা
হামলার নিন্দায় পাকিস্তান রাষ্ট্রদূতকে ইরানের তলব


রাজধানীতে সাড়ে ১৮ হাজার পিস ইয়াবাসহ আটক ৩
আবাহনীর জয় রথ চলছেই
শুধু জামায়াত নয় বিএনপিকেও ক্ষমা চাইতে হবে
রাজধানীতে জাল সনদ তৈরি চক্রের ৩ সদস্য আটক
মাধবপুরে ১১ লক্ষাধিক টাকার ওষুধ জব্দ