স্ত্রীর বাড়িতে থাকেন এমএ লতিফ!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

সংসদ সদস্য এমএ লতিফ। ফাইল ছবি

চট্টগ্রাম: এমএ লতিফ চট্টগ্রাম-১১ (বন্দর-পতেঙ্গা) আসনের ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দুই বারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য। ২০০৮ ও ২০১৪ সালে তিনি এ আসন থেকে নির্বাচিত হন।

একাদশ জাতীয় সংসদে নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশনে দেওয়া হলফনামা অনুযায়ী চট্টগ্রাম চেম্বারের সাবেক সভাপতি লতিফের নিজের বাড়ি বা ফ্ল্যাট নেই। তার স্ত্রীর একটি বাড়ি রয়েছে, সেটির দাম ৫ কোটি ৬৯ লাখ ২৯ হাজার ১৫৮ টাকা।

হলফনামায় আয়ের উৎস দেখানো হয়েছে, ব্যবসা ও চাকরি। ব্যবসা থেকে লতিফের আয় ৫৫ লাখ ৫৭ হাজার ৬৬৪ ও চাকরি থেকে ২৫ লাখ ২৪ হাজার ৯২৬ হাজার টাকা। তার ওপর নির্ভরশীলদের আয় দেখানো হয়েছে ১ কোটি ১১ লাখ ৮৪ হাজার ১৩২ টাকা।

লতিফের স্থাবর সম্পদের মধ্যে অকৃষি জমি ও অর্জনকালীন আর্থিক মূল্য ২ কোটি ৪৯ লাখ ৬০ হাজার ৩০৪ টাকা। স্ত্রীর সম্পদ দেখানো হয়েছে ৯ কোটি ৯০ লাখ ২৯ হাজার ৩৫৭ টাকা। নির্ভরশীলদের সম্পদ দেখানো হয়েছে ১ কোটি ৮৩ লাখ ৯৩ হাজার ৪০০ টাকা।

লতিফের নগদ (ব্যাংক জমাসহ) ১ কোটি ৮৬ লাখ ১৬ হাজার ২৩৭ টাকা  জমা রয়েছে। তবে স্ত্রীর নগদ রয়েছে ৬৫ লাখ ৯৩ হাজার ৯৯৩ টাকা।

এ ছাড়া লতিফ, তার স্ত্রী ও নির্ভরশীলদের কারও ব্যাংকঋণ নেই। সংসদ সদস্য হয়েছেন উল্লেখ করে নির্বাচনের আগে দেওয়া প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করেছেন বলে হলফনামায় উল্লেখ করেছেন এমএ লতিফ।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বন্দর পতেঙ্গা আসন থেকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে লতিফ মনোনয়ন পেয়েছেন। এর মধ্যে যাচাই-বাছাইয়ে এমএ লতিফের মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৩, ২০১৮
এসইউ/টিসি

 

চকবাজার অগ্নিকাণ্ডে এরদোয়ানের শোক
মেসির হ্যাটট্রিকে বার্সার জয়
ডিজিটাল কেওয়াইসি চালু করলো নগদ
বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে দুই ডাকটিকিট
চকবাজারে ফের আগুন আতঙ্ক, ছোটাছুটিতে আহত ৭


চকবাজার ট্র্যাজেডি: কারণ অনুসন্ধানে আইইবি’র কমিটি
‘সংস্কৃতিচর্চা জাতিকে অশুভ শক্তি থেকে বিরত রাখে’ 
শেষ ছুটির দিনে প্রাণবন্ত বইমেলা
উত্তরায় বাসের ধাক্কায় কিশোরের মৃত্যু
চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সভাপতি আব্বাস, সম্পাদক ফরিদ