চট্টগ্রামের ১০টি আসনে বাদ পড়লেন ২২ জন

সিফায়াত উল্লাহ, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

প্রার্থিতা বাছাই কার্যক্রম পরিচালনা করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক ইলিয়াছ হোসেন।

চট্টগ্রাম: জেলার ১০টি সংসদীয় আসনে ২২ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। সাজাপ্রাপ্ত, খণখেলাপিসহ বিভিন্ন কারণে এসব প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াছ হোসেন।

রোববার (২ ডিসেম্বর) সকাল ১০টা থেকে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শুরু হয়।

এর মধ্যে চট্টগ্রাম-১ মিরসরাই আসনে সঠিক ভোটার তালিকা জমা না দেওয়ায় বাদ পড়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী রেজাউল করিম, মোহাম্মদ মোশারফ হোছাইন ও শাহীদুল ইসলাম চৌধুরী। এ ছাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ না করায় বিএনপির নুরুল আমিন বাদ পড়েছেন।

চট্টগ্রাম-২ ফটিকছড়ি আসনে ঋণখেলাপি ও দলীয় মনোনয়ন না পাওয়ায় বাদ পড়েছেন বিএনপির গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরী ও জামানতের টাকা জমা না দেওয়ায় বাতিল হয় জাকের পার্টির আবদুল হাইয়ের মনোনয়নপত্র।

চট্টগ্রাম-৩ সন্দ্বীপ আসনে বিল খেলাপি হওয়ায় জাসদের মো. আবুল কাসেম ও বিএনপির মোস্তফা কামাল পাশার মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে।

চট্টগ্রাম-৬ রাউজান আসনে সাজাপ্রাপ্ত হওয়ায় মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে বিএনপির সামির কাদের চৌধুরীর।

চট্টগ্রাম-৭ রাঙ্গুনিয়া আসনে ঋণখেলাপি ও দলীয় মনোনয়ন না পাওয়ায় বাদ পড়েছেন বিএনপির গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরী। খণখেলাপি হওয়ায় মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে বিএনপির আবু আহমেদ হাসনাত ও বিএনএফ’র মো. আবদুল আলীমের।

চট্টগ্রাম-১২ পটিয়া আসনে খণখেলাপি হওয়ায় বাদ পড়েছেন এলডিপির এম ইয়াকুব আলী, ভোটার তালিকা সঠিক না দেওয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ আবু তালেব হেলালী।

চট্টগ্রাম-১৩ আনোয়ারা আসনে মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে বিএনএফের নারায়ণ রক্ষিত ও ভোটার তালিকা সঠিক না দেওয়ায় বাদ পড়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ জামাল আহমেদ।

চট্টগ্রাম-১৪ চন্দনাইশ আসনে ভোটার তালিকা সঠিক না দেওয়ায় বাদ পড়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. শাহজাহান, মো. মনিরুল ইসলাম, মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন।

চট্টগ্রাম-১৫ সাতকানিয়া আসনে ভোটার তালিকা সঠিক না দেওয়ায় বাদ পড়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী মুহাম্মদ জাকের ও আবদুল জব্বার।

চট্টগ্রাম-১৬ বাঁশখালী আসনে উপজেলা চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ না করায় বাদ পড়েছেন স্বতন্ত্র মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম।

জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক  ইলিয়াস হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, যারা বাদ পড়েছেন, তাদের আপিলের সুযোগ রয়েছে। এ জন্য তাদের তিন দিনের মধ্যে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব বরাবর আপিল করতে হবে।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০২, ২০১৮
এসইউ/টিসি

কিশোরগঞ্জে ১৭ ভাষা সৈনিককে সম্মাননা 
মাতৃভাষায় বই থাকলেও বঞ্চিত শ্রীমঙ্গলের ত্রিপুরা শিশুরা
বিনা টিকিটে রেল ভ্রমণ করায় ৫৬৫ যাত্রীর জরিমানা
নেত্রকোণায় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার
কথার ঝুড়ি নিয়ে বাড়ি ফেরা


চকবাজার ট্র্যাজেডিতে ভবনগুলো ‘ব্যবহার অনুপযোগী’
৭ তলার ছাদেও বিস্ফোরকের চিহ্ন!
ভিয়েতনাম মিশনে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন 
ময়মনসিংহে ডিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদকবিক্রেতা নিহত
চকবাজারে এখনও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যদের সতর্ক অবস্থান