প্রধানমন্ত্রীকে ৬টি আসন উপহার দিতে চাই

তপন চক্রবর্তী, ব্যুরো এডিটর | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

আ জ ম নাছির উদ্দীন। ছবি: সোহেল সরওয়ার

walton

চট্টগ্রাম: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নগরের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ৬টি সংসদীয় আসনেই নৌকার প্রার্থীকে জয়ী করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

php glass

দলীয় প্রার্থীদের বিজয়ী করে এসব আসন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

সোমবার (২৬ নভেম্বর) নির্বাচন নিয়ে বাংলানিউজের সঙ্গে আলাপচারিতায় আ জ ম নাছির উদ্দীন এসব কথা বলেন।

আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, সংসদ নির্বাচনে নগর এলাকায় ৩টি পূর্ণাঙ্গ আসন এবং ৩টি আংশিক আসন রয়েছে। আংশিক আসনের মধ্যে চট্টগ্রাম-৮ (বোয়ালখালী) আসনে প্রায় ৫ লাখ ভোটারের ৩ লাখ ভোটার নগরের। অন্যদিকে, চট্টগ্রাম-৫ (হাটহাজারী) আসনের প্রায় দেড় লাখ ভোটার নগরের। এছাড়াও চট্টগ্রাম-৪ (সীতাকুণ্ড) আসনের লক্ষাধিক ভোটারও নগরের।

অর্থাৎ এ ৩টি আসনের জয় পরাজয় নির্ধারণ করার মতো ভোটার এখানে আছে।

তিনি বলেন, ৬টি আসনেই আমাদের প্রার্থীদের জয়ী করতে চাই। দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের আমরা সেভাবেই উদ্বুদ্ধ করছি। ঐক্যবদ্ধ করছি। সেভাবেই নির্বাচনী পরিকল্পনা করছি। এ পরিকল্পনা বাস্তবায়নে ইতিমধ্যেই কাজ শুরু করেছি।

মেয়র বলেন, এবারের নির্বাচনটা বাংলাদেশের জন্য, বাংলাদেশের মানুষের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ নির্বাচনের মাধ্যমেই ঠিক হবে- সামনের দিনগুলোতে বাংলাদেশ কোন পথে এগোবে।

তিনি বলেন, আমরা একসময় গরিব দেশ ছিলাম। এখন মধ্যম আয়ের দেশ। একসময় স্বল্পোন্নত দেশ ছিলাম। এখন উন্নয়নশীল দেশ। দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে যাওয়ার কথা সারাবিশ্বই কিন্তু এখন নির্দ্বিধায় স্বীকার করছে। আমি মনে করি, বর্তমান সরকার দুই মেয়াদে দেশকে যেভাবে পরিকল্পিতভাবে এগিয়ে নিয়ে গেছে, এর সুফল যেভাবে সাধারণ মানুষ পেয়েছে, এসব কিছু বিবেচনা করে মানুষ আওয়ামী লীগের পক্ষে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষেই তাদের সুচিন্তিত রায় দেবে।

আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, বিশ্বের নামকরা যেসব গবেষণাধর্মী প্রতিষ্ঠান আছে, তারা সবাই বলছে- অর্থনীতিতে বাংলাদেশ এখন বিস্ময়ের দেশ। যে গতিতে বাংলাদেশ এখন এগোচ্ছে, এ গতিতে এগোতে থাকলে ২০৪১ সালের অনেক আগেই পৃথিবীর উন্নত এবং সমৃদ্ধশালী দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশকে এগিয়ে নিতে যে রূপকল্প নির্ধারণ করেছেন- এর অনেক আগেই আমরা সে লক্ষ্যে পৌঁছে যাবো।

তিনি বলেন, এ লক্ষ্য অর্জন হওয়া মানেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়ার যে অঙ্গীকার ছিলো, যে প্রত্যাশা ছিল- বাঙালি জাতিকে একটা সম্মানজনক অবস্থায় নিয়ে যাওয়ার, প্রত্যেকটা বাঙালির অধিকার আদায়ের, সেটা বাস্তবায়িত হবে। ৩০ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীনতা অর্থবহ হবে।

মেয়র বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশের মানুষ বিপর্যয়ের মুখোমুখি হয়েছিলো। কিন্তু এর পরেও এদেশের মানুষ সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে জীবন বাজি রেখে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছে।

‘এবারও তারা সঠিক সিদ্ধান্ত নেবে। জননেত্রী শেখ হাসিনা যার হাতে নৌকা মার্কা দিয়েছেন তাকে ভোট দেবে। উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখবে।’ যোগ করেন- আ জ ম নাছির উদ্দীন।

বাংলাদেশ সময়: ২১০০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৬, ২০১৮
টিসি

কেজি স্কুলেই সব কিছু শিখে যায় চীনা শিশুরা!
শ্রীলঙ্কায় মৃতের সংখ্যা কমে ২৫৩
প্রিয় নুসরাত | মুহম্মদ জাফর ইকবাল
৩ নেতাকে শো’কজ-অব্যাহতি, বগুড়া বিএনপি অফিসে তালা
কলকাতার শেষ চার কঠিন করে দিলো রাজস্থান


চেরনোবিল পারমাণবিক বিপর্যয়
মোবাইল টাওয়ারের রেডিয়েশন মাত্রার প্রতিবেদন চান হাইকোর্ট
সরকারি চাকরিতে বয়সসীমা বাড়ানোর প্রস্তাব সংসদে নাকচ
শুক্রবার বাংলাদেশে আসছে পাকিস্তানের যুবারা
নিষেধাজ্ঞা না মেনে ইলিশ ধরায় ১৩ জেলের কারাদণ্ড