ইয়াজিদ যুগে যুগে ধিকৃত হবে

চট্টগ্রাম প্রতিদিন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বক্তব্য দেন সুফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান

চট্টগ্রাম: মিসরের আল আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ ফ্যাকাল্টির ডিন প্রফেসর ড. সৈয়দ জামাল ফারুক বলেছেন, গণবিরোধী স্বৈরতন্ত্র চাপিয়ে দেওয়ার কারণে নরপিশাচ ইয়াজিদের নাম যুগে যুগে ধিক্কারের সঙ্গে উচ্চারিত হবে। জনমত ও জনপ্রত্যাশা উপেক্ষা করে ইয়াজিদ সেদিন বর্বরতার রাজত্ব কায়েম করছিল। ফলে সে ধিক্কারের পাত্র।

তিনি বলেন, হাজার বছর ধরে মিসরের জামেয়া আজহার বিশ্ববিদ্যালয় আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআতের প্রতিনিধিত্ব করে আসছে। এ বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৪ লাখ শিক্ষার্থী এবং ৭০ হাজার শিক্ষক রয়েছেন। এদের প্রায় সবাই আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআতের মতাদর্শে বিশ্বাসী।

শুক্রবার (১৪ সেপ্টেম্বর) মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন ফটিকছড়ি ঈসাপুর দরবার শরিফের সাজ্জাদানশিন শাহসুফি আল্লামা সৈয়দ আতাউর রহমান ঈসাপুরী (মাজিআ)।

প্রধান অতিথি ছিলেন সংসদ সদস্য  এমএ লতিফ।

তিনি বলেন, ইসলামের নামে আজ বিকৃতি বিভ্রান্তি দিন দিন বেড়েই চলছে। ইসলাম শান্তির ধর্ম। তাই ইসলামের নামে হানাহানি-সহিংসতার কোনো সুযোগ নেই। হজরত ইমাম হোসাইন (রা) ইসলামের শান্তি-সম্প্রীতির দর্শনই সমুন্নত করার কারণে প্রশংসিত হয়ে আছেন।

শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন শাহাদাতে কারবালা মাহফিল পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ও প্রধান পৃষ্ঠপোষক পিএইচপি ফ্যামিলির চেয়ারম্যান সুফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান।

তিনি বলেন, হজরত ইমাম হোসাইন (রা) ও হজরত ইমাম হাসান (রা) জান্নাতের  দু’টি সুরভিত ফুল। যারা তাদের ভালোবাসলো, প্রকারান্তরে তারা যেন আল্লাহ পাক ও প্রিয় নবীকে (দ) ভালোবাসলো। আহলে বায়তে রাসূলের (দ) মহব্বত অন্তরে গভীরভাবে ধারণ করে আমাদের নাজাতের সৌভাগ্য অর্জন করতে হবে।

বিদেশি আলোচক ছিলেন লেবাননের বৈরুত গ্লোবাল ইউনিভার্সিটির প্রফেসর ড. শাইখ সৈয়দ জামাল মুহাম্মদ শাকার আল হোসাইনি। তিনি বলেন, মহররম আমাদের ইমানি চেতনা জাগ্রত করতে শেখায়। হজরত ইমাম হোসাইন  (রা) ও আহলে বায়তে রাসূলের (দ) শাহাদাতের বিনিময়ে আমরা আজ অবিকৃত দীন-ইসলামের নিয়ামত পেয়ে ধন্য। এজন্য আমাদের আল্লাহর দরবারে শুকরিয়া জানাতে হবে।

আলোচনা করেন ঢাকা নেছারিয়া কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ড. আল্লামা কফিল উদ্দিন সরকার সালেহী, আনজুমানে রজভিয়া নূরিয়া বাংলাদেশের চেয়ারম্যান আল্লামা আবুল কাশেম নূরী এবং খতিবের হাট তৈয়বিয়া জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মুহাম্মদ গোলাম কিবরিয়া।

বিশেষ অতিথি পিএইচপি ফ্যামিলির পরিচালক আলী হোসেন সোহাগ বলেন, আল্লাহকে পেতে চাইলে নবীকে মহব্বত করতে হবে। আর নবীকে পেতে হলে আহলে বায়তে রাসূলকে (দ) ভালোবাসতে হবে। হজরত ইমাম হোসাইনকে (রা) ভালোবেসে আল্লাহর নৈকট্য অর্জন করতে হবে।

অতিথি ছিলেন বোয়ালখালী হাওলা দরবার শরিফের সাজ্জাদানশিন শাহজাদা মাওলানা মুহাম্মদ নাঈমুল কুদ্দুস আকবরী, পিএইচপি ফ্যামিলির পরিচালক মুহাম্মদ আলী হোসেন চৌধুরী, অ্যাপোলো ইস্পাতের ডাইরেক্টর মোহাম্মদ আব্দুর রহমান। তেলাওয়াত করেন আন্তর্জাতিক কারি শাইখ আহমদ বিন ইউসুফ আল আজহারী। নাতে রাসূল (দ) পাঠ করেন শায়ের মাওলানা মুহাম্মদ জয়নুল আবেদীন। মাহফিল সঞ্চালনা করেন চবি অধ্যাপক ড. আল্লামা জাফর উল্লাহ, মাওলানা মুহাম্মদ জিয়াউল হক ও মোহাম্মদ আবুল মনসুর  সিকদার।

বাংলাদেশ সময়: ২৩০০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮
এআর/টিসি

 

 

    

মহালছড়িতে বেইলি ব্রিজ ভেঙে ট্রাক নদীতে, নিখোঁজ ১
মালদ্বীপে বাংলাদেশিদের জন্য সতর্কতা 
আইনের তোয়াক্কা না করে খাগড়াছড়িতে ইটভাটা নির্মাণ
ট্রাকের ধাক্কায় শিশু নিহত, গুরুতর আহত মা
যশোরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদকবিক্রেতা নিহত
গাইবান্ধায় বন্যায় ৫৭ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পাঠদান বন্ধ
বাগেরহাটে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১
নাইক্ষ্যংছ‌ড়ি‌তে ‘বন্দুকযু‌দ্ধে’ ডাকাত নিহত
বেড়েছে সবজির দাম
সৌম্য-ইমরুল বিষয়ে মাশরাফির সঙ্গে আলোচনা হয়নি!