ছাত্রদল সভাপতি-সম্পাদক সমর্থকদের মারামারি

600 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton
নগর ছাত্রদলের দুই গ্রুপের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার বিকেলে নগর বিএনপির দলীয় কার্যালয় নাসিমন ভবনের সামনে সংগঠিত এ ঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে। বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে সমন জারির প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে নগর ছাত্রদল।

চট্টগ্রাম: নগর ছাত্রদলের দুই গ্রুপের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার বিকেলে নগর বিএনপির দলীয় কার্যালয় নাসিমন ভবনের সামনে সংগঠিত এ ঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে।

বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে সমন জারির প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে নগর ছাত্রদল। এসময় নগর ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের সমর্থকদের মধ্যে কয়েক দফা মারামারি হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, সমাবেশে প্রধান শুরু হলে ছাত্রদলের সভাপতি গাজী সিরাজ উল্লার নামে তার সমর্থকরা শ্লোগান দিতে থাকে। এসময় ব্যক্তির নামে শ্লোগান না দেওয়ার জন্য বেশ কয়েকবার বারণ করেন সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন বুলু।

এরপরও কর্মীরা সভাপতির নামে শ্লোগান দিতে থাকে। এর এক পর্যায়ে উত্তেজিত হয়ে বুলু কর্মীদের ‘বেয়াদব’ আখ্যায়িত করে শ্লোগান বন্ধ করার নির্দেশ দেন। এসময় দুই পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা। এর এক পর্যায়ে মারামারিতে জড়িয়ে পড়ে তারা।

সভাপতি সমর্থক এক কর্মী বাংলানিউজকে বলেন, নগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে মিছিল সহকারে বিক্ষোভ সমাবেশে যোগ দেয় কর্মীরা। সমাবেশ শুরু হলে কর্মীরা শ্লোগান দেয়। এসময় সাধারণ সম্পাদক বেশ কয়েকবার কর্মীদের ধমক দেন। পরে তাদের বেয়াদব বলে আখ্যায়িত করে। এরপরই কর্মীরা উত্তেজিত হয়ে পড়ে। সাধারণ সম্পাদকের কয়েকজন সমর্থক তেড়ে আসলে উভয় পক্ষের মধ্যে মারামারি শুরু হয়।

তিনি বলেন, বুলু ভাই তার ভুল বুঝতে পেরে কর্মীদের কাছে ক্ষমা চাইলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। কিন্তু তার কয়েকজন সমর্থক ফের তেড়ে আসে। এভাবে উভয় পক্ষ বেশ কয়েকবার মারামারিতে জড়িয়ে পড়ে।
 
এ বিষয়ে নগর ছাত্রদলের সহসভাপতি জসিম উদ্দিন বাংলানিউজকে বলেন, আসলে কর্মীদের মধ্যে একটু ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। তেমন কিছুই না।

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য গাজী সিরাজ উল্লার মোবাইলে ফোন দেওয়া হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

‘গাজীর গ্রুপ গরি ভুল গইজ্জি’
এদিকে সাধারণ সম্পাদক তার কর্মী-সমর্থকদের পক্ষ নিয়ে কথা বললেও ঘটনাস্থলে যথাযত ভূমিকা না রাখায় ছাত্রদল সভাপতি সিরাজের উপর ক্ষুব্ধ হয়েছেন কর্মীরা।

কর্মীদের পক্ষ নিয়ে জোড়ালে ভূমিকা রাখতে না পারায় তাকে সভাপতির অযোগ্য বলেও মন্তব্য করতে ছাড়েনি কর্মীরা। পাশাপাশি কর্মীরা তাকে সমর্থন করে ভুল করেছেন এমন মন্তব্যও করেছেন কেউ কেউ।

অনুষ্ঠান শেষে নগর সভাপতির যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেন বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মীরা। নগর ছাত্রদলে যোগ্য নেতা না পাওয়া তাদের জন্য দুঃখজনক বলেও উল্লেখ করেন কয়েকজন কর্মী।

এসময় একজন কর্মী বলেই ফেললেন, ‘আসলে গাজীর (নগর ছাত্রদলের সভাপতি) গ্রুপ গরি ভুল গইজ্জি।’

প্রায় ১১ বছর পর ২০১৩ সালের ২১ জুলাই কেন্দ্র থেকে ১১ সদস্য বিশিষ্ট চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়। এতে বাকলিয়া থানা ছত্রদলের সভাপতি গাজী সিরাজ উল্লাহকে সভাপতি এবং নগর ছাত্রদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক বেলায়েত হোসন বুলুকে করা হয় সাধারণ সম্পাদক। তারা দু’জনই ডা.শাহাদাত হোসেনের অনুসারী হিসেবে পরিচিত। এছাড়া তাদের বিরুদ্ধে ভূমিদুস্যুতার অভিযোগ রয়েছে।

কমিটি ঘোষণার পর থেকেই সংগঠনটির পদবঞ্চিত নেতা-কর্মীদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দেয়। উঠে প্রতিবাদের ঝড়। নতুন কমিটিতে ভূমি দস্যু, বিবাহিত, অছাত্রদের রাখায় পদবঞ্চিত ও ত্যাগী নেতা-কর্মীরা আন্দোলন শুরু করে। কমিটি গঠনের পর থেকেই সংগঠনটির নেতা-কর্মীদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছে। চলতে থাকে পাল্টা-পাল্টি মিছিল সমাবেশ।

নগর ছাত্রদলের কমিটি নিয়ে দূরত্ব সৃষ্টি হয় নগর বিএনপির সভাপতি আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেনের মধ্যে। ওই বছরের ২৫ জুলাই নগর বিএনপির দলীয় কার্যালয় নাসিমন ভবনে ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে বিক্ষুব্ধ নেতা-কর্মীরা।

কমিটি গঠনের পর থেকে আন্দোলন অব্যাহত রেখেছেন পদবঞ্চিতরা। এরই মধ্যে একক সিদ্ধান্তে কমিটি গঠন ও পদের নামে কর্মীদের কাছ থেকে টাকা আদায়ের অভিযোগ উঠে গাজী সিরাজের বিরুদ্ধে।

সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের অসাংগঠনিক ও গঠনতন্ত্র বিরোধী কার্যকলাপ, চাঁদাবাজি এবং ‍অর্থের বিনিময়ে কমিটিতে অযোগ্যদের পদ দেওয়ায় কমিটিতে ভাঙন ধরে। ওই সময় সভাপতি সাধারণ সম্পাদক এক পক্ষে অবস্থান করলেও বর্তমানে কোন্দলে বিভক্ত তারা। বিভিন্ন সভা-সমাবেশে উভয় পক্ষ নিজেদের শক্তি প্রদর্শনে চেষ্টা করছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯১৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৮, ২০১৪

Nagad
শেষ শ্রদ্ধা শেষে সিমেট্রিতে এন্ড্রু কিশোরের কফিন
বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি: ময়ূরের দুই ইঞ্জিন ড্রাইভার গ্রেফতার
স্বাস্থ্য সংকট হ্রাসে ‘ডাটা বিপ্লব’
এন্ড্রু কিশোরের শেষ যাত্রায় জায়েদ খান
মাশরাফির ছোট ভাই সেজারেরও করোনা নেগেটিভ


খনন হবে সাঙ্গু-চাঁদখালী নদী, সোনাইছড়ি বেড়িবাঁধে সংস্কার
র‍্যাঙ্কিংয়েও বড় লাফ হোল্ডারের
সাহেদের যত প্রতারণা
ইউআইটিএস ও গুলশান ক্লিনিকের মধ্যে সমঝোতা স্মারক
সিরাজগঞ্জে বেড়েই চলেছে যমুনার পানি, প্লাবিত নতুন এলাকা