php glass

রাজস্ব বাড়াতে পিডিবির ভূতুড়ে বিল!

1054 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton
মিটার রিড ছাড়াই গ্রাহকদের যাচ্ছেতাই বিল ধরিয়ে দিচ্ছে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি) দক্ষিণাঞ্চল। অন্যান্য মাসগুলোতে এ ধরণের অভিযোগ কম-বেশী শোনা গেলেও গত মে মাসে কয়েকগুন বিল ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ করেছেন অনেক গ্রাহক।

চট্টগ্রাম: মিটার রিড ছাড়াই গ্রাহকদের যাচ্ছেতাই বিল ধরিয়ে দিচ্ছে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি) দক্ষিণাঞ্চল। অন্যান্য মাসগুলোতে এ ধরণের অভিযোগ কম-বেশী শোনা গেলেও গত মে মাসে কয়েকগুন বিল ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ করেছেন অনেক গ্রাহক।

পিডিবি সূত্র জানায়, রাজস্ব আদায় বেশী দেখানোর জন্য অর্থ বছরের শেষের দিকে এসে বকেয়া আদায়ে তৎপরতার পাশাপাশি গ্রাহকদের অতিরিক্ত বিল দেখায় বিদুৎ অঞ্চলগুলো।

এছাড়া, বিভিন্ন সীমাবদ্ধতার কারণে সারা বছর নিয়মিত মিটার রিড করতে সম্ভব না হওয়ায় এ সময়টাতে সারা বছরের ব্যবহারে সামঞ্জস্য আনতে হয়। এতে অন্যান্য মাসের তুলনায় বিলের ব্যবধান অনেক বেড়ে যায়।

নগরীর বহদ্দার হাট বারাই পাড়া এলাকার বাসিন্দা মো. কাইয়ুম বাংলানিউজকে জানান, প্রতি মাসে তিনি ২২০ থেকে ২৫০ টাকা বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করে আসছেন, কিন্তু মে মাসে তার বিদ্যুৎ বিল এসেছে ১৮৬৫ টাকা।

তার অভিযোগ “অনুমান নির্ভর না হলে এক লাফে এতো টাকার ব্যবধান হয় না। ইচ্ছে করে অথবা মিটার রিড না করেই এই বিল প্রস্তুত করা হয়েছে।”

একই ধরণের অভিযোগ করেছেন নগরীর পশ্চিম মাদারবাড়ি এলাকার বাপন ধর। তিনি বলেন, “এপ্রিলে ৩৭৮ টাকা বিদ্যুৎ বিল দিয়েছি। কিন্তু মে মাসে এসে ৯৭৫ টাকা বিদ্যুৎ বিল এসেছে। বাড়িওয়ালাকে বিষয়টা বললে ওনি বললেন সবগুলো বাসায় বিলের একই অবস্থা।”

তবে, এ ধরণের অভিযোগ স্বীকার করতে রাজী নন পিডিবির কর্মকর্তারা।

পিডিবির প্রধান প্রকৌশলী নজরুল ইসলাম এ প্রসঙ্গে বাংলানিউজকে জানান, এপ্রিল-মে মাসে গরমের কারণে বিদ্যুতের চাহিদাও বেশী ছিলো আবার লোডশেডও তেমন একটা ছিলো না। ফলে, গ্রাহকরাও স্বাভাবিকভাবে বেশী বিদ্যুৎ ব্যবহার করেছেন। এ কারণে বিদ্যুৎ বিল অন্য মাসের তূলনায় বেশী আসতে পারে।

“অতিরিক্ত বিল ইস্যুর ব্যাপারে আমরা এখনো কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি। কোন ভুলের কারণে এ ধরণের কিছু হয়ে থাকলেও গ্রাহকরা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করে বিলটি সংশোধন করতে পারেন।”

পিডিবি দক্ষিণাঞ্চলের সিনিয়র সহকারী পরিচালক মো. মনিরুজ্জামান বাংলানিউজকে বলেন, ‘মিটারে গ্রাহকদের বিদ্যুৎ ব্যবহারের রেকর্ডগুলো জমা থাকে যার কারণে গ্রাহকদের কাছ থেকে অতিরিক্ত বিল আদায়ের কোন সুযোগ নেই। তবে, কোন কারণে একটি মাসে যদি অতিরিক্ত বিল এসেও থাকে পরে তা সমন্বয় হয়ে যাওয়ায় গ্রাহকদের ওপর কোন প্রভাব পড়ার কথা না।’

পিডিবি সংশ্লিষ্টরা বলছেন, রাজস্ব আদায়ে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বিতরণ অঞ্চলগুলোর প্রতি জোর তাগিদ দিয়ে আসছে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড। এ কারণে চাপের মধ্যে থাকা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা অর্থ বছরের শেষের মাসগুলোতে মোবাইল-কোর্ট পরিচালনার মাধ্যমে বকেয়া আদায় বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন উদ্যোগে অধিক তৎপর হয়ে উঠেন।

অন্যদিকে, নিয়মিত মিটার রিড না হওয়া পেছনে পিডিবির জনবল সংকট দায়ী। চট্টগ্রামে প্রায় এক দশক ধরে কোন মিটার রিডার নিয়োগ দেওয়া হয়নি। যার কারণে একজন মিটার রিডারকে প্রতিমাসে প্রায় ৮ থেকে সাড়ে ৮ হাজার মিটার রিড করতে হয়। এমতাবস্থায়, ইচ্ছে থাকা স্বত্ত্বেও মিটার রিডাররা তার অধীনে থাকা সবগুলো মিটার পাঠ করার সুযোগ পান না।

ফলে, এক সময় বিল সামঞ্জস্য করতে গিয়ে গ্রাহকরা এ ধরণের ভূতুড়ে পরিস্থিতির শিকার হন।

সমন্বয়ের ভেতর শুভঙ্করের ফাঁকি
পিডিবি কর্মকর্তারা বরাবরেই বলে আসছেন কোন মাসে অতিরিক্ত বিল দেখানো হলে পরে তা সমন্বয় হয়ে যাওয়ায় গ্রাহকদের ওপর এর প্রভাব পড়ে না। কিন্তু এর মধ্যে রয়েছে শুভঙ্করের ফাঁকি।

গ্রাহকদের অনেকেই রয়েছেন যারা ৫০ ইউনিটের কম বিদ্যুৎ ব্যবহার করেন (লাইফ লাইন)। তাদের জন্য বিদ্যুতের দাম নিয়মানুযায়ী ৩ টাকা ৩৩ পয়সা হওয়ার কথা। কিন্তু কোন মাসে বেশী ইউনিট ব্যবহার দেখানোর কারণে তাকে আবাসিক বিভিন্ন ধাপের গ্রাহকদের হারে অতিরিক্ত বিদ্যুৎ মূল্য পরিশোধ করতে হচ্ছে। ইউনিট যতো বাড়ে বিদ্যুতের দামও সে হারে বেড়ে যায়।

একইভাবে বেশী ইউনিট দেখানোর কারণে ধাপ পরিবর্তন হওয়ায় আবাসিক গ্রাহকরাও ভোগান্তি ও আর্থিক ক্ষতির শিকার হচ্ছেন।

আবাসিক গ্রাহকদের মধ্যে ১ থেকে ৭৫ ইউনিট পর্যন্ত একজন গ্রাহককে ৩ টাকা ৫৩ পয়সা, ৭৬ থেকে ২০০ ইউনিট পর্যন্ত ৫টাকা ১ পয়সা, ২০১-৩০০ ইউনিট পর্যন্ত ৫টাকা ১৯ পয়সা, ৩০১ থেকে ৪০০  ইউনিট পর্যন্ত ৫ টাকা ৪২ পয়সা, ৪০১ থেকে ৬০০ ইউনিট পর্যন্ত ৮ টাকা ৫১ পয়সা, ৬০০ ইউনিটের অধিকের ক্ষেত্রে ৯ টাকা ৯৩ পয়সা হারে বিদ্যুতের দাম দিতে হয়।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫৮ ঘণ্টা, জুন ৯, ২০১৪

কাভার্ডভ্যান চাপায় আহত সার্জেন্ট কিবরিয়ার মৃত্যু
মিডিয়ার সহযোগিতা চাইলেন শিরীণ আখতার
আগরতলায় বন্যার্তদের পাশে ৪৬ আশ্রয়কেন্দ্র
অর্থ আত্মসাতে ফারইস্ট কো-অপারেটিভের চেয়ারম্যান গ্রেফতার
প্রতিবন্ধী শিশু ধর্ষণ মামলায় কিশোর গ্রেফতার


মানুষের চেয়ে বড় জেলিফিশ!
রংপুরে নেওয়া হচ্ছে এরশাদের মরদেহ
কলারোয়ায় ডাম্প ট্রাকের ধাক্কায় নারী শ্রমিক নিহত
বন্দরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে বৃদ্ধার আত্মহত্যা
যে কারণে ‘হেলমেট’ পরে রিকশা চালান শাকিল