গ্রেনেড বিস্ফোরণ

মুফতি ইজহারের বিচার শুরু

100 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

হেফাজতে ইসলামের সিনিয়র নায়েবে আমির মুফতি ইজহার

walton
চট্টগ্রাম নগরীর লালখান বাজার মাদ্রাসায় গ্রেনেড বিস্ফোরণের ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় হেফাজতে ইসলামের সিনিয়র নায়েবে আমির মুফতি ইজহারসহ ৯ আসামীর বিরুদ্ধে চট্টগ্রামের একটি আদালতে বিচার শুরু হয়েছে।
php glass

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম নগরীর লালখান বাজার মাদ্রাসায় গ্রেনেড বিস্ফোরণের ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় হেফাজতে ইসলামের সিনিয়র নায়েবে আমির মুফতি ইজহারসহ ৯ আসামীর বিরুদ্ধে চট্টগ্রামের একটি আদালতে বিচার শুরু হয়েছে।

রোববার চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ এস এম মুজিবুর রহমানের আদালতে আসামীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে বিচার প্রক্রিয়া শুরু হয়। অভিযোগ গঠনের সময় মুফতি ইজহার ছাড়া বাকি আসামীরা উপস্থিত ছিলেন। এসময় তারা নিজেদের নির্দোষ বলে দাবি করেন।

চট্টগ্রাম মহানগর পিপি অ্যাডভোকেট কামাল উদ্দিন আহমেদ বাংলানিউজকে বলেন, মুফতি ইজহারসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে বিচার শুরু হয়েছে। ২৮ এপ্রিল থেকে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরুর আদেশ দিয়েছেন আদালত।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, অভিযোগ গঠনের শুনানির আগে পলাতক মুফতি ইজহারসহ আসামীদের পক্ষে তাদের আইনজীবীরা মামলা প্রত্যাহারের আবেদন জানান। এ আবেদনের উপর রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামীপক্ষের বক্তব্য শেষে আদালত তা খারিজ করে দেন। এরপর আদালতে আসামীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়।

উল্লেখ্য ২০১৩ সালের ৭ অক্টোবর সকাল ১১টার দিকে নগরীর লালখান বাজারে মুফতি ইজহারুল ইসলাম পরিচালিত জামেয়াতুল উলুম আল ইসলামিয়া মাদ্রাসার ছাত্রাবাসের একটি কক্ষে বোমা বানাতে গিয়ে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে পাঁচজন ছাত্র আহত হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দু’ছাত্র মারা যায়।

মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ ল্যাপটপ চার্জার থেকে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি করে। তবে পুলিশ ওই কক্ষ তল্লাশি করে চারটি তাজা গ্রেনেড এবং বিপুল পরিমাণ গ্রেনেড তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করেন। রাতে মুফতি ইজহারের বাসায় তল্লাশি করে ১৮ বোতল এসিড পাওয়া যায়।

এ ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে নগরীর খুলশী থানায় পৃথক তিনটি মামলা দায়ের করেন।

এর মধ্যে ১৯০৮ সালের বিস্ফোরক আইনের ৩ ও ৪ ধারায় দায়ের হওয়া মামলায় মুফতি ইজহারুল ইসলাম ও তার ছেলে হারুন ইজহারসহ ৯ জনকে অভিযুক্ত করে গত ১০ ফেব্রুয়ারি আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ।

অভিযোগপত্র দাখিলের পরও তিনি নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ না করায় গত ২৭ মার্চ বিচারক তার জামিন বাতিল করে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

জঙ্গী সম্পৃক্ততার অভিযোগে আলোচিত-সমালোচিত মুফতি ইজহারুল ইসলাম ইসলামী ঐক্যজোটের একাংশের সভাপতি। নেজামে ইসলাম পার্টির একাংশের সভাপতি হিসেবেও তিনি দায়িত্বে আছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৩২১ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৬, ২০১৪

শরীয়তপুরে ১০ বস্তা খেজুর জব্দ, জরিমানা ৩০ হাজার 
মেট্রোপলিটন চেম্বারের সভাপতি পদে খলিলুর পুনর্নির্বাচিত
আদালত স্থানান্তরের বৈধতা নিয়ে খালেদার রিট
ইঞ্জিনিয়ারিং ইউনিভার্সিটি স্কুল অ্যান্ড কলেজে নিয়োগ
রাজশাহীর দুর্গাপুরে দুই রোহিঙ্গা নারী আটক


রাজধানীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১
লাইসেন্স চেক করতে গিয়ে মিললো ফেনসিডিল   
মেগামার্টের শাড়িতে হয়ে উঠুন সম্পূর্ণা
বরিশালে এসডিজি বাস্তবায়ন বিষয়ক কর্মশালা
রাজশাহীতে নতুন জায়গায় হবে কারা প্রশিক্ষণ একাডেমি