চট্টগ্রামে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাবে সাড়ে ১১ লাখ শিশু

133 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton
জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন আগামী শনিবার অনুষ্ঠিত হবে। চট্টগ্রাম মহানগর ও ১৪ উপজেলার ৬১০৩টি কেন্দ্রে দুই ক্যাটাগরিতে মোট ১১ লাখ ৪১ হাজার ৬৬০ শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। ওইদিন নগর ও উপজেলায় সকাল আটটা থেকে বিকাল চারটা পর্যন্ত এ ক্যাম্পেইন চলবে।
php glass

চট্টগ্রাম: জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন আগামী শনিবার অনুষ্ঠিত হবে। চট্টগ্রাম মহানগর ও ১৪ উপজেলার ৬১০৩টি কেন্দ্রে দুই ক্যাটাগরিতে মোট ১১ লাখ ৪১ হাজার ৬৬০ শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। ওইদিন নগর ও উপজেলায় সকাল আটটা থেকে বিকাল চারটা পর্যন্ত এ ক্যাম্পেইন চলবে।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগ এবং চট্টগ্রাম সিভিল সার্জনের কার্যালয় পৃথক দুই সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান।

বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগ আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডে ১২৮৮ টি টিকাদান কেন্দ্রে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন চলবে। এর মধ্যে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী প্রায় ১ লাখ শিশুকে একটি করে নীল রঙের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী প্রায় ৩ লাখ শিশুকে একটি করে লাল রঙের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন মেয়র এম মনজুর আলম। এসময় উপস্থিত ছিলেন কাউন্সিলর চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, স্বাস্থ্য স্ট্যান্ডিং কমিটির সভাপতি সাইয়েদ গোলাম হায়দার চৌধুরী মিন্টু, জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, মেয়রের একান্ত সচিব মো. মঞ্জুরুল ইসলাম, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাজিয়া শিরিন, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, প্রধান প্রকৌশলী মোখতার আলম, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আক্তার চৌধুরী।

সিভিল সার্জন কার্যালয়ের উদ্যোগে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, চট্টগ্রামের ১৪টি উপজেলায় ২০০ ইউনিয়নের ৬০০ ওয়ার্ডে মোট ৪৮১৫টি টিকাদান কেন্দ্রে ২০০৯ জন স্বাস্থ্যকর্মী কাজ করবেন।

এখানে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী ৭৯ হাজার ৭৬১ জন শিশুকে একটি করে নীল রঙের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী ছয় লাখ ৬১হাজার ৮৯৯ জন শিশুকে খাওয়ানো হবে লাল রঙের ভিটামিন এ ক্যাপসুল।

বুধবার সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ সরফরাজ খান চৌধুরী। এসময় উপস্থিত ছিলেন ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ রফিক উদ্দিন, ডা. এইচএম হাসানুল হক, ডা. মো. নুরুল হায়দার।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ভিটামিন এ প্লাসে কোন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই। খাওয়ার পর হালকা বমি ভাব কিংবা বমি হতে পারে। কোন ধরণের গুজবে কান না দেওয়ার জন্য লোকজনকে আহবান জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, যদি কোনো শিশু ৪ মাসের মধ্যে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খেয়ে থাকে তবে সে শিশুকে ক্যাম্পেইনে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো যাবে না। সকল শিশুকে অবশ্যই ভরা পেটে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল ট্যাবলেট খাওয়াতে হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০০ঘণ্টা, এপ্রিল ০৩, ২০১৪

প্রধানমন্ত্রীকে ইফতারের দাওয়াত দিল বিএনপি
সাতক্ষীরায় ওষুধ উদ্ধারের ঘটনায় দু’টি তদন্ত কমিটি
ডিএসইর সূচক সামান্য বাড়লেও কমেছে সিএসইতে
সাকিবকে বিপজ্জনক অলরাউন্ডার বললেন পন্টিং
পোশাকশিল্প এলাকায় ১ ও ২ জুন ব্যাংক খোলা


মাদ্রাসাছাত্র হত্যা মামলায় ১০ আসামিই খালাস
রাজশাহীর ৭ প্রতিষ্ঠানকে ৫৮ হাজার টাকা জরিমানা
টার্মিনালেই বাস-চালকের কাগজপত্র দেখার নির্দেশ
পাস করেও কলেজে আবেদনের সুযোগ পাচ্ছে না ৫৯ শিক্ষার্থী
গাইবান্ধায় ধানের বস্তা মাথায় নিয়ে বিক্ষোভ