php glass

হাটহাজারীতে মন্দাকিনী স্নানে লাখো পূণ্যার্থীর ভিড়

212 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton
চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার ফরহদাবাদ ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী মন্দাকিনী স্নান মহাসমারোহে সম্পন্ন হয়েছে। প্রতি বছর মধূ কৃষ্ণা ত্রয়োদশীতে স্নান অনুষ্ঠিত হয়। মন্দাকিনী স্নানকে কেন্দ্র করে জমে উঠে মেলা।

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার ফরহদাবাদ ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী মন্দাকিনী স্নান মহাসমারোহে সম্পন্ন হয়েছে। প্রতি বছর মধূ কৃষ্ণা ত্রয়োদশীতে স্নান অনুষ্ঠিত হয়। মন্দাকিনী স্নানকে কেন্দ্র করে জমে উঠে মেলা।

শুক্রবার স্নান ও মেলা উপলক্ষে কমিটির পক্ষ থেকে দুই দিনের নানা কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়। এসব কর্মসূচীর মধ্যে ছিল ধর্মীয় সভা, কবিগান, গীতাপাঠ, কীর্ত্তন, স্নান ও পূজা অনুষ্ঠান। মেলায় দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে উপজাতিসহ জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে বিপুল সংখ্যক পূর্ণার্থীর সমাগমে ঘটে।

মন্দাকিনী স্নান উপলক্ষ্যে বৃহস্পতিবার থেকে উপজাতি সম্প্রদায়ের লোকজন মেলাস্থলে উপস্থিত হয়ে পূর্জা অর্চনা শুরু করে। সূর্য উদয়ের পর তিথি শুরু হলে পূর্ণার্থীরা মন্দাকিনী খালে স্নান সেরে প্রয়াত পিতা মাতা, আত্মীয় স্বজনের উদ্যেশে মন্ত্র পাঠ করে পিন্ড  দান করেন।

বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মেলাস্থলে লোক সমাগম বাড়তে থাকে। মেলায় যাতে কোন বিশৃঙ্খলা না হয় সেজন্য বিপুল সংখ্যক পুলিশ, আনসার ও গ্রাম পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।

সীতাকুন্ডের পাহাড়ি জলধারা থেকে মন্দাকিনী খাল উৎপত্তি হয়ে পাহাড়ি এলাকা অতিক্রম করে ফরহাদাবাদ মন্দাকিনী গ্রাম হয়ে হালদা নদীর সাথে মিশেছে। মন্দাকিনী খালটি এক স্রোতী। সারা বছর এ খাল দিয়ে পানি প্রবাহিত হয়। হালদা নদীর সংযোগস্থলে অমাবস্যা পূর্ণিমা তিথিতে নদীর জোয়ার বৃদ্ধি পেলে আংশিক জোয়ারের পানি খালে প্রবেশ করে।



মধু কৃষ্ণা ত্রয়োদশীতে এ খালে স্নান করতে পারলে মহাপূণের অধিকারী হওয়া যায় বলে সনাতনী সম্প্রদায়ের বিশ্বাস। এক সময় এ মেলা পক্ষকাল ব্যপী অনুষ্ঠিত হত। মেলায় নিত্য প্রয়োজনের যাবতীয় দ্রব্যাদি পাওয়া যায়।

মেলার আয়োজক সূত্রে জানা গেছে, এক সময় বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের লোকজনও ব্যাপকভাবে সমবেত হত। তখন বৌদ্ধ ভিক্ষুরা মেলার এক স্থানে বসে পিন্ডচারণ করত। কালের আর্বতে বৌদ্ধ ভিক্ষুদের আগমন এখন হারাতে বসেছে।

ব্রিটিশ সরকারের আমলে মেলার আগে পরে তিনদিন অতিরিক্ত ট্রেন চলাচল করতো  নাজিরহাট শাখা লাইনে। তবে বর্তমানে যানবাহনের সংখ্যা বাড়ায় লোকজন দ্রুত মেলায় আসতে পারে। ফলে এখন আর অতিরিক্ত ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয় না। 

মন্দাকিনী মেলাকে সনাতনী সম্প্রদায়ের মিলন মেলা আখ্যা দিয়ে খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা থেকে আসা অম্লান ত্রিপুরা বলেন, আমরা প্রতি বছর মেলার জন্য অপেক্ষা করি।

খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা থেকে প্রায় পাঁচ হাজার পূর্ণার্থী মেলায় এসেছেন বলে জানান তিনি।

মেলার শান্তিপূর্ন পরিবেশ দেখে সন্তোষ প্রকাশ করলেও মন্দাকিনী খালে পানির পরিমাণ কম থাকায় পূর্ণার্থীদের বিড়ম্বনার শিকার হতে হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন খাগড়াছড়ির গাড়ীটানা এলাকার আরেক পূর্ণার্থী অনুপ শীল। 
 
পূর্ণার্থীদের কথা বিবেচনা করে কমিটি কার্যকরী উদ্যোগ গ্রহণ করলে পূর্ণার্থীর সংখ্যা আরো বাড়তো বলে মনে করেন তিনি। 

গতবছরের তুলনায় এবার পূর্ণার্থীদের উপস্থিতি বেড়েছে বলে দাবি করেছেন মেলা কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ছোটন দাশ।

অপ্রীতিকর কোন ঘটনা ছাড়াই শান্তিপূর্ণ ভাবে মেলার কার্যক্রম সম্পূর্ণ হয়েছে বলে জানান হাটহাজারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইসমাইল।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩০ঘন্টা, মার্চ ২৮, ২০১৪  

এতিম সাজিয়ে দম্পতির কাছে চুরি করা শিশু বিক্রি
পাকুন্দিয়ায় প্রিমিয়ার ক্লাব ফুটবলের ফাইনাল অনুষ্ঠিত
করফাঁকির অভিযোগে ৫৫০০ কেজি তামাক জব্দ
শিপিং রিপোর্টার্স ফোরামের নতুন কমিটি
কেরানীগঞ্জে উদ্ধার কদমতলীর অপহৃত নারী, আটক ১


বেনাপোল কাস্টমসে নিয়োগ পরীক্ষার্থীদের ভোগান্তি 
জ্যাঠা শ্বশুরের বিরুদ্ধে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ
শ্রীমঙ্গলে ক্রেতা সেজে দুটি ডাহুক উদ্ধার
গোলাপি বলের প্রথম দিনে ‘ব্যর্থ’ বাংলাদেশ
৪১ বছরে ইবি, শিক্ষার্থী ৩০০ থেকে ১৪ হাজার