php glass

সমস্বরে ‘সোনার বাংলা’

হাজারো শিশুর কণ্ঠে সুর মেলাল বড়রাও

83 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton
চট্টগ্রাম নগরীর চেরাগির মোড়ে শিশুদের কণ্ঠে জাতীয় সংগীতে সুর মিলিয়েছেন বড়রাও। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের বিভিন্ন প্রগতিশীল সংগঠনের সংগঠক, ‍পতাকা হাতে অংশ নেয়া সাধারণ জনতার সম্মিলিতভাবে হাজারো শিশুর কণ্ঠে কণ্ঠ মিলিয়ে গেয়ে উঠেছেন ‘আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালবাসি’।

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম নগরীর চেরাগির মোড়ে শিশুদের কণ্ঠে জাতীয় সংগীতে সুর মিলিয়েছেন বড়রাও। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের বিভিন্ন প্রগতিশীল সংগঠনের সংগঠক, ‍পতাকা হাতে অংশ নেয়া সাধারণ জনতার সম্মিলিতভাবে হাজারো শিশুর কণ্ঠে কণ্ঠ মিলিয়ে গেয়ে উঠেছেন ‘আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালবাসি’।

দেশমাতৃকার প্রতি অপরিসীম ভালবাসা, গভীর মমত্ববোধের বহি:প্রকাশ ঘটাতে গিয়ে অনেকে হয়েছেন আবেগে আপ্লুত। জাতীয় সংগীত পরিবেশন শেষে হাজারো কন্ঠের ‘জয় বাংলা’ শ্লোগানে গর্জে উঠে চেরাগি চত্বর।

মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে রাজধানীর জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে ‘লাখো কণ্ঠে সোনার বাংলা’ কর্মসূচির সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে খেলাঘর চট্টগ্রাম মহানগরী কমিটি চেরাগি চত্বরে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের এ কর্মসূচী ঘোষণা করে।

ঘড়ির কাঁটা সকাল ১১টা ছোঁয়ার সঙ্গে সঙ্গেই খেলাঘরের শিশু শিল্পীরা সম্মিলিত কণ্ঠে গেয়ে উঠে জাতীয় সংগীত। বাবার কোলে শিশু, সন্তানকে নিয়ে আসা মা, ছড়িয়ে, ছিটিয়ে থাকা হাজারো মানুষ এক কাতারে দাঁড়িয়ে গেয়ে উঠেন ‘আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালবাসি’।

চেরাগি চত্বরের আশপাশ দিয়ে মুহুর্তের জন্য বন্ধ হয়ে যায় গাড়ি চলাচল। যে যেখানে ছিলেন সেখানেই দাঁড়িয়ে যান। বহুতল ভবনের উপরে বিভিন্ন বাসা ছেড়ে গৃহিণীরা, শিশুরা এসে দাঁড়ান বারান্দায়। প্রতিবন্ধিতাকে জয় করে আসেন শিশু-কিশোর। বুকে হাত দিয়ে সবাই গেয়ে উঠেন বিশ্বকবির অমর সৃষ্টি ‘আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালবাসি’।

জাতীয় সংগীত পরিবেশনের আগে সংক্ষিপ্ত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে দেশাত্মবোধক গান পরিবেশন করেন খেলাঘরের ক্ষুদে শিল্পীরা। খেলাঘর চট্টগ্রাম মহানগরী কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী রূপক চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শেষে বক্তব্য রাখেন সভাপতি ডা.এ কিউ এম সিরাজুল ইসলাম।

তিনি বলেন, এদেশকে যতদিন পর্যন্ত যুদ্ধাপরাধী-রাজাকারমুক্ত, সাম্প্রদায়িকতামুক্ত, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বাংলাদেশ গড়তে না পারব, ততদিন পর্যন্ত আমাদের সংগ্রাম চলবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় নতুন প্রজন্ম গড়ে তোলার জন্য খেলাঘর তার সংগ্রাম অব্যাহত রাখবে।

জাতীয় সংগীত পরিবেশনের কর্মসূচীতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড.আব্দুল মান্নান, উদীচী চট্টগ্রাম জেলা সংসদের সহ সভাপতি ডা.চন্দন দাশ, প্রবাল দে, সাধারণ সম্পাদক সুনীল ধর, গণজাগরণ মঞ্চের সমন্বয়ক শরীফ চৌহান, ছড়াকার আলেক্স আলীম, সাংস্কৃতিক সংগঠক সলিল চৌধুরী, উদীচী, সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী তরুণ উদ্যোগ, গণজাগরণ মঞ্চ, প্রত্যয় ৭১, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা মঞ্চসহ বিভিন্ন প্রগতিশীল গণসংগঠন সংহতি প্রকাশ করে।

এদিকে একই সময়ে নগরীল ডিসি হিলে স্বাধীনতার বইমেলায় সমস্বরে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করে হাজারো মানুষ। চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারেও সমস্বরে জাতীয় সংগীত পরিবেশিত হয়।

নগরীর বন্দর-পতেঙ্গা আসনের সরকার দলীয় সাংসদ এম এ লতিফ সমুদ্রসৈকত এলাকায় সম্মিলিত কণ্ঠে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের আয়োজন করেন। সেখানে হাজারো মানুষ সমস্বরে জাতীয় সংগীতে কণ্ঠ মেলান।

বাংলাদেশ সময়: ১৩০০ঘণ্টা, মার্চ ২৬,২০১৪

বিয়ে করেছেন শিহাব-মম, গোপন ছিল চার বছর 
সন্দ্বীপে হাত-পা বেঁধে যুবক ‘খুন’
৫৭০ কোটি টাকা আয়কর আদায় চট্টগ্রামের মেলায়
নেদারল্যান্ডের নাইটহুড খেতাব পেলেন ফজলে হাসান আবেদ
পাকিস্তান থেকে উড়ে এলো ৮২ টন পেঁয়াজ


পুরুষের কান্নায় লজ্জা নেই: খোলা চিঠিতে শচীন
পাকুন্দিয়ায় মাইক্রোবাস-অটোরিকশা সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ২
সন্ত্রাসবাদ শুধু সরকারের নয় সব ধর্মের শত্রু: মনিরুল ইসলাম
ফরিদপুরের এএসপিকে হাইকোর্টে তলব
‘আমি নিঃস্ব হয়ে গেলাম’