php glass

‘লাখো কণ্ঠে সোনার বাংলা’

জেলা প্রশাসনের কর্মসূচিতে বিদ্যুৎ বিভ্রাট, খালি কণ্ঠে সোনার বাংলা

208 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton
নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন আয়োজিত ‘লাখো কণ্ঠে সোনার বাংলা’ কর্মসূচি জাতীয় সংগীত পরিবেশনের সময় বিদ্যুৎ ছিল না। ফলে মাইক ছাড়াই গাইতে হয়েছে ‘আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালাবাসি’।

চট্টগ্রাম: নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন আয়োজিত ‘লাখো কণ্ঠে সোনার বাংলা’ কর্মসূচি জাতীয় সংগীত পরিবেশনের সময় বিদ্যুৎ ছিল না।
ফলে মাইক ছাড়াই গাইতে হয়েছে ‘আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালাবাসি’। এতে জাতীয় সংগীতে নেতৃত্বদানকারী দলের সঙ্গে কণ্ঠ মেলাতে পারেননি হাজার হাজার শিক্ষার্থী। অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার আগেও একবার বিদ্যুৎ বিভ্রাটের ঘটনা ঘটে।  

জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে বিদ্যুৎ চলেও যাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীরা। তারা বলেন, বিদ্যুৎ বিভাগ সব সময় লোডশেডিং করে। তাই জাতীয় সংগীত পরিবেশনের সময়ও কি করতে হবে?

এমএ আজিজ স্টেডিয়ামের ১০০ গজের মধ্যেই বিদ্যুৎ বিতরণ অফিস। গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারণ ব্যাখ্যা চেয়েছেন বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক আব্দুল মান্নান।

তিনি বলেন,‘এমন গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে বিদ্যুৎ চলে যাওয়ার কারণ ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে বিদ্যুৎ বিভাগের কাছে।‘   ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ঢাকায় জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডের সাথে সমন্বয় রেখে নগরীর এমএম আজিজ স্টেডিয়ামে ‘লাখো কণ্ঠে সোনার বাংলা’ কর্মসূচি গ্রহণ করে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন।

৫২টি স্কুলের শিক্ষার্থী, মুক্তিযোদ্ধা, সরকারি কর্মকর্তারা এ কর্মসূচিতে অংশ নেন। বুধবার সকাল ১১টায় জাতীয় সংগীত পরিবেশন শুরু হয়। প্রথমবার জাতীয় সংগীত শেষ হওয়ার পর বিদ্যুৎ চলে যায়। পরে মাইক ছাড়াই জাতীয় সংগীতে কণ্ঠ মেলান সবাই।

নগরীর এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে জেলা প্রশাসন আয়োজিত ‘লাখো কণ্ঠে সোনার বাংলা’ কর্মসূচিতে জাতীয় সংগীতে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুসলেম উদ্দিন, চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের প্রশাসক ও উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ সালাম, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ আবদুল্লাহ, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক আব্দুল মান্নান, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার শফিকুল ইসলাম, ডিআইজি নওশের আলী খান, চট্টগ্রাম জেলার এসপি হাফিজ আক্তার, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা ও ৫২টি বিদ্যালয়ের কয়েকজ হাজার শিক্ষার্থী অংশ নেন। 

বাংলাদেশ সময়:১২১০ঘণ্টা, মার্চ ২৬, ২০১৪

আগরতলায় বন সংরক্ষণ বিষয়ক ৩ দিনের কর্মশালা
সেই কিশোরীকে ধর্ষণের পর হত্যা করেছিলেন হাফেজ মুজিবুল
বানিয়াচংয়ে ৩ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা
বাঘারপাড়ায় ৬৭১ বস্তা সরকারি চাল জব্দ
বগুড়া-সৈয়দপুর গ্যাস সরবরাহে জমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া শুরু


নারায়ণগঞ্জে ইটভাটার বিদ্যুৎ লাইনে জড়িয়ে শিশুর মৃত্যু
সিলেটে সেরা করদাতার সম্মাননা পাচ্ছেন ৩৫ জন
র‌্যাবের অভিযানে ৭ মাদকবিক্রেতা আটক
আগে নিজেদের আইন মানতে হবে
উৎসবমুখর পরিবেশে হবে মহানগর আ’লীগের সম্মেলন