php glass

জাতীয় সংগীতে কণ্ঠ মেলাবে চট্টগ্রামবাসীও

143 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton
মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আগামীকাল রাজধানীর জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে ‘লাখো কণ্ঠে সোনার বাংলা’ কর্মসূচির মধ্য দিয়ে বিশ্ব-রেকর্ড গড়বে বাংলাদেশ।

চট্টগ্রাম: মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আগামীকাল রাজধানীর জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে ‘লাখো কণ্ঠে সোনার বাংলা’ কর্মসূচির মধ্য দিয়ে বিশ্ব-রেকর্ড গড়বে বাংলাদেশ। স্মরণীয় এ আয়োজনের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে আগামীকাল সকাল এগারোটায় একইসঙ্গে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করবে চট্টগ্রামবাসী। এ উপলক্ষ্যে ইতোমধ্যেই আলাদাভাবে সকল আয়োজন শেষ করেছে চট্টগ্রামের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়
‘লাখো কণ্ঠে সোনার বাংলা’ কর্মসূচির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করবে শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারিরা। এ লক্ষ্যে মঙ্গলবার বেলা এগারোটায় এক মহড়াও অনুষ্ঠিত হয় বিশ্ববিদ্যালয় শহীদ মিনারে। এতে বিশ্ববিদ্যালয় উপ-উপাচার্য ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী, প্রক্টর সিরাজ উদ দৌলা সহ শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারি প্রক্টর আনোয়ার হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, ‘জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডের কর্মসূচির সঙ্গে একাত্মতা পোষণ করে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের সকল প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। আমাদের বিশ্বাস চট্টগ্রামের সবচেয়ে বড় আয়োজনটি বিশ্ববিদ্যালয়েই হবে।’|

ইউআইটিএস
বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে সর্বৃবৃহৎ জাতীয় পতাকা নিয়ে জাতীয় সংগীত গাইবে ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনলোজি অ্যান্ড সায়েন্সেস (ইউআইটিএস) এর শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারি প্রক্টর খোরশেদ আলী বাংলানিউজকে বলেন, ‘বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে রেকর্ড সংখ্যক মানুষের উপস্থিতিতে আমরা জাতীয় সংগীত পরিবেশনের উদ্যোগ নিয়েছে।’

সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট
নগরীর থিয়েটার ইনস্টিটিউটের সামনে সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের পাশাপাশি দিনব্যাপি কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। দিবসের কর্মসূচিতে রয়েছে আলোচনা সভা, মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ, আবৃত্তি, গণসঙ্গীত, উদ্দীপনামূলক দেশের গান, নৃত্য এবং নাটক। সকাল সাতটায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণের মাধ্যমে কর্মসূচি শুরু হবে।

সংসদ সদস্য এম এ লতিফ
নগরীর শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর মোড় থেকে নেভাল একাডেমি পর্যন্ত এলাকায় নদীর পাড়ে দাঁড়িয়ে জাতীয় সংগীত গাওয়ার কর্মসূচির আয়োজন করেছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য এম এ লতিফ। এছাড়া, একইস্থানে মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে তিনদিন ব্যাপী কর্মসূচি আয়োজন করা হয়েছে। কর্মসূচি উপলক্ষ্য নেভাল একাডেমির সন্নিকটে নদীর বুকে মঞ্চ তৈরি করা হবে। অনুষ্ঠান উপলক্ষে তিনদিনই চালু থাকবে ‘মখত খাই য’ দোকান। যেখানে বিনে পয়সায় পিঠা পুলিসহ বিভিন্ন ধরনের খাবার বিতরণ করা হবে।

মহানগর যুবলীগ
চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জড়ো হয়ে সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সংগীত গাওয়ার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

খেলাঘর, চট্টগ্রাম মহানগরী
সংগঠনের উদ্যোগে নগরীর চেরাগী মোড়ে জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হবে। খেলাঘর সংগঠকে রুবেল দাশ বাংলানিউজকে বলেন, ‘সাংস্কৃতিক পরিবেশনার মধ্য দিয়ে সকাল দশটা থেকেই আমাদের কর্মসূচি শুরু হবে। এগারোটায়  সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সংগীতে অংশ নিতে বিভিন্ন স্কৃল শিক্ষার্থীসহ সর্বস্তরের মানুষের উপস্থিতি প্রত্যাশা করছি।’

শুলকবহর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ
মুরাদপুর চত্বরে ঢাকার “লাখে কণ্ঠের সোনার বাংলা” এর আদলে সকাল ১০ টায় জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া হবে। মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষে সকল মানুষকে অংশগ্রহনের জন্য ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ সরওয়ার্দী অনুরোধ জানান।

বাংলাদেশ সময়: ২২০৩ ঘণ্টা, মার্চ ২৫, ২০১৪

পলাশবাড়ীতে গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ
সর্দি-জ্বরের সময় কিন্তু এখন!
না’গঞ্জ আদালতে রাসেলের জামিননামা দাখিল
পরীক্ষার খাতা নিয়ে ফেরার পথে দুর্ঘটনায় হল সুপারসহ আহত ৩
পুঁজিবাজারে সূচক সামান্য বাড়লেও কমেছে লেনদেন


রূপগঞ্জে ধারালো অস্ত্রসহ ডাকাত সন্দেহে আটক ২
শেখ হাসিনা সরকারের বিকল্প নেই: খাদ্যমন্ত্রী
গুজবে লবণ কেনার হিড়িক রোধে অভিযান
মীর নাসির ১৩, ছেলের ৩ বছরের দণ্ড হাইকোর্টে বহাল
‘ভাসানীর খামোশ আজ বড্ড প্রয়োজন ছিল’