php glass

‘ভিটেমাটি দখলের জন্য ১১ জনকে পুড়িয়ে মারে আমিন চেয়ারম্যান’

109 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি:বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton
চট্টগ্রামের বাঁশখালীর সাধনপুরের শীলপাড়ায় ১১ জনকে পুড়িয়ে হত্যা মামলায় সাধনপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আহসান উল্লাহ চৌধুরী এবং শচীন্দ্রলাল শীল সাক্ষ্য দিয়েছেন।

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের বাঁশখালীর সাধনপুরের শীলপাড়ায় ১১ জনকে পুড়িয়ে হত্যা মামলায় সাধনপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আহসান উল্লাহ চৌধুরী এবং শচীন্দ্রলাল শীল সাক্ষ্য দিয়েছেন।

মঙ্গলবার চট্টগ্রামের তৃতীয় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ লা মংয়ের আদালতে এ সাক্ষ্যগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, সাক্ষ্যে আহসান উল্লাহ চৌধুরী বলেন, কালীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা আমিনুর রহমান চৌধুরী শীলপাড়ায় পুকুর ও ভিটেমাটি দখলের জন্য দুর্বৃত্তদের দিয়ে ঘরে আগুন লাগিয়ে ১১ জনকে পুড়িয়ে মারেন বলে তিনি ঘটনার পর জেনেছিলেন।

অন্যদিকে শচীন্দ্রলাল শীল সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরির সময় ১১ জনের মধ্যে ১০ জনের লাশ শনাক্ত করেন বলে আদালতে সাক্ষ্য দেন। চারদিনের শিশু কার্তিক শীল পুড়ে অঙ্গার হয়ে গিয়েছিল বলে সাক্ষ্যে তিনি জানান।

উল্লেখ্য আগুনে পুড়ে মারা যাওয়া তেজেন্দ্র লাল শীলের ছোট ভাই শচীন্দ্র লাল শীলের তিন মেয়েও একইদিন আগুনে পুড়ে মারা যায়।

চট্টগ্রাম জেলা পিপি অ্যাডভোকেট আবুল হাশেম বাংলানিউজকে বলেন, ভিটেমাটি দখলের জন্য আমিন চেয়ারম্যান ১১ জনকে পুড়িয়ে মারেন বলে তৎকালীন চেয়ারম্যান আহসান উল্লাহ সাক্ষ্য দিয়েছেন। শচীন্দ্রলাল শীল সুরতহাল প্রতিবেদনের সাক্ষী হিসেবে সাক্ষ্য দিয়েছেন। আগামী ৭ এপ্রিল দু’জনকে জেরার সময় নির্ধারণ করেছেন আদালত।

চাঞ্চল্যকর এ মামলায় এ পর্যন্ত বাদিসহ পাঁচজনের সাক্ষ্য ও জেরা সম্পন্ন হয়েছে।

উল্লেখ্য ২০০৩ সালের ১৮ নভেম্বর রাতে বাঁশখালীর সাধনপুর ইউনিয়নের শীলপাড়ায় তেজেন্দ্র লাল শীলের বাড়িতে একই পরিবারের ১১ জনকে পুড়িয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

নির্মম খুনের শিকার ব্যক্তিরা হলেন, তেজেন্দ্র লাল শীল (৭০), তার স্ত্রী বকুল বালা শীল (৬০), ছেলে অনিল কান্তি শীল (৪২) ও তার স্ত্রী স্মৃতি রাণী শীল (৩০), তাদের মেয়ে মুনিয়া শীল (৭) ও রুমি শীল (১১), চারদিন বয়সী শিশু কার্তিক শীল, তেজেন্দ্রর ছোট ভাইয়ের মেয়ে বাবুটি শীল (২৫), প্র‍সাদী শীল (১৭), অ্যানি শীল (১৫) এবং তেজেন্দ্রর বেয়াই দেবেন্দ্র শীল (৭৫)।

এ ঘটনায় কয়েক দফা অভিযোগপত্র দাখিল, বাদির নারাজিসহ নানা নাটকীয়তার পর ২০১২ সালের ১৯ এপ্রিল ৩৮ আসামির বিরুদ্ধে সম্পত্তি দখল করতে গিয়ে পরিকল্পিত হত্যাকান্ডের ধারায় অভিযোগ গঠন করেন আদালত।  এরপর আদালতে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়।

তবে উচ্চ আদালতের নির্দেশে মামলার মূল আসামী আমিনুর রহমান বিচার কার্যক্রমের বাইরে আছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮২০ঘণ্টা, মার্চ ২৫,২০১৪

নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকির সঙ্গে একই সিনেমায় তাহসান
নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকির সঙ্গে একই সিনেমায় তাহসান
জমি সংক্রান্ত বিরোধে যুবককে এসিডে ঝলসে দিলো প্রতিপক্ষ
লবণসহ পণ্যের দাম বেশি রাখায় ৬২ হাজার টাকা জরিমানা
এনায়েতপুরে গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি গ্রেফতার


জয়পুরহাটে স্কুল ব্যাংকিং কনফারেন্স
দারুসসালামে পিস্তলসহ আাটক ১
গাছের ডাল কাটতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে শ্র‌মিক নিহত
পলাশবাড়ীতে গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ
সর্দি-জ্বরের সময় কিন্তু এখন!