ঢাকা, বুধবার, ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭, ০৩ মার্চ ২০২১, ১৮ রজব ১৪৪২

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

১১ হত্যা মামলা

আসামীর সঙ্গে যোগসাজশের অভিযোগ এপিপি’র বিরুদ্ধে

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৩২ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৫, ২০১৪
আসামীর সঙ্গে যোগসাজশের অভিযোগ এপিপি’র বিরুদ্ধে

চট্টগ্রাম: রাষ্ট্রপক্ষের কৌসুলী চট্টগ্রামের অতিরিক্ত জেলা পিপি (এপিপি) মো.নাছির উদ্দিনের বিরুদ্ধে আসামীর সঙ্গে যোগসাজশ করে চ‍াঞ্চল্যকর একটি মামলা পরিচালনার চেষ্টার গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। তার বিরুদ্ধে এ অভিযোগ তুলেছেন জেলা পিপি অ্যাডভোকেট আবুল হাশেম।

 

গত সোমবার চাঞ্চল্যকর বাঁশখালীর ১১ হত্যা মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ নিয়ে বিচারকের সামনে এ দু’জন কৌসুলীর মধ্যে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে। এর জের ধরে নাছির উদ্দিন পিপি আবুল হাশেমের বিরুদ্ধে আইন মন্ত্রণালয়ে অভিযোগ পাঠান।

 

অভিযোগের জবাব দিতে বুধবার ডাকা এক সংবাদ সম্মেলনে জেলা পিপি বলেন, এপিপি নাছির উদ্দিনের বাড়ি চন্দনাইশের বৈলতলী এলাকায়। ১১ হত্যা মামলার দু’জন আসামী আর্মি হাসান এবং আবু তৈয়বের বাড়িও তার বাড়ির পাশে। এজন্য আসামীর পক্ষে বশীভূত হয়ে অন্যায় লাভের চেষ্টায় নাছির বিধি লঙ্ঘন করে জেলা পিপি’র অজ্ঞাতে মামলা পরিচালনার চেষ্টা করেন।

 

আবুল হাশেম বলেন, নাছিরের বিরুদ্ধে আগেও অনেক অভিযোগ এসেছে। সে বিভিন্নজনের কাছে অন্যায় লাভের জন্য তদবির করে। অসততার অনেক মৌখিক অভিযোগ আমি পেয়েছি। কিন্তু ছোট ভাইয়ের দৃষ্টিতে দেখে আমি তার বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ নিইনি। তার আচরণ খারাপ, এ অভিযোগও আমার কাছে ছিল।

 

উল্লেখ্য চট্টগ্রামের তৃতীয় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ লা মংয়ের আদালতে মামলাটির বিচার চলছে। ওই আদালতের এপিপি ছিলেন নাছির উদ্দিন। গত ৩ ফেব্রুয়ারি এ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরুর সময় জেলা পিপি আদালতে উপস্থিত হয়ে তাকে না জানিয়ে সাক্ষ্যগ্রহণের পদক্ষেপ নেয়ার বিষয়ে এপিপি’র কাছে কৈফিয়ত চান। এসময় উত্তপ্ত বাক্যবিনিময়ের ঘটনা ঘটে।

 

পরে জেলা পিপি আবুল হাশেম তার স্বীয় ক্ষমতাবলে নাছির উদ্দিনকে এপিপি হিসেবে সব ধরনের মামলা পরিচালনা থেকে প্রত্যাহার করেন।

 

জেলা পিপি বলেন, মামলাটি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে বিচারাধীন ছিল। সময়মত ট্রায়াল শেষ করতে না পারায় সেটি পূর্বের বিচারিক আদালতে ফেরত যায়। নিয়ম অনুযায়ী ফেরত যাওয়ার বিষয়টি আমাকে অবগত করার কথা থাকলেও সেটি করা হয়নি। আমার মনে হচ্ছে নাছির উদ্দিন কূটকৌশলে আমার অজ্ঞাতে মামলাটির কেস ডায়েরি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল থেকে নিয়ে গেছে।

 

একই সংবাদ সম্মেলনে ১১ হত্যা মামলার বাদি বিমল শীল বলেন, দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল থেকে মামলা চলে যাবার পর এপিপি নাছির উদ্দিন একবার আমার দোকানে যান। সেখানে গিয়ে তিনি আমাকে জানান, ১১ হত্যা মামলা তিনি পরিচালনা করবেন। আমি যেন বিষয়টি পিপি সাহেবকে না জানাই।

 

বাদি বলেন, পিপি সাহেবের উপর আমার আস্থা আছে। আমি মনে করি, পিপি সাহেবের হাতে এ মামলা থাকলে ভালভাবে পরিচালিত হবে এবং আমরা ন্যায়বিচার পাব।

 

পিপি আবুল হাশেম বলেন, ফৌজদারি কার্যবিধির ৪৯৩ ধারা অনুযায়ী রাষ্ট্রপক্ষে মামলা কে পরিচালনা করবেন সেটি ঠিক করার এখতিয়ার আমার। অথচ আমাকেই অন্ধকারে রেখে নাছির চাঞ্চল্যকর একটি মামলা পরিচালনা করতে চেয়েছে।  

 

সংবাদ সম্মেলনে বাদি বিমল শীল বলেন, ৩ ফেব্রুয়ারি আমার ভাই নির্মল শীলসহ চারজন সাক্ষী হাজির করা হয়। অথচ তিনজন সাক্ষী হাজির হওয়ার বিষয়টি আমাকেই জানানো হয়নি।

 

পিপি বলেন, চারজন সাক্ষীকে এগজামিন করার দরকার ছিল। এগজামিন না করেই তাদের আদালতে হাজির করা হয়। আমি পিপি হিসেবে তো নাছিরকে এ মামলা পরিচালনার দায়িত্ব দিইনি। সে আমাকে না জানিয়ে এ মামলা পরিচালনার চেষ্টা করেছে, এটা সম্পূর্ণ অনৈতিক। এ মামলা পরিচালনার মত দক্ষতা ও সততা তার নেই।  

 

পিপি বলেন, নাছির আমার বিরুদ্ধে অশালীন আচরণের অভিযোগ তুলেছে। অথচ আমি সেদিন এ ধরনের কিছুই করিনি। বরং নাছির যা করেছে তা চরম অসৌজন্যমূলক।

 

তিনি বলেন, ১১ হত্যা মামলা অত্যন্ত স্পর্শকাতর মামলা। প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী, আইন মন্ত্রীর নজরে আছে এ মামলার কার্যক্রম। এজন্য মামলা পরিচালনায় অধিক গুরুত্ব দিয়ে আমরা একটি আইনজীবী প্যানেল করেছি। এই প্যানেলকে অন্ধকারে রেখে নাছির মামলা পরিচালনার চেষ্টা করেছে যা গুরুতর অন্যায়।

 

পিপি আবুল হাশেম বলেন, আমরা দ্রুত এ মামলার বিচার শেষ করতে চাই। আগামী তিন মাসের মধ্যে মামলার রায় পাওয়ার জন্য যত দ্রুততার সঙ্গে মামলা পরিচালনা করতে হয় আমরা তা-ই করব।

 

সংবাদ সম্মেলনে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পিপি অ্যাডভোকেট চন্দন তালুকদার, অতিরিক্ত জেলা পিপি চন্দন বিশ্বাসসহ রাষ্ট্রপক্ষের কৌসুলীরা উপস্থিত ছিলেন।

 

২০০৩ সালের ১৮ নভেম্বর চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার সাধনপুরের শীলপাড়ায় আগুনে পুড়িয়ে ১১ জনকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় বিমল শীল বাদি হয়ে বাঁশখালী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

 

বাংলাদেশ সময়: ১৬০০ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৫,২০১৪  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa