উচ্চ শিক্ষার মানোন্নয়নে দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা ইস্ট ডেল্টা’র

37 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

দক্ষ মানবসম্পদ গড়তে শিক্ষার্থীদের জন্য যুগোপযোগী ও আন্তর্জাতিক মানের সিলেবাস প্রণয়নে ইস্ট ডেল্টা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইডিইউ) দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন ইউনিভার্সিটির ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান।

php glass

চট্টগ্রাম: দক্ষ মানবসম্পদ গড়তে শিক্ষার্থীদের জন্য যুগোপযোগী ও আন্তর্জাতিক মানের সিলেবাস প্রণয়নে ইস্ট ডেল্টা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইডিইউ) দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন ইউনিভার্সিটির ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান।

তিনি বলেছেন,‘দেশের মেধাবী শিক্ষার্থীদের যোগ্য ও দক্ষ মানব সম্পদ হিসেবে গড়ে তুলতে ইস্ট ডেল্টা বিশ্ববিদ্যালয় কাজ করে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে শিক্ষার্থীদের ক্যাম্পাস ফ্যাসিলিটি, দক্ষতা উন্নয়ন, যুগোপযোগী সিলেবাস ও গবেষণার ক্ষেত্র প্রসারিত করার বিষয়ে ইডিইউ দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে। সে অনুযায়ী কার্যক্রমও শুরু হয়েছে।’

বাংলানিউজের সঙ্গে আলাপকালে বন্দরনগরী চট্টগ্রামের অন্যতম বেসরকারি উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ইস্ট ডেল্টা ইউনির্ভাসিটির মূল উদ্যোক্তা ও প্রতিষ্ঠাতা ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান উচ্চ শিক্ষায় তার পরিকল্পনার কথা জানান।

সাঈদ আল নোমান আমেরিকার বিখ্যাত সেন্ট্রাল মিশিগান ইউনিভার্সিটি থেকে ব্যবসায় প্রশাসন বিষয়ে স্নাতক সম্পন্ন করে লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিক্স থেকে ‘পাবলিক পলিসি ও ই-গর্ভানমেন্ট’ বিষয়ে মাস্টার্স (গবেষণাধর্মী) স্নাতকোত্তর করেন।

এরপর ইউনিভার্সিটি অব অক্সফোর্ড থেকে ‘কমপেয়ারেটিভ সোশ্যাল পলিসি’ বিষয়ে মাস্টার অব ফিলোসপি ডিগ্রি অর্জন করেছেন। বর্তমানে ‘লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিক্স’ এ ই-গর্ভমেন্ট বিষয়ে পিএইচডি প্রোগ্রামে গবেষণায় নিয়োজিত আছেন সাঈদ আল নোমান।

সম্প্রতি তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভবিষ্যত পরিকল্পনা, শিক্ষার ধরণ ও শিক্ষা কারিক্যুলামসহ বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেন বাংলানিউজের সাথে।

তিনি বলেন,‘বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধিক ছাত্র ভর্তি নয় শিক্ষার গুণগত মান বাড়ানোর দিকেই আমরা বেশি গুরুত্ব দিচ্ছি। গুণগত শিক্ষা ছড়িয়ে দিতেই বদ্ধপরিকর ইডিইউ।’

একই সঙ্গে বাস্তবমুখী ও যুগোপযোগী শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করতে ইস্ট ডেল্টা কাজ করে যাচ্ছে বলেও জানান সাঈদ আল নোমান।

ইডিইউকে গবেষণা কর্মের পীঠস্থানে পরিণত করার প্রত্যয় ব্যক্ত করে তিনি বলেন,‘শুধু পড়াশুনার ক্ষেত্রে নয়, বাস্তবমুখী শিক্ষার মাধ্যমে এই প্রতিষ্ঠানকে গবেষণা প্রতিষ্ঠানে পরিণত করার পরিকল্পনা রয়েছে।’

পাশাপাশি জ্ঞান আহরণ, অন্বেষণ ও জ্ঞান বিতরণের জন্য মডেল প্রতিষ্ঠান হিসেবেও মেলে ধরতে চান অক্সফোর্ডের স্কলার এই তরুণ শিক্ষানুরাগী।

সাঈদ আল নোমান বলেন, ‘ভৌত অবকাঠামোগত দিক থেকে অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের চেয়ে আমরা বেশ সচেতন। যা চাকরির বাজারে এবং কর্মক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের সবার চেয়ে এগিয়ে রাখে।’

শিক্ষার মান প্রসঙ্গে তিনি বলেন,‘বিদেশে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো নিয়ে র‌্যাংকিং হয়। শিক্ষার্থী অনুপাতে কতজন শিক্ষক আছেন তা যাচাই করা হয়। এনিয়ে সৃষ্টি হয় বিভিন্ন প্রতিযোগিতারও। তবে ভালো শিক্ষাটা সবাই দেয়ার চেষ্টা করে। আমরা সেই মানসম্মত শিক্ষাটা ছাত্র-ছাত্রীদের দিতে চাই।’

নানা সীমাবদ্ধতা তুলে ধরে সাঈদ আলম বলেন, ‘প্রাইভেট ইউনিভার্সিটিগুলোতে শ্রেণীকক্ষের সংকটসহ নানা অপ্রতুলতা আছে। অভাব রয়েছে ছেলে-মেয়েদের পাঠে মনোনিবেশ করার উপযুক্ত পরিবেশের। সেদিক থেকে ইডিইউ কিছুটা এগিয়ে আছে।’

‘একই সঙ্গে সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা ও সরকারি নীতিমালা অনুযায়ী শিক্ষক নিয়োগের পাশাপাশি ভালো স্কলার ও গবেষকদের প্রাধান্য দেয়া হয়।’ যোগ করেন তিনি।

প্রযুক্তি ও তথ্যগত শিক্ষা প্রসঙ্গে সাঈদ আল নোমান বলেন,‘ইডিইউতে ই-লাইব্রেরির মাধ্যমে এমন একটি সুযোগ সৃষ্টি করা হয়েছে,  যার মাধ্যমে ক্যাম্পাসে  বসেই দেশ বিদেশের বিখ্যাত সব জার্নাল পড়ার ব্যবস্থা রয়েছে। ই-বুকস সেন্টারের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের সামনে জ্ঞানের দ্বার মেলে ধরতে আইটি ল্যাবও চালু করা হয়েছে।’

ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন,‘শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশে এই প্রতিষ্ঠানে অনলাইনে অভিজ্ঞ শিক্ষকদের ক্লাস, ই-লাইব্রেরি, উন্নত ল্যাব সুবিধা, সুপরিসর অডিটোরিয়াম, ওয়াইফাই সুবিধা, নর্থ আমেরিকান কারিক্যুলাম, ব্ল্যাক বক্স সফটওয়ারের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট জমাদানের ব্যবস্থা রয়েছে।’

এছাড়া শিক্ষনবিশী শেষে চাকরির ক্ষেত্র তৈরিতে শিক্ষার্থীদের পর্যাপ্ত সহযোগিতা দেয়া হয় বলেও জানান তিনি।

ইডিইউ’র শিক্ষার্থীরা আমেরিকার মিশিগান ইউনিভার্সিটিতে পড়ার সুযোগ পাবে জানিয়ে সাঈদ আল নোমান বলেন,‘ইতোমধ্যে এই বিষয়ে উভয় প্রতিষ্ঠানের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক হয়েছে। এই সুবিধা কেবল ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির ছাত্র-ছাত্রীদের ক্ষেত্রেই  প্রযোজ্য।’

এছাড়া বিশ্ব বিখ্যাত অক্সফোড ইউনিভার্সিটি নিয়মিত ইস্ট ডেল্টার শিক্ষার্থীদের জন্য বই পাঠানোর আগ্রহ প্রকাশ করেছে বলেও তিনি জানান।

ইডিইউতে উচ্চবিত্তের পাশাপাশি গরীব মেধাবীদেরও পড়ার সুযোগ রয়েছে জানিয়ে সাঈদ আল নোমান বলেন,‘সমাজের অনেক ছেলে মেয়ে আছে যারা অর্থের অভাবে উচ্চ শিক্ষার পাঠ নিতে পারেন না। ইস্ট ডেল্টা সেইসব মেধাবী ছেলে মেয়েদের খুঁজে বের করে।’

‘এরপর তাদেরকে পড়াশোনার পাশাপাশি কর্মক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠা পাওয়ার ক্ষেত্রেও সহযোগিতা করে। মেধাবী অথচ অস্বচ্ছল, দারিদ্র্য ও মুক্তিযোদ্ধার ছেলে-মেয়েরা ইস্ট ডেল্টায় অধ্যয়ন করছেন।’

ছাত্র-ছাত্রীদের সাফল্যের কথা তুলে ধরে প্রতিষ্ঠানটির ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান বলেন, ‘গত দুই বছরে দেশের সবকটি বড় ধরনের প্রতিযোগিতায় ভালো করেছে এখানকার  ছাত্র-ছাত্রীরা। ছিনিয়ে এনেছে পুরষ্কারও।’

এরমধ্যে দৃষ্টি ব্রেইন স্ট্রমিং, ইন্টারন্যাশনাল সাপ্লাই চেইন এডুকেশন অ্যালিয়েন্স (আইএসসিইএ), সোশ্যাল বিজনেস প্ল্যান কমপিটিশান, দক্ষিণ আফ্রিকার ওয়ান ইয়ং ওয়ার্ল্ড সম্মেলনে অংশ নেয় ইস্ট ডেল্টার শিক্ষার্থীরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৫৪ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৬, ২০১৪
টিসি

১০ বছর ধরে সিপিডি শুধু দোষই খুঁজেছে: হাছান মাহমুদ
ফোন চুরি যাওয়ায় সাংবাদিকদের আটকে রাখলেন শমী কায়সার!
এখন খান, সারা বছরের জন্য আচার করে রাখুন
শিক্ষাখাতে বরাদ্দ বৃদ্ধিতে কাজ করছে সরকার
গাজীপু‌রে ভবন থে‌কে নারীর গলাকাটা মর‌দেহ উদ্ধার


‘মানবিকতা না থাকলে সেই বিজ্ঞানের প্রয়োজন নেই’
ফুপু হামিদা খানমের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক
স্প্যানিশ সুপার কাপের ৬ মৌসুম সৌদি আরবে
মহালছড়িতে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার
প্রথম প্রান্তিকে বেড়েছে গ্রামীণফোনের রাজস্ব ও গ্রাহক