সব ক্ষেত্রে অসাম্প্রদায়িকতা চর্চার দাবি

68 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

শুধু চেতনায় নয়, সব ক্ষেত্রেই অসাম্প্রদায়িকতার চর্চার দাবি জানিয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি (সিইউটিএ)। একই সঙ্গে দেশজুড়ে সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনার প্রতিবাদ ও জড়িতদের গ্রেপ্তার করে কঠোর শাস্তির দাবিও জানিয়েছে সংগঠনটি।

php glass

চট্টগ্রাম: শুধু চেতনায় নয়, সব ক্ষেত্রেই অসাম্প্রদায়িকতার চর্চার দাবি জানিয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি (সিইউটিএ)। একই সঙ্গে দেশজুড়ে সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনার প্রতিবাদ ও জড়িতদের গ্রেপ্তার করে কঠোর শাস্তির দাবিও জানিয়েছে সংগঠনটি।

বুধবার বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকরা এ কর্মসূচি পালন করেছেন।

কর্মসূচিতে বক্তারা বলেন,‘সম্প্রীতির দেশ বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িকতার কোন স্থান নেই। এখানে হিন্দু,মুসলিম,বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান সব ধর্মের লোকজন একসঙ্গে যেমন একাত্তরে দেশের স্বাধীনতা অর্জন করেছে। ঠিক সেভাবেই ঐক্যবদ্ধভাবে যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশ গঠনে কাজ করেছে। এ দেশে কোন সাম্প্রদায়িকতার উর্বর ভূমি হতে পারে না।’

সংবিধানের ধারাবাহিকতা রক্ষায় দশম জাতীয় নির্বাচন জরুরি ছিল উল্লেখ করে তারা বলেন,‘দেশকে অসাম্প্রদায়িক ও যুদ্ধাপরাধীমুক্ত এবং সাংবিধানিক ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে নির্বাচন অনুষ্ঠান জরুরি ছিল। কিন্তু নির্বাচনের পর প্রতিক্রিয়াশীলরা দিনাজপুর, যশোরসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে। যা জঘন্য এবং ঘৃণ্যতম কাজ।’

বক্তারা বলেন,‘যারা এ ধরনের ঘৃণ্যতম ও জঘন্য কাজ করেছে তাদের গ্রেপ্তার করে কঠোর শাস্তি দিতে হবে। মুক্তিযুদ্ধ ও অসাম্প্রদায়িকতা শুধু চেতনায় নয় সব ক্ষেত্রেই অসাম্প্রদায়িকতার চর্চা করতে হবে। তবেই বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় একটি অসাম্প্রদায়িক ও গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে পরিণত হবে।’

সাম্প্রদাযিক হামলার বিরুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়ে তারা  এ ঘটনায় জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করে বিশেষ ট্রাইব্যুনালের মাধ্যমে বিচার কাজ সম্পন্ন করার দাবি জানিয়েছেন।  

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. মো. সেকান্দর চৌধুরীর সভাপতিত্বে মানববন্ধন ও সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী।

 শিক্ষক সমিতির যুগ্ম-সম্পাদক রেজাউল করিম ও সদস্য আবুল বশর মোহাম্মদ আবু নোমানের সঞ্চালনায়  সমাবেশে বক্তব্য দেন সমাজ বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. হোসাইন কবির, শিক্ষক সমিতির কোষাধ্যক্ষ সুকান্ত ভট্টাচার্য, সদস্য কাজী এসএম খসরুল আলম কুদ্দুসী, সাবেক সভাপতি প্রফেসর রুহুল আমিন, চারুকলা ইনস্টিটিউটের পরিচালক প্রফেসর ড. মো. জসিম উদ্দিন এবং প্রফেসর ড. তাপসী রায় প্রমুখ।

কর্মসূচিতে সংহতি জানিয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সনাতন ধর্ম পরিষদ, পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদ, চট্টগ্রামের সভাপতি ডা. একিউএম সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, কাউন্সিলর রেখা আলম চৌধুরী, আবৃত্তি শিল্পী রাশেদ হাসান এবং নারীনেত্রী জেসমিন সুলতানা পারুও বক্তব্য দেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৫, ২০১৪
সম্পাদনা: তপন চক্রবর্তী, ব্যুরো এডিটর

পর্যটনের প্রসারে গণমাধ্যমের ভূমিকা অপরিসীম
ফুলবাড়িয়ায় পৃথক ঘটনায় শিশুসহ ৩ মরদেহ উদ্ধার
শাহজালাল বিমানবন্দরে ১৪ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার
টেকসই উন্নয়নে বাড়াতে হবে প্রযুক্তির ব্যবহার
জনগণের সঙ্গে সহৃদয় আচরণ করুন, নেতাকর্মীদের ড. হাছান


মাদকবিক্রেতাকে না পেয়ে আসবাবপত্র পোড়ালো পুলিশ
রং-বেরঙয়ের ঘুড়িতে বর্ণিল নারায়ণগঞ্জের আকাশ
পাহাড়ে ম্যালেরিয়ায় বাঙালিদের মৃত্যুহার বেশি
জলঢাকার জোড়া লাগা সেই শিশুর পাশে দাঁড়ালেন ইউএনও
অধিনায়ক স্মিথের ব্যাটে জয় পেলো রাজস্থান