‘ইতিবাচক রাজনীতির মাধ্যমে আওয়ামী লীগকে তৃণমূলে পৌঁছে দিতে চাই’

29 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: সোহেল সরওয়ার/বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

একাধারে রাজনীতিবিদ ও ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব আ জ ম নাছির উদ্দিন। চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থা (সিজেকেএস) এর নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক। ২০১২ সালের ১১ জানুয়ারি চট্টগ্রামের জরাজীর্ণ ক্রীড়া অঙ্গনকে ...

php glass

চট্টগ্রাম: একাধারে রাজনীতিবিদ ও ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব আ জ ম নাছির উদ্দিন। চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থা (সিজেকেএস) এর নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক। ২০১২ সালের ১১ জানুয়ারি চট্টগ্রামের জরাজীর্ণ ক্রীড়া অঙ্গনকে পাল্টানোর স্বপ্ন নিয়ে সিজেকেএসের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। পোর্ট সিটি ক্রিকেট লিগ (পিসিএল) এর চেয়ারম্যান।

নির্বাচিত হন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের(বিসিবি) পরিচালক।

পালন করেন ছাত্রলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের দায়িত্বও। এরপর শুরু করেন আওয়ামী লীগের রাজনীতি। সর্বশেষ গত ১১ নভেম্বর চট্টগ্রামের এ তরুণ নেতার হাতে নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দেন প্রধানমন্ত্রী ও দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনা।

রোববার রাতে সিজেকেএস কার্যালয়ে নগর আওয়ামী লীগের রাজনীতি, সংগঠনের অবস্থা, ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা ও জেলার ক্রীড়াঙ্গনসহ বিভিন্ন বিষয়ে বাংলানিউজের সঙ্গে কথা বলেন নগর আওয়ামী লীগ নেতা আ জ ম নাছির উদ্দিন।

বাংলানিউজকে তিনি বলেন, ‘গতানুগতিক ধারা থেকে বের হয়ে শক্তিশালী সাংগঠনিক পরিকল্পনা নিয়ে দলকে এগিয়ে নিতে কাজ শুরু করেছি। চট্টগ্রামের বীর পুরুষ এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর প্রজ্ঞা, অভিজ্ঞতা ও দক্ষতার সঙ্গে আমার দীর্ঘ সাংগঠনিক অভিজ্ঞতার সমন্বয় করে আওয়ামী লীগকে নগরীর তৃণমূল পর্যায় পর্যন্ত নিয়ে যেতে চাই।’

নগর আওয়ামী লীগের তরুণ এ নেতা বলেন, ‘গণতন্ত্রের মানস কন্যা ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীকে সভাপতি ও আমাকে সাধারণ সম্পাদক করে নগর আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন করেন, তখন অনেকের মধ্যে সংশয় ছিল, দলে সমন্বয়ের মধ্যে কাজ করা যায় কিনা!’

সাবেক মেয়র মহিউদ্দিন চৌধুরীকে অভিভাবক হিসেবে উল্লেখ করে আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন,‘তিনি (মহিউদ্দিন চৌধুরী) আমার অভিভাবক। অনেকের সংশয় দূর করে ইতোমধ্যে আমরা একে অপরের সঙ্গে সম্মিলিতভাবে কাজ শুরু করে দিয়েছি।’

তিনি বলেন,‘দলকে শক্তিশালী করার পাশাপাশি চট্টগ্রামবাসীর সার্বিক কল্যাণে ও চট্টগ্রামের সর্বস্তরের উন্নয়নে কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করতে চাই।’

নাছির উদ্দিন বলেন,‘একাত্তরে পরাজিত শক্তিরা দেশ-বিদেশে নানাভাবে অপতৎরতা শুরু করেছে। আমরা এখন কঠিন সময় অতিক্রম করছি। এই মুহূর্তে মুক্তিযুদ্ধের সকল শক্তিকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এসব অপতৎরতার
মোকাবেলা করতে হবে।’

দলের সাংগঠনিক কার্যক্রম তৃণমূলে পৌঁছে দেওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘দলের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছি দুই মাস চলছে। এই সময়ের মধ্যে আমি দলসহ চট্টগ্রামের সর্বস্তরের মানুষের কাছে পৌঁছানোর চেষ্টা করেছি।’

বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের আন্তরিকতা আস্থা ও বিশ্বাসে মুগ্ধ এবং অনুপ্রানিত করেছে বলেও উল্লেখ করেন তারুণ্যের প্রিয় এই নেতা।

প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন,‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে আস্থা ও বিশ্বাস রেখে আমাকে দলের যে দায়িত্ব দিয়েছেন, তা রক্ষা করতে প্রয়োজনে নিজের জীবন উৎসর্গ করতেও
রাজি আছি।’

সাম্প্রতিক রাজনৈতিক সংকটের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘প্রতিহিংসার রাজনীতি আওয়ামী লীগ বিশ্বাস করে না। আমরা গঠনমূলক ও ইতিবাচক রাজনীতির চর্চা করতে চাই।’

ছাত্রজীবনের স্মৃতিচারণায় তিনি বলেন,‘ছাত্রজীবনটাই মানুষের মূল্যবান সময়। এসময় নিয়মিত পড়াশোনাকেই প্রাধান্য দিতে হবে। আমার কর্মীদের সবসময় বলেছি, প্রতিসপ্তাহে অন্তত একজন ছাত্রের কাছে দলের আদর্শের কথা তুলে ধরো। দলকে তৃণমূলে পৌঁছে দিতে এর চেয়ে ভালো আর কোনো উপায় নেই।’

রাজনীতির বাইরে বন্দরনগরীর ক্রীড়াঙ্গনেও সমান জনপ্রিয় আ জ ম নাছির উদ্দিন। সিজেকেএসের দায়িত্ব নেওয়ার পর চট্টগ্রামের জরাজীর্ণ ক্রীড়া অঙ্গনকে পাল্টে দিয়েছেন। তিনি বলেন, বাবা চট্টগ্রামের ক্রীড়াঙ্গনে যুক্ত থাকায় শৈশব থেকেই খেলাধুলার প্রতি তার বিশেষ অনুরাগ। ক্রিকেট, ফুটবল থেকে শুরু করে প্রতিটি খেলায় রয়েছে তার সমান পদচারণা।’

চট্টগ্রামের ক্রীড়াঙ্গন নিয়ে এ ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব বলেন,‘নিয়মিত খেলাধুলারআয়োজন না করা নিয়ে সিজেকেএসের বিরুদ্ধে বড় একটা অভিযোগ ছিল। সে অভিযোগ থেকে সিজেকেএসকে মুক্ত করেছি। আমি দায়িত্ব নেওয়ার পর ১২ মাসই বিভিন্ন টুর্নামেন্টের আয়োজন করেছি।’

তিনি বলেন, ‘আমরা ক্রীড়াঙ্গনে চট্টগ্রামের হারানো গৌরব ফিরিয়ে আনতে চাই। এ জন্য বছর জুড়ে ক্রিকেট ও ফুটবলসহ সব ধরনের খেলাধুলার আয়োজন করার উদ্যোগ নিয়েছি। পাশাপাশি খেলোয়াড়, রেফারি ও আম্পায়ারদের উন্নতমানের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাও করা হচ্ছে। এছাড়া স্কুল ও কলেজ পর্যায়ে প্রতিযোগীতার আয়োজন করা হবে যাতে এ লেভেল থেকে ভালো ভালো খেলোয়াড় তৈরি হয়।’

তিনি আরো বলেন,‘চট্টগ্রাম থেকে যাতে আরো বেশি খেলোয়াড় জাতীয় দলে খেলতে পারে সে জন্য টি টোয়েন্টি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের আয়োজন করেছি।

যেখানে জাতীয় ও স্থানীয় দলের খেলোয়াড়রা খেলেছে। এতে করে স্থানীয় খেলোয়াড়রা জাতীয় দলের তারকা খেলোয়াড়দের কাছ থেকে অভিজ্ঞতা অর্জনের সুযোগ পেয়েছে।’

আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন, ‘রাজনীতি আর খেলাধুলা দুই-ই সমানভাবে চালিয়ে যেতে পারছি। কোনটাতেই সমস্যা হচ্ছে না।’

বাংলাদেশ সময়: ১৮২২ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৪, ২০১৪
টিসি

সৈয়দপুরে ২ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ‘সততার দোকান’
গবেষকদের সহযোগিতা করতে হবে: মেয়র
রূপসায় ট্রাকচাপায় স্কুলশিক্ষক নিহত
বাস চালককে পিটিয়ে হত্যা, চট্টগ্রামে পরিবহন ধর্মঘটের ডাক
বই দিবসের ছড়া | আলেক্স আলীম 


ফের ঢাকা-দিল্লি রুটে ফ্লাইট চালু করছে বিমান
ময়মনসিংহে মানবপাচারকারী চক্রের ২ সদস্যসহ আটক ১৪
চট্টগ্রামে নিরাপত্তা জোরদার
দক্ষিণ আফ্রিকায় বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা
আবার ‘টিরিগিরি টক্কা’