ট্রাক-কাভার্ডভ্যানে আগুন দিয়ে উত্তাপ ছড়ানোর চেষ্টা

34 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজ ফাইল ফটো

ট্রাক-কাভার্ডভ্যানে আগুন দিয়ে আতঙ্ক তৈরির চেষ্টার মাধ্যমে বন্দরনগরী চট্টগ্রামে চলছে বিরোধী জোটের ডাকা পঞ্চম দফা ৮৩ ঘণ্টা অবরোধের শেষ দিন।

চট্টগ্রাম: ট্রাক-কাভার্ডভ্যানে আগুন দিয়ে আতঙ্ক তৈরির চেষ্টার মাধ্যমে বন্দরনগরী চট্টগ্রামে চলছে বিরোধী জোটের ডাকা পঞ্চম দফা ৮৩ ঘণ্টা অবরোধের শেষ দিন। এদিন নগরীতে কোন ধরনের অপ্রীতিকর কোন ঘটনা না ঘটলেও ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সীতাকুণ্ডে গভীর রাতে ট্রাক কাভার্ডভ্যানে আগুন দিয়ে উত্তাপ ছড়ানোর চেষ্টা করেছে অবরোধকারীরা।  

এছাড়া মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত নগরী কিংবা জেলায় বড় ধরনের অপ্রীতিকর কোন ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, অবরোধের সমর্থনে সোমবার দিনগত গভীর রাত পৌনে ২টার দিকে মহাসড়কের মাদামবিরি হাট এলাকায় একটি গাড়িতে আগুন দেয় পিকেটাররা। প্রায় কাছাকাছি সময়ে ছোট দারোগারহাটও একটি কাভার্ডভ্যানে আগুন ধরিয়ে দেয় তারা।

এসময় ওই কাভার্ডভ্যানে ভাংচুরও চালায় অবরোধ সমর্থকরা। এছাড়া বারবকুণ্ড এলাকাতেও একটি ট্রাকে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করে আগুন দেয়া হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

সীতাকুণ্ড থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইফতেখার উদ্দিন বাংলানিউজকে জানান, প্রায় একই সময়ে এসব নাশকতা সৃষ্টির চেষ্টা করে অবরোধকারীরা। পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার আগেই তারা পালিয়ে গেছে।

তবে এসব ঘটনায় কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি বলে তিনি জানান।

এদিকে নগরীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, অবরোধের মধ্যেও মানুষ স্বাভাবিকভাবেই কর্মস্থলে ছুটছেন। রাস্তায় বাস, অটোরিক্সা, হিউম্যান হলারসহ বিভিন্ন গণপরিবহনের চলাচল করছে।

তবে ভোরে গণপরিবহন অপর্যাপ্ত থাকায় নিম্ন আয়ের মানুষদেরকে কিছুটা দুর্ভোগ পেতে হচ্ছে। এছাড়া বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে রাস্তায় নেমেছে ব্যক্তিগত যান ও খুলতে শুরু করেছে বিভিন্ন বিপণি বিতানও।

নগর পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) হারুন অর রশিদ হাজারী বাংলানিউজকে বলেন,‘এখনও পর্যন্ত কোন নাশকতার খবর পাইনি।’

এদিকে অবরোধে নগরীতে নাশকতা এড়াতে প্রায় দু’হাজার দু’শ অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। জেলায়ও মোতায়েন আছে প্রায় তিন হাজার অতিরিক্ত পুলিশ।

এছাড়া নগরীতে ছয় প্লাটুন বিজিবি সদস্যকে সহিংসতা মোকাবেলার জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। জেলার সীতাকুণ্ডে চার প্লাটুন বিজিবি সদস্য মোতায়েন আছে।

নগর পুলিশের ডিসি (সদর) মাসুদ উল হাসান জানান,নগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে অতিরিক্ত পুলিশসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা মোতায়েন আছে।

চট্টগ্রাম বন্দরে পণ্য উঠানামা স্বাভাবিক আছে। খুলতে শুরু করেছে সিইপিজেডসহ নগরীর বিভিন্ন এলাকার রপ্তানিমুখী কারখানাও।

এদিকে সীতাকুণ্ডে রাতে ও ভোরে মহাসড়কে উত্তাপ ছড়ানোর চেষ্টা করলেও বর্তমানে ওই রুটে যান চলাচল করছে। তবে দূরপাল্লার কোন যান চলছে না বলে সংশ্লিষ্টরা জানান।

বার আউলিয়া হাইওয়ে থানার পুলিশের ওসি সৈয়দ জাকির হোসেন জানান, ভোরে ফৌজদারহাট বাজার এলাকায় একটি গরুবোঝাই ট্রাকে আগুন দেয় অবরোধকারীরা। তবে বর্তমানে মহাসড়ক স্বাভাবিক রয়েছৈ।

এছাড়া দক্ষিণ চট্টগ্রামেও ঢিলেঢালাভাবে অবরোধ চলছে। রাস্তায় নেমে নেমেছে বিভিন্ন যানও। তবে কোন দূরপাল্লার গাড়ি চলাচল করছে না।

সাতকানিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) কামাল উদ্দিন বাংলানিউজকে বলেন,‘রাত থেকে এ পর্যন্ত কোন নাশকতার খবর পাইনি। চট্টগ্রাম-কক্সবাজার সড়কে সীমিত আকারে যান চলাচল করতেও দেখা গেছে।’

প্রসঙ্গত, ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের তফসিল বাতিলের দাবিতে নৌ,সড়ক ও রেল পথে পঞ্চম দফায় গত শনিবার সকাল ৬টা থেকে ৮৩ ঘণ্টার অবরোধ পালন করছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোট।

বাংলাদেশ সময়: ০৯১৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৪,২০১৩
সম্পাদনা: তপন চক্রবর্তী, ব্যুরো এডিটর

বগুড়ায় মা ভবানী মন্দিরে পূণ্যার্থীদের মিলনমেলা
জাবিতে র‌্যাগিং বন্ধে প্রশাসনের ভিন্নধর্মী পদক্ষেপ
সালমান মুক্তাদিরকে সিটিটিসির জিজ্ঞাসাবাদ
বইমেলায় বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা
সিআইইউতে প্রোগ্রামিং কনটেস্টে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই


আপিলের নথি গায়েবের অভিযোগ স্বতন্ত্র প্রার্থীর
সম্পদ বিবরণী দাখিল না করায় দুদকের চার্জশিট
নাজিরপুরে প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার 
ঐক্যফ্রন্টের গণশুনানি এগিয়ে ২২ ফেব্রুয়ারি
চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের ‘নির্বাচনে বাধা নেই’