হরতাল-অবরোধে স্বাভাবিক বন্দরনগরী

70 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে বন্দরনগরী চট্টগ্রামে চলছে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ১৮দলের ডাকা অবরোধের তৃতীয় দিন ও নগর ছাত্রদলের ডাকা হরতাল। অবরোধের মধ্যে নগরী ও জেলায় যানবাহন চলাচল প্রায় স্বাভাবিক। তবে দূরপাল্লার যানবাহন চলাচল প্রায় বন্ধ আছে।

চট্টগ্রাম: কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে বন্দরনগরী চট্টগ্রামে চলছে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ১৮দলের ডাকা অবরোধের তৃতীয় দিন ও নগর ছাত্রদলের ডাকা হরতাল। অবরোধের মধ্যে নগরী ও জেলায় যানবাহন চলাচল প্রায় স্বাভাবিক। তবে দূরপাল্লার যানবাহন চলাচল প্রায় বন্ধ আছে।

অবরোধের মধ্যে হরতালের সমর্থনে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে রোবভার গভীর রাতে কাভার্ডভ্যানে আগুন ধরিয়ে দেয় পিকেটাররা।  

এছাড়া সোমবার সকাল পর্যন্ত নগরী কিংবা জেলায় বড় ধরনের অপ্রীতিকর কোন ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, অবরোধ ও হরতালের সমর্থনে রোববার রাতে সীতাকুণ্ড ইকোপার্ক গেইটের কাছাকাছি এলাকায় দুটি কাভার্ডভ্যানে আগুন ধরিয়ে দেয় পিকেটাররা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

এছাড়া একই সময় ফৌজদারহাট এলাকায় একটি কাভার্ডভ্যানে আগুন দেয়ার চেষ্টা করে। এসময় ভ্যানটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়। এসব ঘটনায় কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

সীতাকুণ্ড সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) সালাউদ্দিন শিকদার বাংলানিউজকে জানান, এছাড়া কোন অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাইনি। যানবাহনও মোটামুটি চলাচল করছে।

নগরীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, বাস, অটোরিক্সা, হিউম্যান হলারসহ বিভিন্ন গণপরিবহনের চলাচল স্বাভাবিক আছে। মানুষ স্বাভাবিকভাবেই কর্মস্থলে যাচ্ছেন। তবে ভোরে গণপরিবহন কম থাকায় তাদের কিছুটা দুর্ভোগ পেতে হচ্ছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে রাস্তায় নেমেছে ব্যক্তিগত যানও।

নগর পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) হারুন অর রশিদ হাজারী বলেন,‘এখনও পর্যন্ত কোন নাশকতার খবর পাইনি।শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি চলছে।’

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নগরীতে প্রায় দু’হাজার দু’শ অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। জেলায়ও মোতায়েন আছে প্রায় তিন হাজার অতিরিক্ত পুলিশ।

এছাড়া নগরীতে ছয় প্লাটুন বিজিবি সদস্যকে সহিংসতা মোকাবেলার জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। জেলার সীতাকুণ্ডে চার প্লাটুন বিজিবি সদস্য মোতায়েন আছে।

নগর পুলিশের ডিসি (উত্তর) হারুন অর রশিদ হাজারী বলেন,‘নগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে অতিরিক্ত পুলিশসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা মোতায়েন আছে।’

চট্টগ্রাম বন্দরে পণ্য উঠানামা স্বাভাবিক আছে। খুলতে শুরু করেছে সিইপিজেডসহ নগরীর বিভিন্ন এলাকার রপ্তানিমুখী কারখানাও।

এদিকে দক্ষিণ চট্টগ্রামেও ঢিলেঢালাভাবে অবরোধ ও হরতাল চলছে। সাতকানিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) কামাল উদ্দিন জানান, চট্টগ্রাম-কক্সবাজার সড়ক স্বাভাবিক রয়েছে। সীমিত আকারে যান চলাচল করতেও দেখা গেছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৭৪৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৩,২০১৩
সম্পাদনা: তপন চক্রবর্তী, ব্যুরো এডিটর।

লক্ষ্মীছড়িতে ট্রাক্টর উল্টে ২ শ্রমিক নিহত
বইমেলায় রশিদ হারুনের ‘সময় ভেসে যায় বৃষ্টির জলে’
শার্ট-টুকরো দেখে মরদেহ দাবি, মিলছে না ডিএনএ টেস্ট ছাড়া
এখনো নজরুল, এখনো রবীন্দ্রনাথ
‘রোহিঙ্গাদের হামলার ঘটনা দুঃখজনক’


অধ্যক্ষকে ময়লা পানি-চেয়ার ছুড়ে লাঞ্ছিত করলো দুর্বৃত্তরা
মোংলায় যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার
নিউজিল্যান্ডের বাতাস সামলাতে শিখে গেছে টাইগাররা
বোমা মেশিন বন্ধে বনমন্ত্রীর হুঁশিয়ারি
১৯ বছর পর বানসালীর সিনেমায় সালমান