পাহাড়ে ভোটের মাঠে তিন আঞ্চলিক দল

34 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পার্বত্য চট্টগ্রামে অংশ নিচ্ছে তিন আঞ্চলিক রাজনৈতিক সংগঠন। এই তিন সংগঠন হলো- সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (পিসিজেএসএস-সন্তু), প্রসিত খীসার নেতৃত্বাধীন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ) এবং সুধাসিন্ধু খীসার নেতৃত্বাধীন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি(এমএনলারমা)।

php glass

রাঙামাটি: দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পার্বত্য চট্টগ্রামে অংশ নিচ্ছে তিন আঞ্চলিক রাজনৈতিক সংগঠন। এই তিন সংগঠন হলো- সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (পিসিজেএসএস-সন্তু), প্রসিত খীসার নেতৃত্বাধীন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ) এবং সুধাসিন্ধু খীসার নেতৃত্বাধীন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি(এমএনলারমা)।

এদিকে পাহাড়ের আঞ্চলিক দলগুলোর নির্বাচনী লড়াইয়ে ভিন্নমাত্রা যোগ হচ্ছে এবার। প্রত্যেকের নির্দিষ্ট রাজনৈতিক দলের প্রার্থী হলেও নির্বাচনী মাঠে থাকতে হবে স্বতন্ত্র প্রার্থী পরিচয়েই। কারণ সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতার কারণে নির্বাচন কমিশন কোনো আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলকে নিবন্ধন দেয়নি।

ইউপিডিএফ মুখপাত্র মাইকেল চাকমা বাংলানিউজকে বলেন, আমরা জয়ের জন্যই মাঠে নেমেছি। আমরা জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী।

পাহাড়ের তিনটি সংগঠনেরই নির্বাচনে অংশ নেওয়া সম্পর্কে তিনি বলেন, সবার অধিকার আছে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার। তবে আমরাতো সব সময়ই সমঝোতা’র কথা বলি। নির্বাচনকেন্দ্রিক সমঝোতাও হতে পারে,যদি তারা চায়।

জনসংহতি সমিতি(এমএনলারমা) এর কেন্দ্রীয় নেতা রূপায়ন দেওয়ান বলেন, পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়নের জন্যই আমরা মনে করেছি সংসদে যাওয়া দরকার। সংসদে এবং সংসদের বাইরে চুক্তি বাস্তবায়নের দাবি একযোগে করা গেলে বাস্তবায়নের সম্ভাবনা আরও বাড়বে।

পাহাড়ের তিনটি রাজনৈতিক দলই নির্বাচনে যোগ দেওয়ায় ভোটের রাজনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে স্বীকার করে তিনি বলেন, জনগণ চাইলে যে কোনো ধরনের নির্বাচনী সমঝোতা হতে পারে।

অন্যদিকে রাঙামাটি আসনের প্রার্থী ও জনসংহতি সমিতির কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি উষাতন তালুকদার বলেন, আমরা বিজয়ী হওয়ার জন্যই নির্বাচনে নেমেছি। পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়নসহ আদিবাসীদের ভূমি অধিকারসহ সব সম্প্রদায়ের অধিকার প্রতিষ্ঠার দাবি সংসদে তুলে ধরা প্রয়োজন।

অন্য দুই আঞ্চলিক দলের সঙ্গে নির্বাচনী সমঝোতার বিষয়ে এখনো কোনো আলোচনা হয়নি বলেও জানান তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৭, ২০১৩
সম্পাদনা: মিলিতা বাড়ৈ, নিউজরুম এডিটর

শিক্ষাখাতে বরাদ্দ বৃদ্ধিতে কাজ করছে সরকার
গাজীপু‌রে ভবন থে‌কে নারীর গলাকাটা মর‌দেহ উদ্ধার
‘মানবিকতা না থাকলে সেই বিজ্ঞানের প্রয়োজন নেই’
ফুপু হামিদা খানমের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক
স্প্যানিশ সুপার কাপের ৬ মৌসুম সৌদি আরবে


মহালছড়িতে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার
প্রথম প্রান্তিকে বেড়েছে গ্রামীণফোনের রাজস্ব ও গ্রাহক 
মান্দায় বিষপানে দেড় বছরের শিশুর মৃত্যু
লাউয়াছড়া থেকে নবজাতক উদ্ধার
প্রেসক্রিপশন ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক বিক্রি বন্ধে রিট