ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৯ রবিউস সানি ১৪৪২

ক্রিকেট

তামিমদের হারিয়ে ফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখলেন মাহমুদউল্লাহরা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২৫৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৯, ২০২০
তামিমদের হারিয়ে ফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখলেন মাহমুদউল্লাহরা

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপের ফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রেখেছে মাহমুদউল্লাহ একাদশ। টুর্নামেন্টের পঞ্চম ম্যাচে তামিম একাদশকে ৪ উইকেটে হারিয়ে দ্বিতীয় জয় তুলে নিয়েছে মাহমুদউল্লাহর দল।

ফলে ফাইনালের আগে শেষ ম্যাচ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হচ্ছে দুই ফাইলালিস্ট নির্ধারণের জন্য।

মিরপুরে আগে ব্যাট করে ইয়াসির আলী রাব্বি ও মাহিদুল ইসলাম অঙ্কনের অর্ধশতকে ৮ উইকেটে ২২১ রান করে করে তামিম একাদশ। জবাবে ব্যাট করতে নেমে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মাহমুদুল হাসান জয়ের অর্ধ শতকে ৫ বল হাতে রেখে সহজ জয় তুলে নেয় মাহমুদউল্লাহ একাদশ।

২২২ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে পুরো টুর্নামেন্টে টপ অর্ডারের ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার ধারা অব্যাহত রাখে মাহমুদউইল্লাহ একাদশও। দলীয় ৮ রানের মধ্যেই বিদায় নেন দুই ওপেনার নাঈম শেখ (৩) ও লিটন দাস (৫)।

তৃতীয় উইকেট জুটিতে ৫০ রানের জুটি গড়ে শুরু চাপটা দূর করেন ইমরুল কায়েস ও মাহমুদুল হাসান জয়। অল্পের জন্য অর্ধশতক মিস করেন ইমরুল। ৪৯ রান করে আউট হলে ভাঙে ৮৬ রানের জুটি।

অন্যদিকে, ঠিকই ৮৬ বলে অর্ধ শতক তুলে নেন মাহমুদুল হাসান। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে গড়েন ৫৬ রানের জুটি। দলীয় ১৪৮ রানের মাথায় ৫৮ রান করে আউট হন মাহমুদুল।

এরপর অর্ধশতক তুলে নেন মাহমুদউল্লাহ। পঞ্চম উইকেটে মাহমুদউল্লাহ ও নুরুল হাসান সোহান আরও ৫০ যোগ করলে দলের জয় সহজ হয়ে যায়। রিয়াদ ৬৭ রান করে দলের জয় থেকে ৯ রান দূরে থাকতে আউট হন। সাব্বির রহমান ৩ রানে আউট হলেও ৫ বল হাতে রেখে জয়ে বন্দরে পৌঁছে যায় মাহমুদউল্লাহর দল। সোহান ২৬ রানে অপরাজিত ছিলেন।    

তামিম একাদশের সাইফউদ্দিন তিনটি এবং মোস্তাফিজুর রহমান, তাইজুল ইসলাম ও সৈয়দ খালেদ একটি করে উইকেট নেন।

এর আগে, টস জিতে ব্যাট করতে নেমে বরাবরের মতোই শুরুটা ভালো হয়নি তামিম একাদশের। রুবেল হোসেনের বোলিং তাণ্ডবে স্কোর বোর্ডে ১৭ রান তুলতেই সাজঘরে ফিরে যান তামিম ইকবাল (৯), তানজিদ হাসান তামিম (১), এনামুল হক বিজয় (১) ও মোহাম্মদ মিঠুন (২)। চাপে পড়ে যায় তামিমের দল।

পঞ্চম উইকেট জুটিতে সেই চাপ ভালোভাবেই সামাল দেন ইয়াসির আলী রাব্বি ও মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন। ১০০ রানের জুটি গড়েন তারা। ৭৩ বলে অর্ধশতক তুলে নেন রাব্বি।

দলীয় ১২৮ রানের মাথায় রাব্বি ৬২ রান করে রান আউট হলে ১১১ রানে পঞ্চম উইকেট জুটি ভাঙে। এরপর অঙ্কন ১০৩ বলে অর্ধশতক তুলে নেন। তবে এরপর আর বেশিদূর এগোতে পারেনি। ৫২ রান করে রুবেলের চতুর্থ শিকারে পরিণত হন।

মোসাদ্দেক হোসেন ও সাইফউদ্দিন সপ্তম উইকেট জুটিতে আরও ৫০ রান যোগ করেন। মোসাদ্দেক ৪০ রান করে আউট হলে ভেঙে যায় ৭৫ রানের জুটি। সাইফউদ্দিন ৩৮ রানের আউট হলে শেষ পর্যন্ত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ২২১ রান করে তামিম একাদশ।

মাহমুদউল্লাহ একাদশের রুবেল চারটি, এবাদত হোসেন দুইটি ও আবু হায়দার রনি একটি উইকেট নেন।

বাংলাদেশ সময়: ২২৫৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৯, ২০২০
আরএআর/এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa