নীলফামারীতে বইছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

আগুন জ্বালিয়ে শীত নিবারণ করছে বৃদ্ধসহ কয়েক শিশু। ছবি: বাংলানিউজ

walton

নীলফামারী: নীলফামারীর ওপর দিয়ে বয়ে চলেছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। মঙ্গলবার (৭ জানুয়ারি) ভোর ৬টায় সৈয়দপুর বিমানবন্দর ও ডিমলা আবহাওয়া অফিস সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করেছে ৯ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। 

এদিকে হিমেল বাতাস আর ঘন কুয়াশায় শীতের তীব্রতা অনেক বেড়েছে। মধ্যরাতেও ছিন্নমূল ও নিম্নআয়ের মানুষকে আগুন জ্বালিয়ে শীত নিবারণ করতে দেখা গেছে। অপরদিকে কুয়াশার কারণে ট্রেন ও প্লেন সিডিউল মেনে চলাচল করতে পারছে না। 

হাসপাতালগুলোতে শীতজনিত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। গত রাতে জেলার সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে শীতজনিত রোগে (শ্বাসকষ্ট) অসুস্থ হয়ে তৈয়ব আলী নামে (৭০) এক বৃদ্ধ মারা গেছেন। তার বাড়ি চিরিরবন্দর উপজেলার বড় হাসিমপুর গ্রামে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। এছাড়া জেলার অন্যান্য হাসপাতালগুলোতে শীতজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে গড়ে তিন শতাধিক রোগী সেবা নিচ্ছে। 

ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে প্রতিদিন গড়ে ৪০-৫০ শিশু ভর্তি হচ্ছে। শীত কিছুটা বাড়ায় বিপাকে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। বেশি বিপাকে পড়েছেন খেছে খাওয়া শ্রমজীবী মানুষ। পেটের তাগিদে শীত উপেক্ষা করে বাধ্য হয়ে কাজে নামতে হচ্ছে এসব ছিন্নমূল মানুষকে।

এদিকে তীব্র শীত ও কুয়াশার কারণে বীজতলা ও আলু নিয়ে চিন্তায় পড়েছেন নীলফামারী জেলার কৃষকরা। 

জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা এস এ হায়াত জানান, শীতার্ত মানুষের মধ্যে এখন পর্যন্ত সরকারিভাবে ৪২ হাজার কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। আরও দুই হাজার কম্বল আসছে। যা দুই-এক দিনের মধ্যে পাওয়া যাবে। 

বাংলাদেশ সময়: ১৩৫২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৭, ২০২০
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: নীলফামারী
নীলফামারীতে নতুন করোনা পজেটিভ ১৭ জন
মালিঙ্গাকে পাশে পেলেন নিষিদ্ধ লঙ্কান পেসার মাদুশঙ্কা
সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতায় পুঁজিবাজারে লেনদেন চলছে
ওয়ালটন এসিতে বিদ্যুৎ খরচ ঘণ্টায় মাত্র ৩.৭৪ টাকা
করোনা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে একজনের মৃত্যু


কোভিড-১৯ থেকে বাঁচতে নিকোটিন!
লিফট-সিড়ি থেকেও হতে পারে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ!
করোনায় চলচ্চিত্র প্রযোজক মোজাম্মেল হক সরকারের মৃত্যু
বরিশাল বিভাগে ৬৭৫ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ১৪
যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে খেলতে চান বিশ্বকাপজয়ী ইংলিশ পেসার