জাবিতে প্রজাপতি মেলা

জাবি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

প্রজাপতি মেলার উদ্বোধন। ছবি: বাংলানিউজ

walton

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (সাভার): সাদা জালে মোড়ানো, ভেতরে গাছগাছালি, তার মাঝে ছুটছে নানা জাতের প্রজাপতি। কোনোটা হলুদ, কোনোটা নীল, কোনোটা সাদা। নানা রঙের প্রজাপতির এই ছুটে চলা দেখতে দেশের নানা প্রান্ত থেকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) এসেছে শত শত দর্শনার্থী। ‘উড়লে আকাশে প্রজাপতি, প্রকৃতি পায় নতুন গতি’ বরাবরের ন্যায় এ স্লোগানে জাবিতে বর্ণিল এই প্রজাপতি মেলার আয়োজন করা হয়েছে। ১০ম বারের মতো আয়োজিত এই মেলায় ১০ প্রজাতির প্রজাপতি প্রদর্শিত হয়েছে।

শুক্রবার (২০ ডিসেম্বর) বেলা ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের জহির রায়হান মিলনায়তনে মেলার উদ্বোধন করেন জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন আব্দুল জব্বার হাওলাদার।

প্রজাপতিকে পরিচিত করে তুলতে এবং সংরক্ষণের লক্ষ্যে এবারের মেলাতে নানান কর্মসূচি রাখা হয়েছে বলে জানান মেলার আহ্বায়ক অধ্যাপক মনোয়ার হোসেন তুহিন। তিনি বলেন, র‌্যালি, শিশু-কিশোরদের জন্য প্রজাপতি বিষয়ক ছবি আঁকা ও কুইজ প্রতিযোগিতা, প্রজাপতি বিষয়ক আলোকচিত্র প্রতিযোগিতা ও প্রদর্শনী, জীবন্ত প্রজাপতি প্রদর্শন, প্রজাপতির আদলে ঘুড়ি উড়ানো প্রতিযোগিতা, বারোয়ারি বিতর্ক প্রতিযোগিতা, প্রজাপতি বিষয়ক ডকুমেন্টরি প্রদর্শনীর আয়োজন রাখা হয়েছে। এর মাধ্যমে আমরা প্রজাপতি সম্পর্কে মানুষের জানা-শোনা বাড়াতে চাই, পাশাপাশি পরিবেশকে রক্ষা করতে চাই।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রকৃতি ও জীবন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মুকিত মজুমদার বাবু বলেন, প্রজাপতি রক্ষার মাধ্যমে প্রকৃতি রক্ষার যে আহ্বান, সেটা গুরুত্বপূর্ণ। এদের রক্ষার মাধ্যমে প্রকৃতি রক্ষা পাবে। অন্যথা আমাদের সবকিছু হারিয়ে যাবে। প্রজাপতিকে ভালো না রাখলে পরিবেশ ঠিক থাকবে না। পরিবেশ ঠিক রাখতে হলে প্রজাপতিকে বাঁচিয়ে রাখবে। প্রজাপতি শুধু সৌন্দর্যের ব্যাপার নয়, বাস্তুতন্ত্রের ভারসাম্য বজায় রাখতে প্রজাপতি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

আইসিইউএন’র সাবেক কান্ট্রি ডিরেক্টর ইশতিয়াক উদ্দিন আহমেদ বলেন, প্রজাপতি একক কোনো জীবন নয়। প্রজাপতি এই পরিবেশের সঙ্গে মিশে থাকে। সুতরাং এই পরিবেশ না থাকলে প্রজাপতিও থাকবে না। যেখানেই উন্নয়ন হয় সেখানেই প্রথম বলিদান হয় বৃক্ষ। এটা যেন না হয়। একটা বনের উপাদান যেমন বৃক্ষ, বিভিন্ন প্রাণী ঠিক তেমন একটি সুস্থ বনের নির্দেশিকা হলো প্রজাপতি। যে বনে যত বেশি প্রজাপতি থাকবে, সেই বন তত বেশি সুস্থ।’

প্রজাপতি মেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক আব্দুল জব্বার হাওলাদার, অধ্যাপক সাদিয়া আহমদ, পাখি বিশেষজ্ঞ ইনাম আল হক, বন অধিদপ্তরের বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটের পরিচালক এএসএম জহির উদ্দিন আকন্দ, কিউটের ব্যবস্থাপক মাতলুব আক্তার প্রমুখ।

এবারের মেলায় প্রজাপতি বিষয়ক গবেষণায় বিশেষ অবদানের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক এমএ বাশারকে ‘বাটারফ্লাই অ্যাওয়ার্ড-২০১৯’ এবং সবুজবাগ সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী অরুণাভ ব্রুণোকে ‘বাটারফ্লাই ইয়াং এন্থুসিয়াস্ট’ অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২০, ২০১৯
এসএ/

Nagad
সোনাইমুড়ীতে চাঁদাবাজির প্রতিবাদ করায় আ'লীগ নেতাকে গুলি
ঘরের মাঠে ফিরেই জয় পেল চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল
গুলশানে ট্রাক চাপায় বাইসাইকেল চালকের মৃত্যু
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়
করোনায় মারা গেলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক ডিজি


করোনায় মারা গেলেন ফেনীর সাংবাদিকতার বাতিঘর করিম মজুমদার
অক্সিমিটারসহ ১০০ অক্সিজেন  সিলিন্ডার দিল সাইফ পাওয়ারটেক
বগুড়ায় করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে ৩ জনের মৃত্যু
ইয়াবা বিক্রি করতে এসে র‌্যাবের হাতে আটক
বর্ষাকালে ইচ্ছে আমার | শাহজাহান সিরাজ