বর্ষণে বিপর্যস্ত পটুয়াখালী উপকূলের জনজীবন

স্টাফ ক‌রেসপ‌ন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

রাস্তাঘাটের শোচনীয় হাল

walton

পটুয়াখালী: কখনো ভারী, কখনো মাঝারি আবার কখনো গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হচ্ছে পটুয়াখালীর উপকূলীয় এলাকায়।টানা বর্ষণে বিপর্যস্ত হয়ে উঠেছে উপকূলীয় কলাপাড়া, রাঙ্গাবালী উপজেলার মানুষের জীবন।

php glass

গত কয়েকদিনের বর্ষণে যোগাযোগ প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে পরেছে নদীবহুল দুই উপজেলা সদরের সাথে গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর। প্রয়োজন ছাড়া সাধারণ মানুষ ঘর থেকে বের হচ্ছে না বললেই চলে।

ফলে মুখ থুবড়ে পড়েছে কলাপাড়া পৌর শহরসহ বাণিজ্যিক এলাকাগুলো।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ভোর টানা থেকে বৃষ্টির ফলে কলাপাড়া শহরের সরকারি, বেসরকারি এবং ব্যাংক ও ব্যবসায়িক দোকান খোলা থাকলেও মানুষের উপস্থিতি ছিল একেবারেই হাতেগোনা। বৃষ্টিপাতের সাথে আন্ধারমানিক নদ ও শিববাড়িয়া নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় অস্বাভাবিক জোয়ার দেখা দেয়। এতে বেড়িবাঁধের বাইরের চাতালকল, স-মিল, বরফকল, মাছের আড়ত এবং বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পানিতে তলিয়ে গেছে।

স্থানীয় মৎস্য ব্যবসায়ী মো. মিলন জানান, ভারী বর্ষার কারণে নদের পানি অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পাওয়ায় বেড়িবাঁধের বাইরের সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান জোয়ারের পানিতে তলিয়ে আছে। এভাবে চলতে থাকলে মারাত্মক ক্ষতির সম্মুখিন হবেন সব ধরনের ব্যবসায়ীরা।

চম্পাপুর ইউনিয়নের কৃষক মো. নুরুল ইসলাম জানান, টানা বর্ষার কারণে ঘর থেকে কোনো মানুষ বের হতে পারছে না। নদী ও খালের পানি কমছে না। গ্রামীণ রাস্তা-ঘাট চলাচলের অনুপযোগী। সব পথঘাট এখন পানিতে তলিয়ে আছে।

এদিকে বৃষ্টিরে কারণে রাঙ্গাবালী উপজেলার গ্রামীণ রাস্তাঘাটগুলো কর্দমাক্ত হয়ে আছে। এজন্য চলাচলে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে।

বাংলা‌দেশ সময়: ০৪০৭ ঘণ্টা, জুলাই ০৫, ২০১৭
এমএস/জেএম

ইফতার করা হলো না দম্পতির
না’গঞ্জে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় প্রাণ গেলো কিশোরের
সিইপিজেডে ফ্যাক্টরির আগুন নিয়ন্ত্রণে
ধারাবাহিকতা ধরে রাখাই লক্ষ্য মাশরাফির
১২ ঘণ্টা পর সচল সিলেট-তামাবিল সড়ক


গরমে আমে ফ্রুট বোরার আক্রমণ, ক্ষতি হচ্ছে ভাটার ধোঁয়াতেও
লোকসভায় তারকাদের হার-জিত
ওয়ালটনের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর মাশরাফি
শতবর্ষী বৃদ্ধা ধর্ষণ, ধর্ষক কিশোরের স্বীকারোক্তি 
থাইল্যান্ড যাচ্ছে জাতীয় ফুটবল দল