বর্ষায় ‘সি’ ভরপুর করমচা

42 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton
মুখরোচক ফল হিসেবে করমচা বেশ সমাদৃত। এই ফল আমাদের দেশে মোটামুটি সহজলভ্য। বাড়ির আঙিনা কিংবা ছোটখাটো বাগানেও করমচা দেখা যায়। আমাদের প্রাচীন কাব্য-কথায়ও এ গাছের উল্লেখ রয়েছে।

ঢাকা: মুখরোচক ফল হিসেবে করমচা বেশ সমাদৃত। এই ফল আমাদের দেশে মোটামুটি সহজলভ্য। বাড়ির আঙিনা কিংবা ছোটখাটো বাগানেও করমচা দেখা যায়। আমাদের প্রাচীন কাব্য-কথায়ও এ গাছের উল্লেখ রয়েছে। গাছ ও পাতার গড়ন নান্দনিক হওয়ায় কেউ কেউ শুধু সৌন্দর্যের জন্যও এগাছ রোপণ করেন। আর কেউ কেউ রোপণ করেন কেবল ফলের সৌন্দর্য উপভোগ করার জন্য।

টকের পরিমাণ কিছুটা বেশি হওয়ায় অন্য কোনো খাবারের সঙ্গে মিশিয়ে করমচা খেতে হয়। তবে ইদানীং মিষ্টি জাতের করমচাও বাজারে পাওয়া যায়। তবুও তুলনামূলকভাবে দেশি টকজাতের করমচাই বেশি দেখা যায়।

করমচা (Carrisa carandas) শক্ত কাঁটাঅলা ঝোপাল ধরনের চিরসবুজ গাছ। পাতার রং চকচকে সবুজ। গড়নে ডিম্বাকৃতির। ফুলের রং সাদা বা ঈষৎ গোলাপি ধরনের। গুচ্ছবদ্ধ ফুলগুলো দেখতে বেশ আকর্ষণীয়। করমচার সঙ্গে চেরি ফলের কিছুটা মিল রয়েছে। এ কারণেই আমাদের দেশে করমচাকে রং মাখিয়ে চেরি ফল নামে বিক্রি করা হয়।


ফুল ফোটে ফেব্রুয়ারি মাসে আর ফল পাকে জুন-জুলাই মাসে। তবে বছরের অন্য সময়েও ফল পাওয়া যেতে পারে। ফলে খাদ্যাংশের পরিমাণই বেশি, ভেতরে থাকে ৪/৫টি বীজ। মাত্র ১০০ গ্রাম তাজা ফল থেকে ৭ জনের একদিনের ভিটামিন সি’র অভাব পূরণ করা যায়। গ্রামে করমচা দিয়ে ডাল রান্না করার পদ্ধতি বেশ পুরনো। স্বাদের ভিন্নতার কারণে বর্তমানে অনেকেই মিষ্টি জাতের করমচা চাষে উৎসাহী হয়ে উঠেছেন।

ছবিগুলো বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা থেকে তোলা।

বাংলাদেশ সময়: ১৪১১ ঘণ্টা, জুন ২৭, ২০১৪


‘ই-পাসপোর্ট ডিজিটাল জগতে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করবে’
সিএএ স্থগিত করতে ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের অস্বীকৃতি
ঝালকাঠিতে ২ ‘মাদক ব্যবসায়ী’ আটক
কাউন্সিলর প্রার্থী সারোয়ারের প্রার্থিতা বাতিল চান তাবিথ
৬ মাসের মধ্যে শেষ হবে বিজিএমইএ ভবন ভাঙার কাজ


ধানের দামের অজুহাতে ফের বাড়ালো চালের দাম
সিআরবি জোড়াখুন মামলার প্রধান আসামি গ্রেফতার
দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখতে যা করবেন 
ভিকি কৌশল ও ক্যাটরিনা কাইফের লুকোচুরি
কর বাড়ানো নয়, সমন্বয় করা হবে: তাপস