ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ কার্তিক ১৪২৭, ২২ অক্টোবর ২০২০, ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

উপকূল থেকে উপকূল

ভোলায় ভারী বর্ষণ, বিপর্যস্ত জনজীবন

এদিকে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত নামিয়ে ভোলায় ৩ নম্বর সতর্কতা সংকেত জারি করা হয়েছে। রোববার (১০ নভেম্বর) সকাল ১০টায় সংকেত নামিয়ে দেয়

ভোলায় ঝড়ে ২ শতাধিক ঘর বিধ্বস্ত, ট্রলার ডুবে নিখোঁজ ৫

শনিবার (০৯ নভেম্বর) রাত থেকে রোববার (১০ নভেম্বর) দুপুর পর্যন্ত কয়েক দফা ঝড়ে লালমোহন ও চরফ্যাশন উপজেলায় এ ক্ষয়ক্ষতি হয়। ক্ষতিগ্রস্ত

‘বুলবুল’র তাণ্ডবে আট জেলায় ১২ জনের মৃত্যু

রোববার (১০ নভেম্বর) ভোর থেকে দুপুরের মধ্যে ঝড়ের সময় এসব ঘটনা ঘটে। শনিবার (০৯ নভেম্বর) দিবাগত রাত থেকে এসব জেলায় ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডব

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল: পটুয়াখালীতে ঘরচাপায় নিহত ১

রোববার (১০ নভেম্বর) ভোর রাতে এ ঘটনা ঘটে।শনিবার (৯ নভেম্বর) দিবাগত রাত দুইটার পর থেকে এ অঞ্চলে ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডব শুরু হয়। মির্জাগঞ্জ

সাতক্ষীরায় বুলবুলের তাণ্ডব, বিধ্বস্ত সহস্রাধিক ঘরবাড়ি

রোববার (১০ নভেম্বর) সকালে বাংলানিউজের সাতক্ষীরা ডি‌স্ট্রিক্ট ক‌রেসপ‌ন্ডেন্ট জানিয়েছেন, শনিবার দিনগত রাত তিনটা থেকে প্রচণ্ড

‌দুর্বল হয়ে উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হচ্ছে ‘বুলবুল’

রোববার (১০ নভেম্বর) ভোর ৫ টায় এটি খুলনা ও বাংলাদেশের দক্ষিণপশ্চিম অঞ্চলে (২২ দশমিক ০ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৮৯ দশমিক ৪ পূর্ব দ্রাঘিমাংশ)

‘বুলবুল’ খুলনা উপকূল অতিক্রম করতে পারে ভোর নাগাদ

শনিবার (৯ নভেম্বর) শেষরাত নাগাদ এটি আরও উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর ও দুর্বল হয়ে পশ্চিমবঙ্গ-খুলনা (সুন্দরবনের কাছ দিয়ে) উপকূল অতিক্রম

সুন্দরবন উপকূলে আঘাত হেনে দুর্বল হচ্ছে ‘বুলবুল’

শনিবার দিনগত রাত ১টা ৫মিনিটে মোংলাবন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার কমান্ডার শেখ ফকর উদ্দিন বাংলানিউজকে বলেন, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের

বরিশালে ২৪শ আশ্রয়কেন্দ্রে সাড়ে ১২ লাখ মানুষ

বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের কন্ট্রোল রুমের সর্বোশেষ তথ্যানুযায়ী, রাত ১১টা পর্যন্ত বিভাগের ৬ জেলার প্রায় ১২ লাখ ৬৯ হাজার

অতিপ্রবল থেকে প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিয়েছে ‘বুলবুল’

শনিবার (৯ নভেম্বর) রাত ১১টায় এটি বর্তমানে উত্তরপশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন পশ্চিমবঙ্গে এবং বাংলাদেশের দক্ষিণপশ্চিম এলাকায়

ভোলার ঝূঁকিপূর্ণ ৪৩ চরের বাসিন্দারা নিরাপদে

শনিবার (০৯ নভেম্বর) বিকেল থেকেই বাতাসের গতিবেগ বাড়ছে এবং কখনো থেমে থেমে বৃষ্টি ও ঝড়ো বাতাস বইছে। এতে উপকূলের বাসিন্দারা আতঙ্কিত হয়ে

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল: আশ্রয়কেন্দ্রে ছুটছে বাগেরহাটবাসী

শনিবার (৯ নভেম্বর) সন্ধ্যার আগে থেকে বৃষ্টি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আশ্রয়কেন্দ্রে ভিড় বাড়তে থাকে। শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত প্রায় ৮০ হাজার

৬৮৯ সাইক্লোন শেল্টারে আশ্রয় নিয়েছে সাড়ে তিন লাখ মানুষ 

শনিবার (০৯ নভেম্বর) বিকেল ৩টা পর্যন্ত জেলায় ৬৮৯টি আশ্রয় কেন্দ্রে সাড়ে তিন লাখের বেশি মানুষ আশ্রয় নিয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা

সাতক্ষীরা উপকূলের ৮৫ হাজার মানুষ আশ্রয় কেন্দ্রে

শনিবার (৯ নভেম্বর) সকালে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত জারির পর প্রশাসনের পক্ষ থেকে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে তাদের সাইক্লোন শেল্টারে আনা হয়।

আশ্রয়কেন্দ্রে ছুটছে উপকূলের মানুষজন

উপকূলীয় এলাকা পদ্মা, চরলাঠিমারা, গাববাড়িয়া বিষখালী নদী সংলগ্ন বেড়িবাঁধ ঘুরে দেখা গেছে, এখানকার বাসিন্দারা তাদের মালামাল নিয়ে

ভোলায় আশ্রয়কেন্দ্রের দিকে ছুটছে মানুষজন

প্রচারণার পর মূল ভু-খণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন এলাকার বাসিন্দরাও আশ্রয়কেন্দ্রের দিকে ছুটছেন। কলাতলী, ঢালচর, চর নিজাম ও চর পাতিলাসহ বেশ

মোংলা-পায়রা বন্দরে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত

শনিবার (০৯ নভেম্বর) এমন তথ্যই জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। মোংলা ও পায়রা বন্দরের পাশাপাশি ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে

আশ্রয় কেন্দ্রে আসতে ভোলার উপকূলে প্রচারণা

ভোলা সিপিপির উপ-পরিচালক সাহাবুদ্দিন মিয়া জানান, শুক্রবার সন্ধ্যার পর সংকেত ৪ থেকে বাড়িয়ে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

কক্সবাজারে প্রস্তুত ৫০৭ সাইক্লোন শেল্টার

শুক্রবার (৮ নভেম্বর) বিকেলে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনে সন্মেলন কক্ষে আয়োজিত ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কমিটির সভায় এসব তথ্য জানানো হয়। সভায়

গভীর সমুদ্রে শত শত ট্রলার, সাগর উত্তাল

ঘূর্ণিঝড়ের ‘বুলবুল’ প্রভাবে বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ১২টা থেকেই উপকূলীয় উপজেলা পাথরঘাটায় বৃষ্টি শুরু হয়। শুক্রবার (৮ নভেম্বর)

এই বিভাগের সর্বাধিক জনপ্রিয়

Alexa