অঞ্জলী হত্যাকাণ্ড নিয়ে এখনও অন্ধকারে পুলিশ

592 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

অঞ্জলী দেবী

চট্টগ্রাম সরকারি নার্সিং কলেজের জ্যেষ্ঠ্য শিক্ষিকা অঞ্জলী দেবী (৫৮) কেন খুন হয়েছেন ? কারা তাকে খুন করেছে ? গত ২৪ ঘণ্টা ধরে এসব প্রশ্নের উত্তর খুঁজলেও কোন জবাব পাচ্ছেনা পুলিশ।

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম সরকারি নার্সিং কলেজের জ্যেষ্ঠ্য শিক্ষিকা অঞ্জলী দেবী (৫৮) কেন খুন হয়েছেন ? কারা তাকে খুন করেছে ? গত ২৪ ঘণ্টা ধরে এসব প্রশ্নের উত্তর খুঁজলেও কোন জবাব পাচ্ছেনা পুলিশ।

চাঞ্চল্যকর এ হত্যাকাণ্ড নিয়ে কার্যত অন্ধকারে আছে তদন্তে মাঠে থাকা নগর গোয়েন্দা পুলিশ। এর ফলে হত্যাকাণ্ডের ২৪ ঘণ্টা পরও খুনিদের কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

হত্যাকাণ্ডের তদন্ত সার্বিকভাবে পর্যবেক্ষণ করছেন নগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) বনজ কুমার মজুমদার।

তিনি বাংলানিউজকে বলেন, অঞ্জলী দেবীর মোবাইলের কললিস্ট চেক করা হয়েছে। সেখানে নিজের স্বামী ছাড়া আর কারও কল পাওয়া যায়নি। পারিবারিকভাবে কিংবা অফিসে প্রশাসনিক কোন বিরোধ আছে কিনা তা-ও খতিয়ে দেখা হয়েছে। সেখানে কোন বিরোধ পাওয়া যায়নি। কার্যত এ হত্যাকাণ্ড নিয়ে আমরা অন্ধকারে আছি।

খুনের ঘটনা তদন্তে মাঠে থাকা নগর গোয়েন্দা পুলিশের সহকারি কমিশনার জাহাঙ্গীর আলম এবং পাঁচলাইশ থানার ওসি মহিউদ্দিন মাহমুদকে রোববার সকালে নিজ কার্যালয়ে ডাকেন বনজ কুমার মজুমদার। ২৪ ঘণ্টায়ও এ ঘটনার কোন কূলকিনারা করতে না পারায় তারা হতাশা প্রকাশ করেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, পারিবারিক কিংবা প্রশাসনিক কোন বিরোধের তথ্য না পেয়ে পুলিশ এখন তদন্তের মোড় ঘুরাতে চায়। এক্ষেত্রে পুলিশের সামনে এসেছে বছরখানেক আগে নার্সিং কলেজে হিজাব পড়ার আন্দোলনের কথা। ওই আন্দোলনে থাকা ছাত্রীদের উসকানি দিয়েছিল শিবির। ছাত্রীদের একটি অংশ এবং কয়েকজন শিক্ষক হিজাব পড়ার আন্দোলনের বিরোধিতা করেছিল।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) বনজ কুমার মজুমদার বাংলানিউজকে বলেন, হিজাব পড়ার আন্দোলনে অঞ্জলী দেবী’র ভূমিকা কি ছিল, এ আন্দোলন নিয়ে তার সঙ্গে কারও বিরোধ ছিল কিনা, সেটা আমরা খতিয়ে দেখছি।

সূত্র জানায়, রোববার সকালে বনজ কুমার মজুমদারের সঙ্গে বৈঠকে পুলিশ কর্মকর্তারা অঞ্জলী দেবী ‘মিস টার্গেটের’ শিকার হয়েছেন কিনা- তা নিয়েও আলোচনা হয়েছে। সেখানে একজন কর্মকর্তা বলেন, হতে পারে, খুনিরা একজনকে খুন করতে এসেছিল, বুঝতে না পেরে আরেকজনকে খুন করে চলে গেছে।

শনিবার (১০ জানুয়ারি) সকাল পৌনে ১০টার দিকে নগরীর পাঁচলাইশ থানার চকবাজার তেলিপট্টি মোড় এলাকায় দুর্বৃত্তরা অঞ্জলী দেবীকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। সকাল ১১টা ৪০ মিনিটে তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়। এরপর খুনের ঘটনা তদন্তে মাঠে নামে নগর গোয়েন্দা পুলিশ।

এদিকে অঞ্জলীর স্বামী ডা.রাজেন্দ্র চৌধুরী বাদি হয়ে নগরীর পাঁচলাইশ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলায় অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করা হয়েছে। 

বাংলাদেশ সময়: ১৭৫০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১১,২০১৫

** নার্সিং কলেজের শিক্ষিকা অঞ্জলী খুনের তদন্তে মাঠে ডিবি
** নার্সিং কলেজের শিক্ষিকাকে কুপিয়ে খুনের চেষ্টা
** দুর্বৃত্তদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আহত শিক্ষিকার মৃত্যু

প্রয়োজনীয় উদ্যাগ নেই বলে পর্যটন শিল্পের প্রসার ঘটছে না
কালুরঘাটে বয়লার বিস্ফোরণে শ্রমিক নিহত
দেশে একটি কৃত্রিম বিরোধীদলের সৃষ্টি হয়েছে: বদিউল আলম
সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটিতে নিয়োগ
চুয়াডাঙ্গায় দুই বাংলার ৭ দিনের নাট্যোৎসব


মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা এমপি মিল্লাতের
দেশসেরা সমবায় হবে ধলঘাট সমিতি
হাতিয়ায় মেঘনার তীর সংরক্ষণ প্রকল্পের উদ্বোধন
মাধবদীতে ডাকাতি প্রস্তুতিকালে গ্রেফতার ৮
মেয়াদের মধ্যে কাজ করার নির্দেশ পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রীর