ইমরুল-সিমন্সের ব্যাটে রাজশাহীকে হারিয়ে শীর্ষে চট্টগ্রাম

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ও রাজশাহী রয়ালসের খেলার একটি দৃশ্য। ছবি: শোয়েব মিথুন

walton

এবারের বিপিএলে প্লে-অফ আগেই নিশ্চিত করেছিল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ও রাজশাহী রয়ালস। পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ দুই দলের পয়েন্টও সমান। তাই দুই দল নেমেছিল ভিন্ন দুই মিশনে। রাজশাহী নেমেছিল শীর্ষ স্থান ধরে রাখতে। অন্যদিকে চট্টগ্রাম মাঠে নেমেছিল শীর্ষ স্থান দখল করতে। 

মঙ্গলবার (০৭ জানুয়ারি) রাজশাহীকে ৭ উইকেটে হারিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ স্থানটা দখল করেছে চট্টগ্রাম।

মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করে লিটন দাসের অর্ধশতকে ভর করে ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৬৬ রান তোলে রাজশাহী। জবাবে ব্যাট করতে নেমে লিন্ডল সিমন্স ও ইমরুল কায়েসের অর্ধশতকে ৯ বল হাতে রেখে সহজ জয় পায় চট্টগ্রাম।

১৬৭ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ব্যাটে ঝড় ঠিকই তুলেছিলেন ক্রিস গেইল। আফিফের করা তৃতীয় ওভারে ২২ রান তুলে নেন ক্যারিবীয়ান ব্যাটিং দানব। তবে এ ঝড় আর বেশি দূর এগোয়নি। কামরুল ইসলাম রাব্বির বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে ১০ বলে ২৩ রান করে ফেরত যান গেইল।

ক্রিস গেইল। শোয়েব মিথুনতবে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে দলকে জয়ের পথ দেখান লিন্ডল সিমন্স ও ইমরুল কায়েস। ৭৭ রান আসে এ দুইজনের ব্যাট থেকে। অর্ধশতক তুলে নেন সিমন্স। দলীয় ১১২ রানের মাথায় ৪৩ বলে ৫২ রান করে আউট হন।

এরপর ইমরুলের ব্যাটে ভর করে সহজ জয়ের দিকে এগিয়ে যায় বন্দরনগরের দলটি। ৩১ বলে অর্ধশতক তুলে নেন ইমরুল। এটি এবারের বিপিএলের ইমরুলের চতুর্থ অর্ধশতক। শেষ পর্যন্ত তার অপরাজিত ৪১ বলে ৬৭ রানে ইনিংসের কল্যাণে ৩ উইকেটে ১৭০ রান তোলে চট্টগ্রাম। রাজশাহীর রাব্বি ও ফরহাদ রেজা ১টি করে উইকেট নেন।  

ব্যাটিংয়ের শুরুতে ওপেনার আফিফ হোসেন (৯) দলীয় ১৬ রানে রুবেল হোসেনের বলে বোল্ড হলেও রাজশাহীর রানের চাকা সচল রাখেন লিটন। ইরফান শুকুরকে (১৮) সঙ্গে নিয়ে দলকে বড় সংগ্রহের পথে নিয়ে যান তিনি। দলীয় ৯৪ রানে লিটন সাজঘরে ফেরেন জিয়াউর রহমানের বলে উইকেটের পেছনে নুরুল হাসানকে ক্যাচ দিয়ে। তার আগে ৪৫ বলে ৫ চার ও ২ ছক্কায় ৫৬ রানের ইনিংস খেলেন ২৫ বছর বয়সী এ ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

এরপর দলের দায়িত্বটা নিজের কাধে তুলে নেন শোয়েব মালিক। পাকিস্তানি অলরাউন্ডার ধীর-গতির ব্যাটিং করলেও মাঠে নেমেই ঝড় তুলেন আন্দ্রে রাসেল। ক্যারিবিয়ান তারকা রুবেলের দ্বিতীয় শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরার আগে ১০ বলে ২ ছক্কা ও ১ চারে করেন ২০ রান। এর পরপরই রুবেল তৃতীয় শিকার বানান রবি বোপারাকে (৪)।

হঠাৎ ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়া রাজশাহীকে আবার বড় আঘাত দেন জিয়াউর। অলক কাপালি (১) ও মালিককে (২৮) দ্রুত তুলে নেন তিনি। তবে শেষদিকে ঝড় তুলে ফরহাদ রেজার ব্যাট। ইনিংসের শেষ বলে রান আউট হওয়ার আগে ৮ বলে ১ চার ও ২ ছক্কায় ২১ রান করেন তিনি। ৩ রানে অপরাজিত ছিলেন কামরুল ইসলাম রাব্বি।

চট্টগ্রামের রুবেল হোসেন ও জিয়াউর রহমান ৩টি করে উইকেট নেন। ম্যাচ সেরা হয়েছেন ইমরুল কায়েস।

বাংলাদেশ সময়: ২২৪৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৭, ২০২০
আরএআর/আরবি/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: বঙ্গবন্ধু বিপিএল ২০১৯
গাজীপুরে দেশীয় অস্ত্রসহ দুই ডাকাত আটক
হাতিয়ায় নদীর পাড় থেকে এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার
করোনার বিরুদ্ধে অ্যান্টিবায়েটিক: বাড়াচ্ছে নতুন বিপদ
চট্টগ্রামে করোনা উপসর্গে আইনজীবীর মৃত্যু
করোনাকালে সরকারের ত্রাণ সহায়তা পেয়েছে সোয়া ৬ কোটি মানুষ


করোনাকালে সরকারের ত্রাণ সহায়তা পেয়েছে সোয়া ৬ কোটি মানুষ
না’গঞ্জে ৩ হাজার ছাড়ালো করোনা আক্রান্তের সংখ্যা, মৃত্যু ৮৫
শিকাগোর সিসেরোতে সহিংসতায় নিহত ২, গ্রেফতার ৬০
বিক্ষোভের মধ্যেই লুটপাটের শিকার বাংলাদেশিরাও 
মুন্সিগঞ্জে করোনা আক্রান্ত বেশির কারণ নারায়ণগঞ্জ