মুশফিকদের অনায়াসে হারিয়ে শীর্ষে ফিরল চট্টগ্রাম

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজ

walton

বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) শীর্ষস্থান নিয়ে চলছে ‘ম্যাজিক চেয়ার’ খেলা। এই ম্যাচের আগে শীর্ষে থাকা তিন দলেরই পয়েন্ট ছিল সমান (১২)। এমনকি চতুর্থ স্থানে থাকা খুলনা টাইগার্সও (১০) এই ম্যাচ জিতলে শীর্ষে যেতে পারতো। কিন্তু মুশফিকদের অনায়াসে হারিয়ে বাকি সবাইকে ছাড়িয়ে শীর্ষে উঠে গেল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স (১০ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট)।

বঙ্গবন্ধু বিপিএলের চতুর্থ পর্বের খেলায় শনিবার (০৪ জানুয়ারি) সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুরুতে ব্যাট করতে নেমে ১২১ রানেই গুটিয়ে যায় খুলনা। জবাবে ৬ উইকেট আর ১১ বল হাতে রেখে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় চট্টগ্রাম।

স্বল্প রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা দারুণ হয় চট্টগ্রামের। লেন্ডল সিমন্স আর জুনায়েদ সিদ্দিকীর উদ্বোধনী জুটিতেই আসে ৬৯ রান। ২৮ বলে ৩৬ রান করে সিমন্স বিদায় নেওয়ার পর ১৪ রান যোগ হতেই অবশ্য বিদায় ঘটে জুনায়েদেরও (৩৮)। 

দুই ওপেনারের বিদায়েও চট্টগ্রামের খুব একটা সমস্যা হয়নি। এমনকি অ্যাসেলা গুনারত্নে (০), চ্যাডউইক ওয়ালটনও (৭) টিকতে পারেননি। কিন্তু অন্য প্রান্তে দাঁড়িয়ে যান ইমরুল কায়েস। অপরাজিত ৩০ রানের ইনিংস খেলে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন চট্টগ্রামের অধিনায়ক। সঙ্গী নুরুল হাসান ৭ রান নিয়ে অপরাজিত থাকেন।

বল হাতে ২ উইকেট নিয়েছেন খুলনার রোবি ফ্রাইলিংক। আর ১টি করে উইকেট গেছে আল ইসলাম ও মেহেদী হাসান মিরাজ।

এর আগে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের সামনে বেশিদূর এগোতে পারেনি খুলনা টাইগার্স। ব্যাটিংয়ের শুরুতেই বিপদে পড়ে তারা। ওপেনার মেহেদী হাসান মিরাজ (৪) বিদায় নেন দলীয় ৮ রানে। হতাশ করেন বিপিএল ইতিহাসে প্রথম ম্যাচ খেলতে নামা হাশিম আমলা। দক্ষিণ আফ্রিকান ব্যাটসম্যান আভাস দিয়েছিলেন ব্যাটিং নৈপুণ্য দেখানোর। কিন্তু ৬ বলে ২ চারে ব্যক্তিগত ৮ রান করে মেহেদী হাসান রানার বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন। 

তবে জ্বলে ওঠেন আরেক প্রোটিয়া তারকা রাইলি রুশো। মাঝখানে শামসুর রাহমান ডাক নিয়ে ফিরলেও অধিনায়ক মুশফিকুর রহীমকে নিয়ে খুলনাকে এগিয়ে নেন তিনি। কিন্তু দলীয় ৬৩ রানে বিদায় নেন মুশফিকও (২৯)। রুশো ফিফটি থেকে ২ রান দূরে থাকতে বোল্ড হন কেসরিক উইলিয়ামসের বলে। তার ৪০ বলে ৪৮ রানের ইনিংসটি সাজানো ছিল ২ চার ও ২ ছক্কায়। 

এরপর ফ্রাইলিংক (১৭) ছাড়া আর কেউ দুই অঙ্কের ঘর ছুঁতে পারেননি। রুবেল হোসেন ও রানার তোপে দ্রুত বিদায় নেন আমির ইয়ামিন (০), আলাউদ্দিন বাবু (১), তানভীর ইসলাম (৩), আল ইসলাম (১)। ৩ রানে অপরাজিত ছিলেন শফিউল ইসলাম। 

চট্টগ্রামের হয়ে বল হাতে ৩ উইকেট নিয়েছেন রুবেল। সমান উইকেট নিয়েছেন মেহেদী রানাও। ২ উইকেট নিয়েছেন উইলিয়ামস। বাকি উইকেট জিয়াউর রহমানের।

বাংলাদেশ সময়:  ১৭০৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৪, ২০২০
এমএইচএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ক্রিকেট বঙ্গবন্ধু বিপিএল ২০১৯
রামেক হাসপাতালের আইসিইউতে করোনা রোগীর মৃত্যু
কুড়িগ্রামে বাসের ধাক্কায় পথচারী নিহত
সারা দেশ কি সরকার গোরস্থান বানাতে চায়: রিজভী
পঞ্চগড়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ইজিবাইকচালকের মৃত্যু
সাইকেলের ধাক্কায় পড়ে গেলেন বাইকের চালক


যাত্রী স্বল্পতায় মঙ্গলবারের সব ফ্লাইট বাতিল বিমানের
আসামে ভূমিধসে ২০ জন নিহত
বাস ভাড়া বৃদ্ধির প্রতিবাদে দিনাজপুরে মানববন্ধন
কোহলি-রোহিত জুটিকে প্রশংসায় ভরিয়ে দিলেন সাঙ্গাকারা
আবরার হত্যা: জিয়নের জামিন নামঞ্জুর