php glass

মঞ্চায়িত হলো ৫৯তম প্রযোজনা ‘বৃশ্চিক লগ্ন’

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মঞ্চায়িত হলো ‘বৃশ্চিক লগ্ন’

walton

ঢাকা: দেখেছো কি খাড়াদাঁড়া তীরগতি কর্কট বিচ্ছু?/লজ্জার পর্দাটা নাই ছিঁড়ে ফেলো যদি/বৃশ্চিক-লগ্নের জানবে না কিচ্ছু। কবিতার এমন কথামালার গাঁথুনি দিয়ে শুরু হয় আবৃত্তি একাডেমির ৫৯তম প্রযোজনা ‘বৃশ্চিক লগ্ন’।

মৃন্ময় মিজানের গ্রন্থনা ও নির্দেশনায় শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর শওকত ওসমান স্মৃতি মিলনায়তনে মঞ্চায়িত হয় প্রযোজনাটি।  

আবৃত্তি শিল্পীদের আবৃত্তির মাধ্যমে তুলে ধরা হয়, বর্তমান সমাজ-সংসার ও রাষ্ট্র ব্যবস্থার বিভিন্ন দিক। নানা ব্যঙ্গাত্মক ও রসালো কথায় ইঙ্গিত করা হয় সমাজের নানা অসঙ্গতি। ব্যতিক্রমি এ আবৃত্তি প্রযোজনায় আবৃত্তির পাশাপাশি ছিলো কোরিওগ্রাফি ও গান।

প্রযোজনায় অংশ নেন, আবৃত্তি শিল্পী মৃন্ময় মিজান, হিমাদ্রী মোর্শেদ তাহমিনা, আব্দুর রহমান তিতুমীর, আব্দুস সালাম, মো. ইসহাক আলী, হাসান মাহমুদ, হাসনাইন আনজুম, রওনক জাহান সাথী, সালাহউদ্দিন জামিল সৌরভ, হাফসা মাহমুদ, সুস্মিতা দত্ত, জান্নাতুল ফেরদৌস মিলা, তাহমিনা সুলতানা লিজা ও তাজরী-মিন শিমুল।

আবৃত্তি প্রযোজনা শেষে বিভিন্ন কর্মশালার উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে সনদপত্র দেওয়া হয়। এছাড়া বছরের সেরা আবৃত্তি সংগঠক, সেরা নিয়মিত সদস্য, সেরা আবৃত্তিকর্মী ও প্রতিশ্রুতিশীল আবৃত্তিশিল্পীকে বিশেষভাবে পুরস্কৃত করা হয়।

আবৃত্তি একাডেমির সাবেক পরিচালক মাসুদ আহম্মেদের সভাপতিত্বে প্রযোজনা পরবর্তী আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট নাট্যজন অধ্যাপক ড. ইনামুল হক। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের চেয়ারম্যান রামচন্দ্র দাস ও বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মাসকুর-এ সাত্তার কল্লোল।

‘উচ্চারিত প্রতিটি কথা হোক শিল্প’-এ স্লোগানকে ধারণ করে আবৃত্তি একাডেমির পথচলা দুই দশকেরও অধিক সময় ধরে। এরই মধ্যে সংগঠনটি দেশের আবৃত্তি দলগুলোর মধ্যে উল্লেখ করবার মতো একটা জায়গা করে নিয়েছে। ২১ বছর পূর্তি উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (১২ সেডেপ্টম্বর) সংগঠনটির দুই দিনব্যাপী উৎসবের উদ্বোধন করা হয়। ওদিন দিলসাদ জাহান পিউলীর গ্রন্থনা ও নির্দেশনায় শওকত ওসমান স্মৃতি মিলনায়তনে মঞ্চায়িত হয় আবৃত্তি একাডেমির ৫৮তম প্রযোজনা রুদ্ধশ্বাসের দিনগুলো।

প্রযোজনায় আবৃত্তি শিল্পীদের আবৃত্তির মাধ্যমে স্মরণ করা হয় ১৯৭১ সালের জগন্নাথ হলের সেই ভয়াবহ অভিজ্ঞতা। আবৃত্তি করা হয় শহীদ জননী জাহানারা ইমামের একাত্তরের দিনগুলো, রুদ্র মুহাম্মদ মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ'র কনসেন্ট্রশন ক্যাম্প ও ড. রণ পেরীর যুদ্ধশিশুসহ মহান স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাস স্মরণে বিভিন্ন কবিতা ও গল্প।

এতে অংশ নেন- আবৃত্তি শিল্পী মৃন্ময় মিজান, মাসুদ আহম্মেদ, সারমিন ইসলাম জুঁই, শামীম আহসান, আহম্মেদ শুভ, হিমাদ্রী মোর্শেদ তাহমিনা, আব্দুর রহমান তারেক, আব্দুস সালাম, মো. ইসহাক আলী, হাসনাইন আনজুম, মো. আল-আমিন, জান্নাতুল ফেরদৌস মিলা। 
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট আবৃত্তিজন অধ্যাপক নিরঞ্জন অধিকারীকে আবৃত্তি একাডেমি পদকে ভূষিত করা হয়। তিনি তার এ পদক আবৃত্তি চর্চা যারা করেন, তাদের সবাইকে উৎসর্গ করেন।

সংগঠনটির এ সংক্রান্ত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, আবৃত্তি একাডেমির পরিচালক মৃন্ময় মিজানের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আহ্কাম উল্লাহ।

বাংলাদেশ সময়: ১০৩৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৯
ইইউডি/ওএইচ/

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে চলচ্চিত্রের শুটিং হতে পারে কবিরপুরে
ভৈরব নদে ঐতিহ্যবাহী নৌকাবাইচ
‘দুই বাংলা এক সুবোধ’
সৌদিতে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই ভাই নিহত
মেক্সিকোয় মাদক সম্রাটের ছেলেকে ধরায় তাণ্ডব, ‘আপস’ সরকারের


আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শে দীক্ষিত: মনজুর আলম
এবার আসছে ‘মিতিন মাসি’র সিক্যুয়েল
শিরোপা চাই বসুন্ধরা কিংসের
শেখ কামালের শিরোপা পুনরুদ্ধারে লড়বে আবাহনী
করতোয়া নদীতে ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ