জুনে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হবে আন্তর্জাতিক নৃত্য উৎসব

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

আয়োজিত অনুষ্ঠান। ছবি: বাংলানিউজ

walton

ঢাকা: বর্তমান সরকার বাঙালি সংস্কৃতির চর্চা প্রচার ও প্রসারে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে আগামী জুন মাসে ঢাকায় একটি আন্তর্জাতিক নৃত্য উৎসব আয়োজন করা হবে বলে জানিয়েছেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ।

php glass

সোমবার (২৯ এপ্রিল) বিকালে প্রতিমন্ত্রী রাজধানীর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা মিলনায়তনে আন্তর্জাতিক নৃত্য দিবস ২০১৯ উদযাপন উপলক্ষে বাংলাদেশ নৃত্যশিল্পী সংস্থা ও বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির যৌথ আয়োজনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।

এছাড়া এখন থেকে প্রতিবছর ঢাকায় সপ্তাহব্যাপী একটি নাট্য ও নৃত্য উৎসব আয়োজন করা হবে যেখানে সারাদেশ থেকে বাছাইকৃত নৃত্যশিল্পীরা অংশগ্রহণ করবে বলেও জানান তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, শত শত বছর ধরে শিল্পকলার অন্যতম প্রাচীন মাধ্যম নৃত্য আমাদের সংস্কৃতিকে উচ্চকিত করেছে। জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস রুখতে হলে আমাদের তৃণমূল পর্যায়ে নৃত্যসহ সংস্কৃতি চর্চার আরো প্রচার ও প্রসার ঘটাতে হবে।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক ঋত্বিক নাট্যজন লিয়াকত আলী লাকী‘র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ইন্টারন্যাশনাল থিয়েটার ইনস্টিটিউট (আইটিআই) এর সাধারণ সম্পাদক দেবপ্রসাদ দেবনাথ। আলোচনা করেন শিল্পকলা পদক প্রাপ্ত নৃত্য ব্যক্তিত্ব ও বাংলাদেশ নৃত্যশিল্পী সংস্থার উপদেষ্টা মো. গোলাম মোস্তফা খান এবং বিশিষ্ট নৃত্যশিল্পী, গবেষক ও পরিচালক ড. নিগার চৌধুরী। শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন একুশে পদক প্রাপ্ত বাংলাদেশ নৃত্যশিল্পী সংস্থার সভাপতি মীনু হক।

অনুষ্টানে নৃত্যশিল্পে বিশেষ অবদানের জন্য বিশিষ্ট নৃত্যশিল্পী ও পরিচালক দীপা খন্দকারকে 'রাহিজা খানম ঝুনু স্মারক সম্মাননা পদক' প্রদান করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ০৬৩২ ঘণ্টা, এপ্রিল ৩০, ২০১৯
এইচএমএস/

আগের ১৫ সদস্যের ওপরই ভরসা রাখলেন নির্বাচকরা
ধানক্ষেতে আগুনের ঘটনা তদন্তের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর
ছোট পর্দায় ‘অভাগিনী মা’ চম্পা
কমলাপুরে সিএনএসের সার্ভাররুমে দুদকের হানা
লাইফবয় ওয়ার্ল্ডকাপ থিম সং ‘খেলবে টাইগার, জিতবে টাইগার’


দুপুর হতেই কাউন্টার ফাঁকা
আগুয়েরোকে নিয়ে আর্জেন্টিনার দল ঘোষণা, নেই ইকার্দি
ল্যাবএইড গ্রুপে নিয়োগ
পটুয়াখালীতে অনির্দিষ্টকালের বাস ধর্মঘট
বোমা মেশিনে নদীর পাড় খুঁড়ে বাঁধ নির্মাণ