ইনজুরিতে পড়েছেন মেসি, স্বীকার করল বার্সা

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

লিওনেল মেসি-ছবি: সংগৃহীত

walton

একদিন আগেই লিওনেল মেসির ইনজুরিতে পড়ার খবর অস্বীকার করেছিল বার্সেলোনা। কিন্তু টানা দ্বিতীয় দিনও দলের অনুশীলনে হাজির না থাকায় আবারো প্রশ্নটা সামনে এলো। আর এবার স্বীকারও করে নিল কাতানাল জায়ান্টরা।

শুক্রবার (০৫ জুন) বার্সার দলীয় অনুশীলনে দেখা যায়নি মেসিকে। বুধবারের মতো এদিনও জিমে সময় কাটিয়েছেন তিনি। দলীয় অনুশীলন শেষে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে অধিনায়কের ফিটনেস নিয়ে অফিসিয়াল আপডেট দিয়েছে বার্সা। 

বার্সার সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ‘ডান উরুতে হালকা চোট পেয়েছেন বার্সেলোনা অধিনায়ক এবং এজন্য আইসোলেশনে থেকে অনুশীলন চালিয়ে গেছেন তিনি। ৮ দিন পরেই (১৩ জুন) ফের মাঠে নামবে বার্সা, তাই অযথা কোনো ঝুঁকি না নিয়ে কিছু নির্দিষ্ট অনুশীলন করেছেন তিনি। তবে অল্প কিছুদিনের মধ্যেই সতীর্থদের সঙ্গে যোগ দিতে পারবেন তিনি।‘

মেসির বর্তমান অবস্থা নিয়ে নির্ভার অবস্থায় আছে বার্সা। ক্লাবের সবার বিশ্বাস করোনা পরবর্তী নিজেদের প্রথম ম্যাচে রিয়াল মায়োর্কার মাঠে শুরু থেকেই খেলতে পারবেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। 

মেসিকে নিয়ে দুশ্চিন্তা না থাকলেও অনুশীলন শুরুর দিন থেকেই বার্সার তিন খেলোয়াড়- স্যামুয়েল উমতিতি, আনসু ফাতি এবং মনচুর শারীরিক সমস্যা দেখা দিয়েছে। 

একদিন বিরতির আগে আগামী সোমবার (০৮ জুন) ফের একবার অনুশীলনে নামবেন কিকে সেতিয়েনের শিষ্যরা। 

টানা তৃতীয় লা লিগা শিরোপা ঘরে তোলার পথে বার্সেলোনা এখন পর্যন্ত চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের চেয়ে ২ পয়েন্ট এগিয়ে আছে। হাতে আছে আরও ১১ ম্যাচ। আর ১৯ গোল নিয়ে লিগে এখন পর্যন্ত শীর্ষ গোলদাতার তকমা মেসির দখলে। 

বাংলাদেশ সময়: ১৯০৫ ঘণ্টা, জুন ০৫, ২০২০
এমএইচএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ফুটবল বার্সেলোনা মেসি
Nagad
মুন্সিগঞ্জে কমতে শুরু করেছে পদ্মার পানি 
অবশেষে মুক্তি পেলেন খুলনার নিরপরাধ সালাম ঢালী
ভার্চ্যুয়াল নয়, ‌অ্যাকচুয়াল কোর্ট চান আইনজীবীরা
নুরে আলম সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের দাবি
বিনামূল্যে ইন্টারনেট পাওয়া শিক্ষার্থীদের অধিকার


করোনা আক্রান্তের ঝুঁকির মধ্যেই স্বাভাবিক হচ্ছে নগরজীবন!
ভিয়েতনামে আটকে পড়া ২৭ বাংলাদেশি নিয়ে মন্ত্রণালয়ের ব্যাখ্যা
ক্ষেতলালে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু
এবার ফ্লোরিডায় মানুষের মগজখেকো অ্যামিবার হানা! 
পিরোজপুরে মতানৈক্যের কারণে উন্নয়নে বরাদ্দকৃত টাকা ফেরত