php glass

নিউজিল্যান্ড সফর

টাইগারদের সেরা সুযোগ

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কার্ডিফের সেই জয় হতে পারে বড় অনুপ্রেরণা-ছবি: সংগৃহীত

walton

নেপিয়ারে বাংলাদেশ শেষ ওয়ানডে খেলেছিল ২০১০ সালে। সেই ম্যাচে ১৪৬ রানের বড় ব্যবধানে হেরেছিল বাংলাদেশ। তবে সেই স্মৃতি ভুলে যেতে চাইবে টাইগাররা। তাছাড়া ৮ বছর আগের সেই বাংলাদেশের সাথে এই বাংলাদেশের অনেক পার্থক্য। বিশ্ব ক্রিকেটে বাংলাদেশ এখন এক পরাশক্তির  নাম। এই নিউজিল্যান্ডকেই নিজেদের ঘরের মাঠে বহুবার হারিয়েছে টাইগাররা। কিন্তু কিউই কন্ডিশনে বরাবরই নাজেহাল হতে হয়েছে তাদের। এবার কি সেই বৃত্ত ভাঙতে পারবেন মাশরাফিরা?

নেপিয়ারে সিরিজের প্রথম ওয়াডেতে বুধবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৭টায় নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। এই ম্যাচে নামার আগে দলের সেরা তারকা সাকিব আল হাসানের অভাববোধ করবে দল। তবে এখন হাহুতাশ করার সময় নয়। যারা আছেন তাদের নিয়েই জয় ছিনিয়ে আনার লড়াইয়ে নামতে হবে। টাইগার ওয়ানডে দলপতি মাশরাফি বিন মর্তুজাও জানিয়েছেন, সাকিবের অভাব ভোগাবে। তবে বাকিরা মিলে লড়াইটা চালিয়ে যেতে হবে।

অনেকে ধারণা করছেন, নিউজিল্যান্ডে ম্যাচ জেতার এটাই সেরা সুযোগ। কারণ, কিউইরা যে এখন ঘরের মাঠে আর অজেয় নয় তা সম্প্রতি ভারত চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে। বিরুদ্ধ কন্ডিশনেও স্বাগতিকদের অনায়াসে টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজে হারিয়ে দিয়েছে কোহলিবাহিনী। ফলে ক্ষয়িষ্ণু শক্তির কিউই দলের বিপক্ষে জয় পাওয়ার জন্য এর চেয়ে ভালো সুযোগ কমই আসবে টাইগারদের সামনে। তবে সাকিবের অভাব এখানেও সমস্যা হয়ে দাঁড়াতে পারে টাইগারদের জন্য।

টাইগারদের সম্ভাবনার অন্যতম কারণ হতে পারে পেস আক্রমণ। তাসকিনের মতো গতিতারকা না থাকা সত্ত্বেও দলে রুবেল হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান, মাশরাফির মতো অভিজ্ঞ পেসার আছেন। স্পিনে সাকিব না থাকলেও আছেন মেহেদি হাসান মিরাজ ও নাঈম হাসানের মতো তরুণ ও কার্যকর স্পিনার। আর ব্যাট হাতে তামিম, লিটন, মুশফিক, সৌম্য, মাহমুদউল্লাহ, সাব্বির-তালিকাটা বেশ লম্বা। এখন শুধু ঠিক সময়ে ক্লিক করতে পারলেই হয়।
 
বাংলাদেশের নিউজিল্যান্ড সফরের শুরুটা অবশ্য সুখকর হয়নি। মূল আসর মাঠে গড়ানোর আগে একমাত্র প্রস্তুতিমূলক ম্যাচে হেরেছে টাইগাররা। নিউজিল্যান্ডে মূল ইস্যু হচ্ছে কন্ডিশন। সেখানকার কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়া কঠিন কাজ। একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচ নিয়ে তাই খুশি নন টাইগার কোচ স্টিভ রোডস। 

রোডসের মতে, কন্ডিশনের সাথে মানিয়ে নিয়ে অনুশীলনের সময়টা বেশি পায়নি তার দল। রোডস বলেন, “অনুশীলনের জন্য সময়টা যথেষ্ট ছিল না। কন্ডিশনের সাথে মানিয়ে নিতে আরও কিছুটা সময় প্রয়োজন ছিল।”

নিউজিল্যান্ড যতোই ভারতের কাছে হারুল, দল হিসেবে তারা ঘরের মাঠে বরবারই ভয়ঙ্কর। বিশেষ করা তাদের পেস আক্রমণ। ট্রেন্ট বোল্ট, টিম সাউদি কিংবা লোকি ফার্গুসনরা মারাত্মক সুইং করাতে সক্ষম। আর বল হাতে অধিনায়ক কেন উইলিয়ামস তাদের বড় ভরসা, যাকে কিনা আবার আধুনিক ক্রিকেটের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান। তাছাড়া রস টেইলর, টম ল্যাথামরাও আছেন দুর্দান্ত ফর্মে।

সর্বশেষ দেখায় অবশ্য জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছিল টাইগাররা। ২০১৭ সালে নিরপেক্ষ ভেন্যু কার্ডিফে পিছিয়ে থেকেও দুর্দান্ত জয় তুলে নিয়েছিলেন মাশরাফি-সাকিবরা। সেই কন্ডিশনও অনেকটা নিউজিল্যান্ডের মতোই। ফলে ওই ম্যাচের সুখস্মৃতি এবারের সফরে টাইগারদের অনুপ্রেরণা হতে পারে।
 
বাংলাদেশ সময়: ২২০২ ঘন্টা, ফেব্রুয়ারি, ১২, ২০১৯
আরএআর/এমএইচএম

৮ বছরের মধ্যে জনসংখ্যায় চীনকে ছাড়িয়ে যাবে ভারত
ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ লিমিটেডে নিয়োগ
ডেল্টা লাইফের ২৬ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা
মান্দায় গৃহবধূর গলা কাটা মরদেহ উদ্ধার 
মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আজহারের আপিল শুনানি শুরু


ডিআইজি মিজানের ঘুষ লেনদেন তদন্তে পুলিশের কমিটি
বোলার নয়, ব্যাটসম্যানদেরই দুষলেন হোল্ডার
ইস্ট ডেল্টায় প্রফেশনাল কোর্সে ভর্তি শুরু
ধামইরহাটে পাটক্ষেত থেকে ২ কিশোরের মরদেহ উদ্ধার 
ছোটপর্দায় আজকের খেলা