ঢাকা, শনিবার, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৫ আগস্ট ২০২০, ২৪ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

রাজশাহীতে করোনাকালে মেস ভাড়া মওকুফের দাবি ছাত্র মৈত্রীর 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৪৩ ঘণ্টা, জুলাই ১৬, ২০২০
রাজশাহীতে করোনাকালে মেস ভাড়া মওকুফের দাবি ছাত্র মৈত্রীর 

রাজশাহী: করোনা পরিস্থিতির কারণে রাজশাহীর শিক্ষার্থীদের জন্য মেস ভাড়া মওকুফের দাবি জানিয়েছে জেলা ও মহানগর ছাত্র মৈত্রী। এই দাবিতে ছাত্রমৈত্রী নেতৃবৃন্দ বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) দুপুরে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে।

রাজশাহী জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে গিয়ে স্মারকলিপি দেওয়ার আগে কোর্ট শহীদ মিনার চত্বরে মানববন্ধন ও সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে জেলা ও মহানগর ছাত্র মৈত্রী নেতৃবৃন্দ।  

মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী মহানগর ছাত্র মৈত্রীর সভাপতি এএইচএম জুয়েল খান।

এতে ওয়ার্কার্স পার্টির মহানগর সাধারণ সম্পাদক দেবাশিষ প্রামাণিক দেবু, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য অ্যাড. এন্তাজুল হক বাবু, আব্দুল মতিন ছাত্র মৈত্রীর জেলা আহ্বায়ক মনিরুল ইসলাম মনি, যুগ্ম আহ্বায়ক হাফিজুর রহমান হাফিজ, নগর কমিটির সহ-সভাপতি আরাফাত এইচ মারুফ বক্তব্য রাখেন।

স্মারকলিপিতে ছাত্র মৈত্রী নেতৃবৃন্দ শিক্ষার্থীদের মেস ভাড়া মওকুফ, বিনামূল্যে উচ্চগতির ইন্টারনেট প্যাকেজ দেওয়া এবং স্মার্টফোন, ল্যাপটপ, কম্পিউটার কেনার জন্য সহজ শর্তে সুদমুক্ত ব্যাংক লোন দেওয়ার সরকারি প্রজ্ঞাপনেরও দাবি জানান।

স্মারকলিপিতে বলা হয়, করোনা পরিস্থিতি দীর্ঘায়িত হওয়ার কারণে রাজশাহীসহ গোটাদেশই স্থবির হয়ে পড়েছে। প্রায় সব শ্রেণি পেশার মানুষের স্বাভাবিক আয় তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে। ইতোমধ্যে অসংখ্য মানুষ হারিয়েছে তার পেশা। দেশের প্রায় ৯০ শতাংশ মানুষই হিমসিম খাচ্ছেন তাদের পরিবারের খরচ চালাতে। অর্থনৈতিক মন্দার পরোক্ষ প্রভাব পড়েছে শিক্ষার্থীদের ওপরও।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীরা শিক্ষার তাগিদেই এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর নিজস্ব ছাত্রাবাস বা ছাত্রীনিবাস না থাকায়; আর থাকলেও আসন সংখ্যা অপ্রতুল হওয়ায় শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন বাসায় মেস করে ভাড়া থাকতে হয়। বলার অপেক্ষা রাখে না, এসব শিক্ষার্থীদের অধিকাংশই আসে প্রত্যন্ত অঞ্চল ও দরিদ্র পরিবার থেকে। এসব দরিদ্র শিক্ষার্থীদের একটি বড় অংশ তাদের পড়ালেখা ও থাকা-খাওয়ার খরচ বহন করে টিউশনি করিয়ে। করোনাকালীন সময়ে তাদের সেই টিউশনিও বন্ধ। তাই তাদের দাবি বিশেষভাবে বিবেচনার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানানো হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ২০৪৩ ঘণ্টা, জুলাই ১৬, ২০২০
এসএস/জেআইএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

জাতীয় এর সর্বশেষ

Alexa