ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২২ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

করোনা: নেগেটিভ প্রেশার বানালো ঢাবি-বিএসএমএমইউ

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৪৩ ঘণ্টা, জুলাই ১১, ২০২০
করোনা: নেগেটিভ প্রেশার বানালো ঢাবি-বিএসএমএমইউ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়: করোনা রোগীর নির্গত জীবাণু থেকে অন্যান্য রোগী ও স্বাস্থ্যকর্মীদের রক্ষার জন্য নেগেটিভ প্রেশার আইসোলেশন ক্যানোপি তৈরি করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ গবেষক দল। নেগেটিভ প্রেশার কেনোপিটি বিএসএমএমইউয়ের ইনটেনসিভ কেয়ার বিভাগে ব্যবহার ও গবেষণার জন্য ইনস্টিটিউশনাল রিভিউ বার্ড (IRB) অনুমোদন করেছে।

শনিবার (১১ জুলাই) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, কোভিড-১৯ এর মতো সংক্রামক রোগীদের থেকে নির্গত জীবাণু হাসপাতালে অন্যান্য রোগী ও স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য বিরাট ঝুঁকি।

রোগীর চারদিক ঘিরে রেখে বাতাস টেনে নিয়ে নেগেটিভ প্রেশার তৈরি করে এ ঝুঁকি কমানোর জন্য বিভিন্ন ব্যবস্থা রয়েছে। যার কোনোটি কেবল রোগীর মাথা ঢেকে রাখে। কোনোটি রোগীর শরীরের অর্ধেক ঢেকে রাখে। কোনটি রোগীর বিছানার আশপাশে বেশ কিছু জায়গা ঘিরে তাঁবুর মতো তৈরি করে। কোনোটি পুরো ঘর থেকেই বাতাস টেনে নেয়। তবে শেষের দুটি ব্যবস্থায় রোগীকে সেবা দেওয়া চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের ঝুঁকি থেকেই যায়। আবার রোগীকে অ্যাম্বুল্যান্সে আনা নেওয়ার জন্য স্ট্রেচারের ওপরও এ ধরনের ব্যবস্থা করা হয়। বিদেশ থেকে আনা এসব যন্ত্রপাতি ব্যয়বহুল এবং অনেক সময়ই মেরামতযোগ্য নয়।

তাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োমেডিক্যাল ফিজিক্স অ্যান্ড টেকনোলজি বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারপারসন ও বর্তমানে অনারারি অধ্যাপক খন্দকার সিদ্দিক-ই রব্বানীর নেতৃত্বে কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের সম্মিলিত একটি গবেষণা দল সম্পূর্ণ নিজস্ব ডিজাইনে একটি নেগেটিভ প্রেশার আইসোলেশন ক্যানোপি তৈরি করেছে। যা কেবল একটি বিছানার ওপরে একজন রোগীকে আলাদা করে রাখবে। এছাড়া এটির চারদিকের পর্দা স্বচ্ছ ও উঁচু হওয়ায় রোগী কোনো রকম অস্বস্তি বোধ করবেন না।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪০ ঘণ্টা, জুলাই ১১, ২০২০
এসকেবি/টিএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

জাতীয় এর সর্বশেষ

Alexa