ঢাকা, শনিবার, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৫ আগস্ট ২০২০, ২৪ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

করোনায় ডিজি আমিনুলের মৃত‍্যুতে প্রতিমন্ত্রী-সচিবের শোক

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩১২ ঘণ্টা, জুলাই ১১, ২০২০
করোনায় ডিজি আমিনুলের মৃত‍্যুতে প্রতিমন্ত্রী-সচিবের শোক

ঢাকা: বগুড়া পল্লী উন্নয়ন একাডেমির (আরডিএ) মহাপরিচালক ও অতিরিক্ত সচিব মো. আমিনুল ইসলামের মৃত‍্যুতে গভীর শোক প্রকাশ ক‌রে‌ছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য এবং সচিব মো. রেজাউল আহসান।

পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আহসান হাবীব জানান, আমিনুল ইসলাম গত ২৯ জুন থেকে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ  (রামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। শনিবার (১১ জুলাই) সকাল ৯টা ৩০ মিনিটে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

তিনি স্ত্রী ও দুই ছেলেসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।  

এক শোকবার্তায় প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমিনুল ইসলাম অত্যন্ত সততা, দক্ষতা ও নিষ্ঠার সঙ্গে তার উপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করেছেন। তার সুদক্ষ নেতৃত্বে আরডিএ প্রশিক্ষণ ও গবেষণা ক্ষেত্রে নতুন মাত্রা লাভ করেছে। আরডিএ সুনির্দিষ্ট ভিশন ও মিশন বাস্তবায়নে তার অবদান অত্র মন্ত্রণালয় গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে। তার মৃত্যুতে দেশ একজন দক্ষ ও  দেশপ্রেমিক প্রশাসককে হারালো।  

পৃথক শোকবার্তায় পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় সচিব মো. রেজাউল আহসান বলেন, আরডিএ ডিজি আমিনুল যোগদানের অল্প সময়ের মধ‍্যে সরকারের নির্বাচনী ইশতেহার ‘আমার গ্রাম, আমার শহর’ বিনিমার্ণে গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনাসহ সরকারের নীতি ও উন্নয়ন কর্মকাণ্ড বাস্তবায়নে অগ্রগামী ভূমিকা পালন করেন। তিনি রাষ্টীয় দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি জনকল্যাণমূলক কর্মকাণ্ডেও ছিলেন সমানভাবে সক্রিয়। তার কর্মদক্ষতা ও সততার জন‍্য এ বছরের শুদ্ধাচার পুরস্কার অর্জন করেন। তার মৃত‍্যুতে মন্ত্রণালয়ের সব কর্মকর্তা-কর্মচারী গভীরভাবে শোকাহত।

প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য ও সচিব  মরহুমের বিদেহী  আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

আমিনুল ইসলাম বিসিএস অষ্টম বিসিএস ব্যাচের মাধ্যমে প্রশাসন ক্যাডারে ১৯৮৯ সালের ২০ ডিসেম্বর যোগদান করেন। দীর্ঘ চাকরি জীবনে তিনি সহকারী কমিশনার, সহকারী কমিশনার (ভূমি), উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও), অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক, জেলা প্রশাসক, স্থানীয় সরকারের পরিচালক, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার হিসেবে মাঠ প্রশাসনে এবং উপ-সচিব হিসেবে খাদ্য মন্ত্রণালয়ে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি সিরাজগঞ্জের জেলা প্রশাসক (ডিসি) হিসেবে তিন বছরের অধিক সুনাম ও দক্ষতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেন।

তিনি পেশাগত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি জনকল্যাণমূলক কর্মকাণ্ডেও সমানভাবে সক্রিয় ছিলেন। তিনি সামাজিক আন্দোলন স্কাউটিং কার্যক্রমের সঙ্গে নিবিড়ভাবে যুক্ত ছিলেন। তিনি স্কাউটসের একজন লিডার ট্রেনারও ছিলেন। তিনি গত পাঁচ বছর যাবত বাংলাদেশ স্কাউট রাজশাহী অঞ্চলের আঞ্চলিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।  

বাংলাদেশ সময়: ১৩১২ ঘণ্টা, জুলাই ১১, ২০২০
এমআইএইচ/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

জাতীয় এর সর্বশেষ

Alexa